বরিশালের আড়ত ইলিশে সয়লাব
প্রকাশ : ০১ নভেম্বর ২০১৯, ২১:০৬
বরিশালের আড়ত ইলিশে সয়লাব
এমডি জসিম উদ্দিন
প্রিন্ট অ-অ+

মা ইলিশ রেক্ষায় ২২ দিন নিষেধাজ্ঞার পর বরিশালের পোর্ট রোড মৎস কেন্দ্রে প্রচুর ইলিশের আমদানি শুরু হয়েছে।গত দুইদিনে সাড়ে ৫ হাজার মণেরও বেশি ইলিশ এসেছে এই মৎস আড়তে।


ইলিশের সরবরাহ বেড়ে যাওয়ায় ক্রেতা-বিক্রেতাদের আনাগোনায় মুখরিত পোর্ট রোড।প্রচুর সরবরাহ থাকায় দামও হাতের নাগালে রয়েছে।অন্যান্য সময়ের তুলনায় ১০০ থেকে ২০০ টাকা কমে ইলিশ কিনতে পেরে খুশী তারা।


মৎস আড়ত ঘুরে জানা গেছে, ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে স্থানীয় নদ-নদীতে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে। জেলেরা গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এই ইলিশ বরিশালের মোকামে নিয়ে আসতে শুরু করেছে।এখানে কেজির উর্ধ্বে প্রতি মণ ৩৮ হাজার টাকা, কেজি সাইজের প্রতিমণ ৩০ হাজার, ৬০০ থেকে ৯০০ গ্রাম ২৫ হাজার এবং ৫০০ গ্রাম সাইজের প্রতিমণ ইলিশ বিক্রি হয়েছে ১৬ হাজার টাকা দরে।


পোর্ট রোডের ইলিশ ক্রেতা জাকির হোসেন জানান, বাজারে প্রচুর ইলিশ আছে।অন্যান্য সময়ের তুলনায় দর অনেক কম। যার কারণে পরিমাণে কিছু বেশি ইলিশ কিনে নিয়েছি।


বরিশালের মৎস আড়তদার হুমায়ুন জানান, নিষেধাজ্ঞার পর সরবরাহ বেশি থাকায় বছরের সর্বনিম্ন দামে বিক্রি হচ্ছে ইলিশ। তবে গত বৃহস্পতিবারের চেয়ে শুক্রবার (১ নভেম্বর) প্রতি কেজি ইলিশের দাম বেড়েছে ৫০ থেকে ১০০ টাকা।


বরিশাল জেলা মৎস্য আড়তদার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নিরব হোসেন টুটুল জানান, মাত্র দুইদিন হলো নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়েছে। বর্তমানে স্থানীয় নদীর ইলিশ আসা শুরু হয়েছে। তবে গভীর সমূদ্রে মাছ শিকারে যাওয়া জেলেরা ফিরে আসলে ইলিশের সরবরাহ আরো বাড়বে। তখন বাজার দর ওঠা-নামা করতে পারে।


বরিশাল জেলা মৎস্য দফতরের কর্মকর্তা (ইলিশ) ড. বিমল চন্দ্র দাস বলেন, মৎস্য বিভাগের নিষেধাজ্ঞা কারণে অনেক মা ইলিশ ডিম ছেড়েছে। তবে এই সময়ে ইলিশ ধরা না হলে সমূদ্রে চলে যাবে। অভ্যন্তরীণ নদ-নদীতে প্রচুর ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে। ইলিশ আহরণে সরকারের লক্ষমাত্রা অর্জন হবে।


বিবার্তা/জসিম উদ্দিন/জাই


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com