নারায়ণগঞ্জ আদালতে মামুনুল হক
প্রকাশ : ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৩:০৬
নারায়ণগঞ্জ আদালতে মামুনুল হক
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম-মহাসচিব মামুনুল হককে নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালতে আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে করা ধর্ষণ মামলায় ৭ম দফায় সোমবার (৩ অক্টোবর) ৬ পুলিশ কর্মকর্তাসহ ৮ জন সাক্ষ্য দেবেন।


সাক্ষীরা হলেন, সোনারগাঁ থানার এসআই আরিফ হাওলাদার, বোরহান, জোবায়েদ হোসেন, নুুরুল ইসলাম। এছাড়া আগের তারিখে ২ জন সাক্ষী অনুপস্থিত ছিলেন।


তারা হলেন, সোনারগাঁ থানার পুলিশ পরিদর্শক সাইদুজ্জামান ও এসআই ইয়াউর রহমান। এর আগের তারিখে আরও ২ জন সাক্ষী অনুপস্থিত ছিলেন। তারা হলেন, পারভেজ ও মেহেদী হাসান।


আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এ কে এম ওমর ফারুক নয়ন বলেন, আজ মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় ৬ পুলিশ কর্মকর্তাসহ ৮ জনের সাক্ষ্য দেয়ার কথা রয়েছে। নতুন ৪ জন পুলিশের এসআইসহ আগের তারিখের অনুপস্থিত ২ পুলিশ কর্মকর্তার সাক্ষ্য দেয়ার কথা রয়েছে। এছাড়া আগের তারিখের আরও দুই জন সাক্ষীরাও সাক্ষ্য দিতে পারেন।


আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) রকিব উদ্দিন আহমেদ বলেন, মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণের কথা রয়েছে।


উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে রয়েল রিসোর্টে এক নারীর সঙ্গে অবস্থান করছিলেন মামুনুল হক। ওই সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসে তাকে ঘেরাও করেন। পরে স্থানীয় হেফাজতের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা এসে রিসোর্টে ভাঙচুর করে মামুনুল হককে ছিনিয়ে নিয়ে যান।


ঘটনার পর থেকেই মামুনুল হক মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসায় অবস্থান করে আসছিলেন। এ সময় পুলিশ তাকে নজরদারির মধ্যে রাখে। এরপর ২০২১ সালের ১৮ এপ্রিল ওই মাদরাসা থেকে গ্রেফতার করা হয় মামুনুলকে।


মামুনুল হকের দাবি, ওই নারী তার দ্বিতীয় স্ত্রী। তবে ঘটনার প্রায় চার সপ্তাহ পর সোনারগাঁ থানায় মামুনুল হকের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ মামলা করেন ওই নারী।


বিবার্তা/কেআর

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com