ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষ, নিহত বেড়ে ১৭৪
প্রকাশ : ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৪:২২
ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষ, নিহত বেড়ে ১৭৪
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ইন্দোনেশিয়ার পূর্ব জাভা প্রদেশে একটি ফুটবল ম্যাচকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৭৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ঘটনায় আহত হন আরো ১৮০ জন।


রবিবার (২ অক্টোবর) আল জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে এই তথ্য।


জানা গেছে, প্রিয় দলের পরাজয় মেনে নিতে না পেরে প্রতিবাদী সমর্থকরা নামলো মাঠে। তাতেই পুলিশের হানা। লাঠিচার্জ আর কাঁদানে গ্যাস থেকে বাঁচতে স্টেডিয়ামের গেটের দিকে জনশ্রোত। সেখানেই কেউ পদদলিত হয়েছেন, কেউবা শ্বাসকষ্টে মৃত্যু বরণ করেছেন।


ইন্দোনেশিয়ায় পূর্ব জাভার মালাংয়ের কানজুরুহান স্টেডিয়ামের উৎসব রুপ নিলো বিষাদে। আনন্দ পরিনত কান্নায়। পুরো দেশ জুড়ে এখন শোকের মাতম। সারি সারি লাশ।



সুনির্দিষ্ট না হলেও ধারণা করা হচ্ছে ৩৮ হাজার আসনের চেয়েও হাজার চারেক দর্শক বেশি ছিল স্টেডিয়ামে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেশটির মন্ত্রী জানিয়েছেন নির্ধারিত টিকিট বিক্রির সঙ্গে রাতের পরিবর্তে দুপুরে খেলা আয়োজনের অনুরোধও মানেনি আয়োজকরা।


মানে আরেমা এফসি। যাদের হোম ভেন্যু এটি। লিগ শিরোপা থেকে অনেক পিছিয়ে থাকলেও প্রতিপক্ষ পেরসেবায়া সুরাবায়ার সঙ্গে তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীতা অনেক আগে থেকে।


গত দুই দশকে যা হয়নি তাই হলো শনিবার (১ অক্টোবর)। আরেমা এফসি হেরে যায় ৩-২ গোলে। শোক-কষ্ট আর দুঃখগুলো মিলে মিশে একাকার সমর্থকদের মনে। তাই হৃদয়ের আবেগ ধরে রাখতে না পেরে মাঠে নেমে আসেন তারা।


শুরুতে আরেমা সমর্থকরা নিরাপত্তা বেষ্টনী ভেঙে আক্রমন করেন প্রতিপক্ষ সুরবায়া সমর্থকদের উপর। পরে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে দুপক্ষ।


প্রতিরোধে নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপরও হামলা চালায়। ভেঙে ফেলা হয় তাদের যানবাহন। এরপর পুলিশি অ্যাকশনের শুরু। স্টেডিয়ামের ভিতরেই মারা যান ৩৪ জন। বাকিরা হাসপাতালে।



নিসো আফিন্তা নামের পুলিশ কর্মকর্তা জানান, হুড়োহুড়িতে সবাই একটি গেট দিয়ে স্টেডিয়াম থেকে বের হতে চেয়েছেন। এতে ভীড়ের কারণে শ্বাসরোধে অনেকের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে দুজন পুলিশ সদস্যও রয়েছেন।


ইন্দোনেশিয়ার ক্রীড়া মন্ত্রী জাইনুদিন আমালি বলেন, আমরা এমন ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। স্টেডিয়ামে দর্শক প্রবেশের অনুমতি না দেয়াসহ ম্যাচগুলোতে নিরাপত্তা পুর্নমূল্যায়ন করা হবে।


ঘটনার তদন্ত না হওয়া পর্যন্ত লিগের সব খেলা স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী। আর মৌসুমে কোন ম্যাচে স্বাগতিক হতে পারবে না আরেমা এফসি, জানিয়েছে ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন।


ফুটবলে এমন ঘটনা এর আগেও হয়েছে। ১৯৬৪ সালে পেরু-আর্জেন্টিনা ম্যাচে সমর্থকদের দ্বন্দে মারা গেছেন ৩২০ জন। আহত হয়েছিলেন হাজারের বেশি মানুষ। আর হিলসব্রো ট্রাজেডিতে লিভারপুলের ৯৭ সমর্থকের মৃত্যু এখনো হৃদয়ে গেঁথে আছে ফুটবল ভক্তদের।


বিবার্তা/বিএম

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com