আপনি বড় করে ঘোমটা দিলে, হিজাব পরলে তো চেইন নিত না; ভুক্তভোগীকে পুলিশ
প্রকাশ : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:১৭
আপনি বড় করে ঘোমটা দিলে, হিজাব পরলে তো চেইন নিত না; ভুক্তভোগীকে পুলিশ
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

রাজধানী ঢাকার জিপিও এলাকায় ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন সাংবাদিক সামিনা সুলতানা। ছিনতাইয়ের শিকার হওয়ার পর তাৎক্ষণিক টহলরত পুলিশকে ঘটনাটি জানান তিনি। তবে পুলিশের কাছে অভিযোগ দিয়ে উল্টো নিজেই জেরার মুখে পড়েন সামিনা। একপর্যায়ে টহলরত পুলিশদের একজন মো. রাজ্জাক সামিনা সুলতানাকে বলেন, আপনি ওড়নাটা টেনে ঘোমটা দিয়ে রাখলেই তো আপনার চেইন (ছিনতাইকারী) দেখতে পেত না এবং নিত না।


মিনিট দুয়েক পরেই রাস্তায় বোরকা-হিজাব পরিহিতা একজন নারীকে দেখিয়ে পুলিশের সেই সদস্য সামিনাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, দেখেন ওর কাছ থেকে তো চেইন নিতে পারবে না, কিন্তু আপনারটা নিতে পেরেছে। তখন সামিনা সুলতানা পুলিশকর্মী রাজ্জাককে বলেন, তার মানে কী? আপনি বলতে চান আমি হিজাব-বোরকা পরিনি বলে আমার চেইন নিয়ে গেছে? রাজ্জাক তখন বলেন, না, তা বলিনি। আমি বলছি, আপনি বড় করে ঘোমটা দিলেই তো চেইন নিত না।


রাজধানী ঢাকার রাস্তায় ছিনতাইয়ের শিকার হওয়ার পর এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার কথা জানিয়েছেন বিবার্তা২৪ডটনেট পত্রিকার অ্যাসাইনমেন্ট অ্যান্ড লিটারেরি এডিটর সামিনা সুলতানা। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে ছিনতাইয়ের ঘটনা নিয়ে পল্টন থানায় মামলা করেছেন তিনি। মামলা নং- ৩৬।


মামলার অভিযোগে সামিনা সুলতানা বলেন, আমি অফিস শেষে বাংলামটর থেকে বাসায় যাচ্ছিলাম। বেলা সোয়া ৩টার দিকে বাস থেকে পল্টন নেমে রিকশা নিয়ে জুরাইনের উদ্দেশ্যে রওনা হই। রিকশা জিপিও পৌঁছামাত্র ছিনতাইকারী গলার চেইন ধরে টান দিয়ে নিয়ে দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। হতবিহ্বল অবস্থায় টহলরত পুলিশকে জানাই। টহলরত পুলিশ সেখানকার হকারদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন এবং বিষয় সম্পর্কে জানতে চান। হকাররা জানায়, তারা পীর ইয়ামিনী মার্কেটের রাস্তার দিকে ছিনতাইকারীকে পালিয়ে যেতে দেখেছে।


জানতে চাইলে হতাশা প্রকাশ করে সাংবাদিক সামিনা সুলতানা বলেন, পল্টন, গুলিস্তান, জিরো পয়েন্ট এলাকায় মোবাইল, স্বর্ণালংকার ইত্যাদি ছিনতাইয়ের ঘটনা প্রায় নিত্যদিন ঘটে। অফিস ফিরতি পথে আমি অধিকাংশ দিনই মোবাইল-মূল্যবান জিনিসপত্র কিছুই ব্যাগ থেকে বের করি না। পুলিশ টহলে থাকা সত্ত্বেও কেন এই সকল এলাকা ছিনতাইকারীদের অভয়ারণ্য?


তিনি বলেন, আমি ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছি কিন্তু সবচেয়ে দুঃখজনক হলো, পুলিশ আমাকে সহযোগিতার বদলে আমার পোশাক নিয়ে মন্তব্য করেন? আমাকে যদি বোরকা পরেই ছিনতাইকারীদের ঠেকাতে হয় তাহলে পুলিশের কী দরকার?


তিনি বলেন, এরপর আমি সেখানে বিলম্ব না করে পল্টন থানায় গিয়ে ছিনতাইয়ের অভিযোগ করেছি। পরে পল্টন থানার অফিসার ইনচার্জ উক্ত ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন।


থানা সূত্রে জানা গেছে, পল্টন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সালাউদ্দিন মিয়া অফিসের গাড়িতে করে সামিনা সুলতানাসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান এবং সিসি টিভি ফুটেজের আলামত সংগ্রহের চেষ্টা করেছেন।


এ বিষয়ে পল্টন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সালাউদ্দিন মিয়া বিবার্তাকে বলেন, উনি রিকশায় যাচ্ছিলো, পেছন থেকে টান দিয়ে অজ্ঞাত কেউ চেইনটা নিয়ে গেছে। উনি চিনতে পারেননি। ছিনতাই হয়েছে আমরা এ সংক্রান্ত মামলা নিয়েছি। মামলার তদন্ত হচ্ছে।


বড় করে ঘোমটা দিলে চেইন নিত না- ভুক্তভোগীকে পুলিশ সদস্য এমন কথা বলেছেন। এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, না, না এরকম কোনো বিষয় না। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে হয়তো ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। ঐটা ওখানেই শেষ হয়ে গেছে।


বিবার্তা/সোহেল/জেএইচ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com