পদ্মা সেতু উদ্বোধনে ভোলায় ২০ লাখ মানুষের মধ্যে আনন্দ
প্রকাশ : ২৫ জুন ২০২২, ২০:১২
পদ্মা সেতু উদ্বোধনে ভোলায় ২০ লাখ মানুষের মধ্যে আনন্দ
কামরুজ্জামান শাহীন, ভোলা প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম এর পদ্মা নদী নিয়ে বিখ্যাত গান- ‘পদ্মার ঢেউ রে, মোর শূন্য হৃদয় পদ্মা নিয়ে যা যারে।’ কারণ কবি পদ্মা নদীকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতেন, ভালোবাসতেন। তেমনি আজ দ্বীপ জেলা ভোলার মানুষও পদ্মা নদীর ওপরে নির্মিত পদ্মা বহুমুখী সেতুকে নিয়ে স্বপ্ন দেখছেন।


এক সময়ের স্বপ্নের পদ্মা সেতু এখন দৃষ্টিসীমায় দিগন্তজুড়ে দাঁড়িয়ে আছে। আজ ২৫ জুন, শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সেতু উদ্বোধন করেন এবং ২৬ জুন সকাল ৬টায় খুলে দেয়া হবে যান চলাচলের জন্য। দ্বীপ জেলা ভোলার ২০ লাখ মানুষ এই দিনের প্রতীক্ষায় ছিল। এখন তারা প্রতিদিনই নতুন নতুন স্বপ্ন দেখছেন।


পদ্মা বহুমুখী সেতু খুলে দেয়ার পরেই ভোলার সঙ্গে গোটা বাংলাদেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা যেমন সহজ হবে, তেমন কমবে সময়ের দূরত্ব। এখানে গড়ে উঠবে নতুন নতুন শিল্প ও কল-কারখানা। অসংখ্য বেকার মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। জীবিকার প্রয়োজনে শুরু হবে নতুন নতুন ব্যবসা-বাণিজ্য। এবং ভোলার মানুষের ভাগ্য বদলে নতুন দিগন্ত উম্মোচন করেছে পদ্মা সেতু।



দ্বীপ জেলা ভোলার মানুষ এমনিতেই বিচ্ছিন্ন। যোগাযোগ ব্যবস্থায় পিছিয়ে থাকা এ জেলাটি এখন পদ্মা সেতুর সুফল ভোগ করবে। পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে ভোলার মানুষের জীবনমানকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে। ভোলাসহ দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনীতিকে একধাপ এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে পদ্মা সেতু হবে নতুন দিগন্ত। পদ্মা সেতুকে ঘিরেই সোনালী ভবিষ্যত দেখতে পাচ্ছেন এই অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া মানুষেরা।


এ সেতু শুধু ভোলার শিল্প খাতেই নয়, সুফল পাওয়া যাবে কৃষি ও পর্যটন খাতে। দক্ষিণাঞ্চলে শিল্পায়ন তথা জাতীয় অর্থনীতিতে নতুন দুয়ার খুলে যাবে। পদ্মা সেতু নির্মাণ হওয়ায় ভোলার উন্নয়ন এবং অগ্রগতির নতুন যুগে প্রবেশের দ্বারপ্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছে।


ভোলার ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, পদ্মা সেতু চালু হলে ভোলার অর্থনীতির চেহারা অনেকটা বদলে যাবে। বিনিয়োগ, কর্মসংস্থান ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বাড়বে, যা মানুষের জীবনমানকে আরো উন্নত করবে। সব বাধা উপেক্ষা করে শেষ পর্যন্ত নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের দুঃসাহসিক চ্যালেঞ্জ নেয় শেখ হাসিনা সরকার।



ভোলার বাস মালিক সমিতির নেতারা বলেন, এই সেতুর মাধ্যমে ভোলাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের বিরামহীন এবং নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগের অবারিত এক সুযোগ সৃষ্টি হবে। পদ্মা সেতু চালু হওয়ার মাধ্যমে উত্তর-দক্ষিণে কোনো ভাগ থাকবে না। সব মিলে মিশে একাকার হয়ে যাবে। পদ্মা সেতু চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ভোলাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১টি জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থায় ব্যাপক গতি আসবে। ইতোপূর্বে এসব অঞ্চলের বিভিন্ন পণ্য সামগ্রী আনা-নেয়ায় যে সংকট ছিল, তা পদ্মা সেতু হওয়ায় দূর হয়েছে। ফেরি ঘাটে জ্যামে পড়ে মালামাল পঁচে যাওয়া বা দুর্যোগে লঞ্চ আসতে না পারায় ক্ষতি। সব মিলিয়ে সব সংকট দূর হয়ে যাচ্ছে এক পদ্মা সেতু উদ্বোধনের মাধ্যমে- এমনটাই মনে করছেন, ভোলার সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ।


ভোলার সংবাদ কর্মী কামরুল ইসলামের সাথে কথা হয় বিবার্তা প্রতিনিধির, তিনি বলেন একটি দেশের অর্থনীতি নির্ভর করে সেই দেশের উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার উপর। সেই ক্ষেত্রেই পদ্মা সেতুর মাধ্যমে আমরা এক ধাপ এগিয়ে গেলাম। বিশেষ করে আমরা যারা এই দ্বীপে বসবাস করি, পদ্মা সেতু আমাদের ভোলাবাসীর জন্য বড় একটি আসার আলো।


ভোলা জেলার সামাজিক ব্যক্তিত্ব মোস্তাক শাহীন বিবার্তাকে বলেন, স্বপ্নের পদ্মা সেতু এখন বাস্তব। পদ্মা সেতু হওয়াতে আমাদের সময় সংক্ষিপ্ত হবে। ভোলাবাসীর ব্যবসা, চিকিৎসা ও যোগাযোগ ব্যবস্থার খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে এই সেতু। পদ্মা সেতুর কারণে এ অঞ্চলের ব্যবসা-বাণিজ্য প্রসারিত হওয়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের জিডিপি বৃদ্ধি পাবে।



ভোলার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মমিন টুলু বিবার্তা প্রতিনিধিকে জানান, পদ্মা সেতু হওয়াতে আমাদের এই দক্ষিণ অঞ্চলের বিশেষ করে ভোলা পণ্য আনা নেয়ার ক্ষেত্রে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।


ভোলা পৌর সভার মেয়র মো. মনিরুজ্জামান এর সাথে কথা হয় বিবার্তা প্রতিবেদকের, তিনি বলেন পদ্মা সেতুর মাধ্যমে যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নতি হবে ও দূরত্ব করে যাবে। এতে করে ভোলার অর্থ-সামাজিক, শিল্প, পর্যটন শিল্পসহ সকল ক্ষেত্রে ভোলার মানুষ সুফল ভোগ করবেন। স্বপ্নের পদ্মা সেতু এখন আর স্বপ্ন নয়, বাস্তবে রূপ নিয়েছে। ভোলাসহ দক্ষিণ অঞ্চলের মানুষের মুখে হাসি ফুটেছে। ভোলার মানুষ স্বপ্নের পদ্মা সেতু নিয়ে আনন্দের বন্যায় ভাসছেন ।


বিবার্তা/রোমেল/জেএইচ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com