সাক্ষাতকার
'বিবার্তা বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মু‌ক্তিযুদ্ধের চেতনাকে আপসহীনভাবে তুলে ধরে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হা‌সিনার হাতকে শ‌ক্তিশালী করে চলেছে'
প্রকাশ : ০২ আগস্ট ২০২২, ০০:০৮
'বিবার্তা বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মু‌ক্তিযুদ্ধের চেতনাকে আপসহীনভাবে তুলে ধরে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হা‌সিনার হাতকে শ‌ক্তিশালী করে চলেছে'
মহিউদ্দিন রাসেল
প্রিন্ট অ-অ+

অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) হিসেবে সফলতার সাথে প্রথম মেয়াদে দায়িত্ব পালনের পর দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্ব পালন করছেন।


শিক্ষকতা জীবনে অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ও পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। পরবর্তীতে, অতিথি অধ্যাপক হিসেবে অধ্যাপনা করেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উইনোনা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে।


বিশেষভাবে উল্লেখ্য, ২০০৯ সালে সমাজকর্ম শিক্ষার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা ওয়াশিংটনস্থ সিএসডবি উই পরিচালিত ‘ক্যাথেরিন ক্যান্ডাল ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল সোশ্যাল ওয়ার্ক এডুকেশন’-এর ফেলো হিসেবে তিনি বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজকর্মের উচ্চশিক্ষার ওপর গবেষণা করেন। তিনি ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস)-এর উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করেন।


'মুজিব আমার স্বাধীনতার অমর কাব্যের কবি'এই অমর পঙক্তির রচয়িতা বিশিষ্ট এই কবি চীন ও গ্রিসের তিন‌টি সাহিত্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান যৌথভা‌বে ঘোষিত ‘দ্য প্রাইজেস ২০১৮ : দ্য ইন্টারন্যাশনাল বেস্ট পোয়েট’ বা ‘আন্তর্জাতিক শ্রেষ্ঠ কবি’ খ্যাতি অর্জন করেন। কাব্যক্ষেত্রে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য তি‌নি "বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ২০২০" অর্জন করেছেন।


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ সম্প্রতি বিবার্তা২৪ডটনেটের দশম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিবার্তা প্রতিবেদক মহিউ‌দ্দিন রাসেলের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় কিছু কথা বলেছেন। তাঁর সঙ্গে আলাপের মূল অংশটুকু বিবার্তা২৪ ডটনেটের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।


বিবার্তা : আগামী ২ আগস্ট ১০ বছর পেরিয়ে ১১ বছরে পদার্পণ করতে যাচ্ছে অনলাইন নিউজপোর্টাল বিবার্তা২৪ডটনেট। একজন শিক্ষাবিদ হিসেবে বিবার্তাকে আপ‌নি কীভাবে মূল্যায়ন করবেন?


ড. মুহাম্মদ সামাদ: ১০ বছর এক‌টি অনলাইন প‌ত্রিকা উত্তরোত্তর এ‌গিয়ে যাচ্ছে, এ‌টি খুব গৌরবের বিষয়। জাতীয় ও আন্তর্জা‌তিক রাজনী‌তি-অর্থনী‌তি, শিক্ষা, সা‌হিত্য, বিনোদন সব‌কিছুর খবরা-খবর, প্রবন্ধ-‌নিবন্ধ, ফিচার ইত্যাদি সুন্দরভাবে পাঠকের জ‌ন্য মেলে ধরেছে বিবার্তা। বিবার্তার জন্মলগ্ন থেকে যাঁরা যুক্ত আছেন, বিশেষ করে সম্পাদক বাণী ইয়াসমিন হাসি এবং তোমরা যারা বিবার্তাকে ভালোবেসে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছো সবাইকে আমার অ‌ভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাই।


বিবার্তা : বিবার্তা স্বাধীনতা ও মু‌ক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শ‌ক্তি হিসেবে কাজ করছে। আপ‌নি সেটাকে কীভাবে দেখেন?



