রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু না হওয়ায় উদ্বেগ জাতিসংঘ মহাসচিবের
প্রকাশ : ১৩ জুন ২০১৯, ১৪:১৮
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু না হওয়ায় উদ্বেগ জাতিসংঘ মহাসচিবের
নিউইয়র্ক প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেজের সঙ্গে বুধবারর দুপুরে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক করেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।


রোহিঙ্গা ইস্যু ও জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপনসহ বাংলাদেশ এবং জাতিসংঘ সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ অন্যান্য বিষয়াদি নিয়ে এ বৈঠকে আলোচনা হয়।


জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের নিজ ভূমি রাখাইন রাজ্যে প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে মিয়ানমার সরকারের অসহযোগিতা ও রোহিঙ্গা সঙ্কটের ক্ষেত্রে মিয়ানমারের দায়বদ্ধতার ইস্যুটি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে সাম্প্রতিক ওআইসি শীর্ষ সম্মেলনে গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কেও তিনি জাতিসংঘ মহাসচিবকে অবহিত করেন।


এছাড়া বিশ্বব্যাপী জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করার বিষয়ে জাতিসংঘের মহাসচিবের অংশগ্রহণ ও সম্পৃক্ততার অনুরোধ জানান প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।


গুতেরেজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু না হওয়ার কারণে গভীর উদ্বেগও প্রকাশ করেন। তবে বরাবরের মতোই রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশ সরকার ও জনগণের উদারতা ও মানবিক সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।


জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুতে বাংলাদেশের সক্রিয় কার্যক্রমের জন্য সাধুবাদ জানান গুতেরেজ। তিনি বলেন, আসন্ন ক্লাইমেট অ্যাকশন সামিটে বাংলাদেশের সক্রিয় এবং ফলপ্রসূ অংশগ্রহণের দিকে তাকিয়ে আছে জাতিসংঘ। এছাড়া জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে বাংলাদেশ যে অসামান্য অবদান রেখে চলেছে সে জন্য ধন্যবাদ জানান তিনি।


এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক ও জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন।


এদিকে বুধবার সন্ধ্যায় জাতিসংঘের পিস অপারেশন বিভাগের প্রধান আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল জ্যঁ পিয়েরে ল্যাক্রুয়ারের সাথেও একটি দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার।


এ বৈঠকে বাংলাদেশ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে আরো বেশি নারী শান্তিরক্ষী প্রেরণ করার প্রত্যাশার কথা জনান আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল।


এছাড়া মহাসচিবের অ্যাকশন ফর পিসকিপিং এজেন্ডায় বাংলাদেশের সার্বিক সহায়তার বিষয়টি স্মরণ করে তিনি এ এজেন্ডার বাস্তবায়নে ফলপ্রসূ ভূমিকা রাখার বিষয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে অনুরোধ জানান।


পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেলকে জানান, বাংলাদেশ ধারাবাহিকভাবে নারী শান্তিরক্ষী বৃদ্ধি করছে এবং এটি অব্যাহত থাকবে। এছাড়া মহাসচিবের অ্যাকশন ফর পিসকিপিং এজেন্ডায় একটি চ্যাম্পিয়ন কান্ট্রি হিসেবে বাংলাদেশ নিবিড়ভাবে কাজ করবে বলে নিশ্চয়তা দেন তিনি।


জাতিসংঘের পিসকিপিং অপারেশনের উচ্চ পর্যায়ের পদে বাংলাদেশের কর্মকর্তাদের নিয়োগ দেয়ার বিষয়ে আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে আশ্বাস দেন। পাশাপাশি শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে কারিগরী সহায়তা, সর্বাধুনিক সরঞ্জামাদি সরবরাহ ও বিভিন্ন পেশাগত প্রশিক্ষণ প্রদানের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন তিনি।


বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের ডিফেন্স অ্যাডভাইজর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খান ফিরোজ আহমেদ এবং মিনিস্টার ড. মনোয়ার হোসেন এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।


বিবার্তা/শিব্বীর/তাওহীদ/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com