‘গুড ফ্যাট' কোনটিতে, তেল, ঘি না মাখন?
প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৫৬
‘গুড ফ্যাট' কোনটিতে, তেল, ঘি না মাখন?
লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

অনেকেই মনে করেন, প্রতিদিন তেলমশলা খাওয়ার চেয়ে এক-আধটা দিন ঘি বা মাখন খাওয়া ভালো। এদিকে চিকিৎসকদের মতে, উদ্ভিজ্জ যে কোনও তেলই হার্টের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো।


প্রতিদিনের ডায়েটে কিছু নির্দিষ্ট খাবার যুক্ত করে স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা নিশ্চিত করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে। আপনি হয়ত শুনেছেন আপনার প্রতিদিনের ডায়েটে মাখন বা ঘি বা তেল যোগ করা কোনও না কোনও উপায়ে স্বাস্থ্যকর হতে পারে ,মাখন বা ঘি বা তেল হোক, প্রত্যেকটিরই সুবিধা রয়েছে। তবে এই তিনটির মধ্যে যেগুলির মধ্যে সবার মধ্যে স্বাস্থ্যকর পছন্দ হবে তা এখন প্রশ্ন সুতরাং, আপনাকে আরও ভালো করে জানতে হবে।


হৃদ্‌রোগ, ক্যানসার, ডায়াবিটিস এবং অ্যালজাইমার্সের মতো দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমতে পারে গুড ফ্যাটের প্রভাবে।


অর্থাৎ,স্বাস্থ্য ভালোরাখতে ‘গুড ফ্যাট’ প্রয়োজন, কিন্তু তেল, ঘি না মাখন কীসের মধ্যে লুকিয়ে আছে এই ফ্যাট?


ঘি হল আনপ্রসেসড্ ফ্যাট। খাঁটি গরুর ঘিতে আছে ওমেগা থ্রি এবং ভিটামিন এ। ১০০ গ্রাম ঘি থেকে প্রায় ৯০০ ক্যালোরি শক্তি উৎপন্ন হয়। এ ছাড়াও ঘিয়ে ৬০ শতাংশ স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকলেও ট্রান্স ফ্যাট নেই।


অন্য দিকে, ১০০ গ্রাম মাখন থেকে পাওয়া যায় ৭১৭ ক্যালোরি, ৫১ শতাংশ স্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং ৩ গ্রাম ট্রান্স ফ্যাট।


তাই তুলনায় মাখনের চেয়ে ঘিয়ের পাল্লা একটু হলেও বেশি।


অলিভ অয়েলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট।


তবে, সাম্প্রতিক গবেষণায় উঠে এসেছে নতুন একটি তথ্য। সেখানে বলা হচ্ছে ঘি বা মাখন নয়, হৃদয়ের স্বাস্থ্য ভাল রাখতে এবং সেই সংক্রান্ত ঝুঁকি এড়াতে একমাত্র অলিভ অয়েল ব্যবহার করাই ভাল। কারণ অলিভ অয়েলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, নিয়মিত খেলে যা শুধু হার্টই নয়, ক্যানসার, ডায়াবিটিস এবং অ্যালজাইমার্সের মতো দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও কমাতে পারে। এ ছাড়াও অলিভ অয়েলে ‘গুড ফ্যাটে’র পরিমাণ অনেকটাই বেশি, যা রক্তে কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে।


ঘি:মাখনকে উচ্চ তাপমাত্রায় সেদ্ধ করা হয় এবং দুধের অবশিষ্টাংশও সরিয়ে ফেলা হয় এবং এর সাথে চর্বিও হ্রাস করে এবং এভাবে ঘি প্রস্তুত করা হয়। তবে মাখন চর্বিযুক্ত বোঝা হিসাবে পরিচিত এবং মাখনের তুলনায় ঘি ফ্যাট কম থাকে।


যেহেতু ঘি শক্তি এবং স্বাস্থ্যকর চর্বিতে পূর্ণ, তাই রান্না করার সময় বা অন্য কোনও খাবার তৈরিতে ব্যবহার করা হয় তবে এটি অল্প পরিমাণে খাওয়া হয়। ঘিতে অ্যাসিডের উপস্থিতি আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে এবং এইভাবে আপনার দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলবে।


বাটার: এটি সুপরিচিত যে মাখন প্রচুর পরিমাণে চর্বিযুক্ত এবং এটি বেশ কয়েকটি খাবার তৈরিতে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। ঠিক আছে, মাখন দুধের প্রোটিন এবং প্রজাপতি আকারে স্যাচুরেটেড ফ্যাটযুক্ত। তেলগুলিতে পলি-আনস্যাচুরেটেড ফ্যাট বা অযাচিত চর্বিগুলির সাথে তুলনা করার সময় এই চর্বিগুলি আসলে হার্ট-স্বাস্থ্যকর চর্বি।


বাটারে ২০% পানিথাকে যা রান্না করার সময় বাষ্পীভূত হয় যখন তেল খাঁটি ফ্যাট যা আপনি আসলে রান্না করছেন এমন খাবারের মধ্যে শুষে যায়। সুপারমার্কেটে মাখন কেনার পরিবর্তে নিজেরাই ঘরে তৈরি মাখন প্রস্তুত করুন।


তেল:তেলবহু-সংশ্লেষিত চর্বিযুক্ত লোডযুক্ত যা শরীরে প্রদাহ সৃষ্টি করতে পারে এবং এ কারণেই অল্প পরিমাণ তেল মানব দেহের জন্য সুপারিশ করা হয়। তবে আপনি জলপাই তেল ব্যবহার করতে পারেন কারণ এতে অসম্পৃক্ত চর্বি রয়েছে এবং এটি সমস্ত তেলের একটি স্বাস্থ্যকর পছন্দ।


সুতরাং, আপনাকে অবশ্যই উচ্চ-তাপমাত্রার রান্নার জন্য ঘি এবং মাখন উভয়ই ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে তবে জলপাই তেলের ক্ষেত্রে এটি হয় না কারণ এটি উচ্চ তাপমাত্রায় জারণযুক্ত। ইতিমধ্যে, মিহি তেল গভীর-ভাজা খাবার রান্নার জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে তবে এটি কম পরিমাণে হওয়া উচিত।


কোনও কিছু ভাজার ক্ষেত্রে এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল ব্যবহার করতে একেবারেই নিষেধ করা হয়েছে। তাই অলিভ অয়েল খাচ্ছেন ভেবে মনের সুখে তেলেভাজা খাবেন, সেটি কিন্তু হচ্ছে না।


তবে, সকলের স্বাদ এবং সাধ্য এক রকম নয়। তাই রান্নার কাজে যে তেলই ব্যবহার করুন না কেন, কয়েকটি জিনিস অবশ্যই মেনে চলবেন।


১) এক বার রান্না করার পর তেলের রং যদি কালো হয়ে যায় বা তেল ঘন হয়ে যায়, সেই তেল ব্যবহার করা যাবে না।


২) রান্না করার সময় তেল অতিরিক্ত গরম করবেন না।


৩) একবারে অনেকটা তেল কিনে মজুত করে রাখবেন না।


৪) সরাসরি সূর্যের আলো আসে এমন জায়গায় তেল রাখা যাবে না।


বিবার্তা/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com