ড. মুহাম্মদ সামাদ: বিবার্তা বঙ্গবন্ধু, বাংলাদেশও মু‌ক্তিযুদ্ধের চেতনাকে আপসহীনভাবে ক্রমাগত তুলে ধরে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হা‌সিনার হাতকে শ‌ক্তিশালী করে চলেছে। মু‌ক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শ‌ক্তির জ‌ন্য বিবার্তা এখন অন্যতম মুখপত্র হিসেবে দা‌য়িত্ব পালন করছে। জননেত্রীর শেখ হা‌সিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগ‌তিকে এক‌দিকে তুলে ধরছে, অন্যদিকে নির্মোহভাবে ক্ষমতাসীন দ‌ল ও সরকারের সমালোচনা করতেও পিছপা হচ্ছে না। এখানেই বিবার্তার মৌ‌লিক বিশেষত্ব রয়েছে বলে আ‌মি মনে ক‌রি।


বিবার্তা : বিবার্তা নিউজ পোর্টাল হিসেবে কতটুকু দা‌য়িত্ব পালন করতে পেরেছে বলে মনে করেন?


ড. মুহাম্মদ সামাদ: নিউজ পোর্টাল হিসেবে বিবার্তা এখন সারা পৃ‌থিবীর বাংলাভাষী মানুষের এক‌টি প্রিয় প‌ত্রিকা। স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের মানুষের জন্যে শক্তি ও অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে কাজ করে চলেছে বিবার্তা। সম্পাদক বাণী ইয়াসমিন হাসি একজন সাহসী সাংবা‌দিক ও লেখক হিসেবে এখন স্বম‌হিমায় উজ্জ্বল। বিশেষ করে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হা‌সিনার কারামুক্তির আন্দোলনের সময় থেকেতার সাহস ও নিষ্ঠাকে আ‌মি ঘ‌নিষ্ঠভাবে দেখ‌ছি। তার ‌নিরলসভাবে কাজ করে যাবার নিষ্ঠা ও আন্ত‌রিক দেশ‌প্রেমের জ‌ন্য আ‌মি অত্যন্ত গ‌র্বিত বোধ ক‌রি।


বিবার্তা : বিবার্তা শুরু থেকে একদশক ধরে সততা ও বস্তু‌নিষ্ঠতার সঙ্গে সংবাদ পরিবেশনে সত্যের পক্ষে নির্ভীক থেকেছে। আপনি শুরু থেকেই এই পত্রিকাকে দেখে আসছেন। আপনার মতামত জানতে চাই।


ড. মুহাম্মদ সামাদ: আগেই বলেছি— বিবার্তা বাঙা‌লি জা‌তির রাজনৈতিক ও সাংস্কৃ‌তিক ঐ‌তিহ্যের প্রতি অঙ্গীকারাবদ্ধ থেকেসত্য ও সুন্দরের পক্ষে নি‌র্ভীকভাবে কাজ করছে। বিবার্তার জয়যাত্রা অব্যাহত থাকবে বলে আ‌মি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস ক‌রি।


বিবার্তা : বিবার্তাকে ঘিরে আপনার প্রত্যাশা কী?


ড. মুহাম্মদ সামাদ: আ‌মি বিবার্তা প‌রিবারের একজন শুভাকাঙ্ক্ষী হিসেবে এই নিউজপোর্টালের সব ভালো কাজের সঙ্গে থাকতে চাই। বিবার্তা প‌রিবারের সকলের জ‌ন্য শুভকামনা রইলো।


বিবার্তা : আপনার মূল্যবান সময় দেয়ার জন্য বিবার্তার পক্ষ থেকে আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ স্যার।


ড. মুহাম্মদ সামাদ : তোমাকেও ধন্যবাদ, রাসেল।


বিবার্তা/রাসেল/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com