মোরেলগঞ্জে খেজুর রস সংগ্রহে প্রস্তুত গাছিরা
প্রকাশ : ২৪ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৩০
মোরেলগঞ্জে খেজুর রস সংগ্রহে প্রস্তুত গাছিরা
বাগেরহাট প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় খেজুরের রস সংগ্রহের জন্য গাছ প্রস্তুত করছেন গাছিরা। চলছে গাছের কান্ড কাটা ও নলি বসানোর কাজ। বর্তমানে খেজুরগাছের সংখ্যা কমে যাওয়ায় দিন দিন এ ঐতিহ্য হারিয়ে যেতে বসেছে।


সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় জমির আইলে ও রাস্তার পাশে লাগানো খেজুরগাছের মাথার অংশ থেকে ডাল কেটে পরিষ্কার করছেন গাছিরা। হাতে দা, কোমরে রশি বেঁধে গাছিরা কাজ করছেন। এরই মধ্যে কয়েকজন গাছে রস আহরণের জন্য বাঁশের তৈরি নলি বসাতে শুরু করেছেন। ক’দিন পর রস নামাবেন গাছিরা।


জানা গেছে, বর্তমানে খেজুরগাছ প্রস্তুত করা হচ্ছে, এক সপ্তাহ পরে আবার হালকা চেঁছে বাঁশের তৈরি নল লাগানো হবে। পরে সেখান থেকে রস সংগ্রহ করা হয়।


খাউলিয়া ইউনিয়নের পূর্ব-চিপা বারইখালী গ্রামের গাছি শহিদুল ইসলাম বলেন, প্রথমে খেজুরগাছের মাথার অংশকে ভালো করে কেটে পরিষ্কার করা হয়। এরপর পরিষ্কার সাদা অংশ কেটে রস সংগ্রহ করা হয়। অত্যান্ত ঝুঁকি নিয়েই আমরা কোমরে রশি বেঁধে গাছে ঝুলে রস সংগ্রহের কাজ করি।


বারইখালী ইউনিয়নের শেখপাড়া গ্রামের গাছি মজিবর হাওলাদার বলেন, শীত শুরু হয়ে গেছে। এ জন্যে আমরা এখন থেকেই গাছ প্রস্তুত করছি। আগেভাগে চাঁচ দিলে শীতের শুরুতেই রস নেমে যাবে।


উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের কয়েকজন গাছি জানান, শীত এলেই গাছিরা রস সংগ্রহের প্রস্তুতি নেন। গাছের ওপরিভাগের নরম অংশ চাঁচ বা দা দিয়ে কেটে রস নামানো হয়। একবার গাছে চাঁচ দিলে দু-তিন দিন রস পাওয়া যায়। সাধারণত খেজুরগাছ পূর্ব ও পশ্চিম দিকে কাটা হয়, যাতে সূর্যের আলো সরাসরি ওই কাটা অংশে পড়তে পারে।


পৌর সদরের বাসিন্দা মাস্টার মো. মনিরুজ্জামান বলেন, আগের মতো খেজুরগাছ এখন আর দেখা যায় না। চাষিরা এখন আর জমিতে আলাদা করে খেজুর গাছের চাষ করেন না। শুধু রাস্তার পাশে কিংবা জমির আইলে কম-বেশি খেজুরগাছ দেখা যায়। গাছের সংখ্যা কমে যাওয়ায় এ ঐতিহ্য অনেকটায় হারিয়ে যেতে বসেছে।


বিবার্তা/রাজু/জেএইচ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com