আজ বিশ্ব এইডস দিবস
প্রকাশ : ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৫৫
আজ বিশ্ব এইডস দিবস
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

বিশ্ব এইডস দিবস আজ। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘অসমতা দূর করি, এইডস মুক্ত বিশ্ব গড়ি’। সারাদেশের ন্যায় চট্টগ্রামেও বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হচ্ছে আজ।


১৯৮৮ সাল থেকে এইডসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ও জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিশ্বে এ দিবসটি পালিত হয়ে আসছে। বাংলাদেশে প্রথম এইডস রোগী শনাক্ত হয় ১৯৮৯ সালে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার পরিসংখ্যান অনুযায়ী– দেশে বর্তমানে এইচআইভি/এইডস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় ১৪ হাজার। এসব রোগীর মধ্যে এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়ে চিকিৎসার আওতায় এসেছেন ৮ হাজারের কিছু বেশি।


"বিশ্ব এইডস দিবস" প্রতি বছর ১ ডিসেম্বর এই রোগ এবং এর চিকিত্সা এবং এর সাথে সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি সম্পর্কে সচেতনতা ছড়িয়ে দেওয়ার এবং এর জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি ও প্রচারণার আয়োজন করার লক্ষ্যে পালিত হয় (World AIDS Day)।


প্রতিবারের মতো এবারও বাংলাদেশে দিবসটি পালন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এইডস-এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ও জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিশ্ব সম্প্রদায় ১৯৮৮ সাল থেকে বিশ্ব এইডস দিবস পালন করে আসছে।


ম্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় এইডস এন্ড এসটিডি কন্ট্রোল পরিচালক ডা. শাহ মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টায় রাজধানীতে এ উপলক্ষ্যে র‌্যালিসহ ওসমানী মেমোরিয়াল হলের সামনে এইচআইভির ওপর সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।


অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তৃতা করবেন স্বাস্থ্য ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী জাহিদ মালেক। এছাড়া দেশের প্রতিটি জেলায় শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা আয়োজনের মাধ্যমে দিবসটি উদযাপন করা হবে।


এইচআইভি পরিস্থিতি সর্ম্পকে পরিচালক বলেন, ইউএনএইসের তথ্য মতে, ২০২১ পর্যন্ত প্রায়ই ৩৯ মিলিয়ন মানুষ এইচআইভি ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বাংলাদেশে অনুমিত আক্রান্তের সংখ্যা ১৪,০০০ এর মতো। ২০২১ অবধি ৮০৩২ জনকে শনাক্ত করা গেছে। শনাক্তকৃতদের ৭৬ শতাংশ রোগী।


বাংলাদেশ এইচআইভি'র জন্য একটি অপেক্ষাকৃত কম সংক্রমনের দেশ, কিন্তু সংক্রমণের সবগুলো উপাদান বিদ্যমান। যেমন, ভৌগলিক অবস্থান। বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী প্রতিটি দেশে (ভারত, মায়ানমার) এ সংক্রমণ অনেক বেশি। যেমন ভারত, মায়ানমার। আমাদের দেশের সঙ্গে এই দুটি দেশের অবাধ যাতায়াত রয়েছে।


বাংলাদেশে ১৯৮৯ সালে প্রথম এইচআইভি কেস সনাক্ত হলেও তার আগেই সতর্কতা হিসাবে ১৯৮৫ সালে জাতীয় এইডস কমিটি গঠন করা হয়। দেশে ১৯৯৫ সালের দিকে প্রথম এইচআইভি নিয়ে প্রোগ্রাম শুরু হয়। বর্তমানে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ২৩ জেলায় মূলত এইচআইভি সনাক্ত, চিকিৎসা ও সচেতনতা মূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। ৪র্থ অপারেশনাল প্ল্যান ও দ্যা গ্লোবাল ফান্ডে সহায়তায় দেশের বিভিন্ন জেলায় নারী ও পুরুষ যৌনকর্মী, শিরায় মাদকগ্রহণকারী ও হিজড়াদের জন্য এইচআইভি প্রতিরোধ সেবা দেয়া হচ্ছে।


বিবার্তা/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com