প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি লেখা জুনাইদকে ব্যাগ উপহার দিলেন ইউএনও
প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:২৩
প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি লেখা জুনাইদকে ব্যাগ উপহার দিলেন ইউএনও
দুর্গাপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার শিশু জুনাইদ সিদ্দিকের লিখা প্রধানমন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে তাকে নতুন ব্যাগ, ছাতা, শিক্ষা সামগ্রী উপহার দিয়েছেন ইউএনও সোহেল রানা।


প্রত্যন্ত তেবিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ম শ্রেণির ছাত্র মো. জুনাইদ সিদ্দিক উপবৃত্তির জন্য মনোনীত ছিল। তার বাবা জুনাইদকে কথা দিয়েছিলো উপবৃত্তির টাকা দিয়ে তাকে নতুন ব্যাগ ও ছাতা কিনে দিবে। কিন্তু বাকিরা টাকা পেলেও সে জানতে পারে তার টাকা কেউ তুলে নিয়েছে। নিজের আবেগঘন দুঃখের কথা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর লিখেন যে “ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন, জনাব,
আমি মো. জুনাইদ সিদ্দিক তেবিলা সাঃ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১ম শ্রেণীর একজন ছাত্র। পর সমাহার এই যে, আমার উপবৃত্তির টাকা এখন পর্যন্ত পাইনি। বাবা বলেছিলো উপবৃত্তির টাকা পেলে স্কুল ব্যাগ ও নতুন ছাতা কিনে দিবে। কিন্তু তা আর হলো না। স্যারদের মাধ্যমে জানতে পারলাম টাকা কেউ তুলে নিয়েছে। প্রতিদিন আমাকে ছেড়া স্কুল ব্যাগ আর ভাঙ্গা ছাতা নিয়ে স্কুলে যেতে হয়। তাতে আমার আপত্তি নেই। এরপরে যেন এমন না হয় এটাই দাবী।
বিনীত,
জুনাইদ সিদ্দিকী ”


তার লেখা এই চিঠিটির ছবি সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে। নানান আলোচনা, সমালোচনার জন্ম দেয়। কেউ কউ তাকে সহযোগিতা করার জন্য যোগাযোগের মাধ্যমে অনুসন্ধান করতে থাকে। তারই সুত্র ধরে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ফলাও করে সংবাদ প্রকাশিত হয়। ২৪ সেপ্টেম্বর বাচ্চাটির অভিভাবকদের সাথে যোগাযোগ করেন দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহেল রানা। মিনা দিবসে নিজ উদ্যোগে ছোট শিশুটির হাতে নতুন স্কুল ব্যাগ, ছাতা, খাতা, কলম উপহার দেন। এসময় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম ও বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন। নতুন উপহার পেয়ে জুনাইদের চোখে মুখে ছিলো খুশীর প্রতিচ্ছবি। পড়ালেখা করে নিজেকে মানুষের মতো মানুষ করতে চায় ছোট্ট জুনাইদ।


এবিষয়ে ইউএনও সোহেল রানা জানান, তেবিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্রের আবেগঘন পত্রটি ফেসবুকে আসার পর তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।


শিশুটির ইচ্ছে পূরণে শিক্ষার সহায়ক সামগ্রী স্কুল ব্যাগ, ছাতা, খাতা, কলম, পেন্সিল বক্স উপহার দেওয়া হয়েছে। আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ, তাদের সকল সময় উৎসাহিত করতে হবে। তবেই আমরা জাতির জনকের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করতে পারবো। শিশুটির উপবৃত্তির টাকা প্রদানের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ করা হয়েছে। ভবিষ্যতে আর কেউ এরকম বিড়ম্বনায় না পড়েন তার জন্য সকলকে সজাগ থাকাতে হবে। সবাই একাউন্ট খুলতে নিজের মোবাইল নাম্বার ব্যবহারসহ অনলাইন আদান প্রদানের সময় সতর্কতা অবলম্বন করুন।


বিবার্তা/গোলাম কিবরিয়া/জেএইচ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com