ভোলায় কোথাও মিলছে না পেঁয়াজ
প্রকাশ : ১০ অক্টোবর ২০১৯, ২২:৫০
ভোলায় কোথাও মিলছে না পেঁয়াজ
ভোলা প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ভোলায় তিন দিন ধরে পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছেন আড়ৎদাররা। ফলে শহরের কাঁচাবাজারসহ দোকানগুলোতে পেঁয়াজ নেই। যে কারণে পেঁয়াজ কিনতে আসা ক্রেতারা ফিরছেন খালি হাতে।


এদিকে সাধারণ ক্রেতাদের অভিযোগ, বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি না করতে পেরে আড়ৎদার ও খুচরা ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছেন।


অন্যদিকে আড়ৎদাররা বলছেন, মোকামে পেঁয়াজের দাম অনেক বেশি। কিন্তু আমরা বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করলে প্রশাসনের বাধা আছে। তাই মোকাম থেকে পেঁয়াজ ক্রয় করা বন্ধ করে দিয়েছি।


বুহস্পতিবার ভোলা শহরের কাঁচাবাজার গিয়ে ক্রেতা ও বিক্রেতাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, গত রবিবার (৬ অক্টোবর) শহরের কাঁচাবাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে সাড়ে ৩ হাজার কেজি পেঁয়াজ জব্দ করে হয়। অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রি করায় ওই সময় কয়েকজন ব্যবসায়ীকে জরিমানা করা হয়। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শহরের কাঁচাবাজারের আড়ৎদার ও খুচরা ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ ক্রয়-বিক্রয় বন্ধ করে দিয়েছেন। ফলে ৩দিন ধরে ভোলা শহরের কাঁচাবাজারসহ বিভিন্ন হাট-বাজার ও দোকানগুলো পেঁয়াজ নেই। এতে পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে সাধারণ ক্রেতারা ফিরছেন খালি হাতে।


সাধারণ ক্রেতা মো. আজাদ ও আমজাদ হোসেন জানান, ভোলা শহরের বিভিন্ন দোকানে ৩দিন ধরে কোনো পেঁয়াজ নেই। এমনকি কাঁচাবাজারেও পেঁয়াজের দেখা নেই। দোকানে পেঁয়াজ কিনতে গেলে তারা আমাদের বলে ডিসি অফিসে গিয়ে পেঁয়াজ কিনতে। আমরা এর কারণ জিজ্ঞাস করলে তারা আমাদের বলে বেশি দামে পেঁয়াজ কিনে কি কম দামে বিক্রি করবো নাকি?


শহরের কাঁচাবাজারের খুচরা বিক্রেতা মো. নুরু উদ্দিন জানান, আড়ৎতে কোনো পেঁয়াজ নেই। আমরা পেঁয়াজ কিনতে পারি না। এজন্য ক্রেতাদের কাছে পেঁয়াজ বিক্রি করতে পারি না।


ভোলা কাঁচাবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও পেঁয়াজের আড়ৎদার মো. রফিকুল মিঞা বলেন, বরিশালের মোকামে পেঁয়াজের দাম ৭০-৭৫ টাকা। এ দামে কিনে খরচ গিয়ে ভোলার বাজারে আরো ৫-১০ টাকা বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করতে হবে। কিন্তু বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করলে প্রশাসন জেল-জরিমানা করে। লোকসান দিয়ে পেঁয়াজ বিক্রি করার চেয়ে না করাই ভালো। এজন্য আমরা পেঁয়াজ বিক্রি আপাতত বন্ধ করে দিয়েছি। তবে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা চলছে।


ভোলা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক জানান, ভোলার পাইকারি পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তাদের দাবি মোকামে পেঁয়াজের দাম বেশি। তবে আমরা বলেছি মোকামের পেঁয়াজ ক্রয় করার সঠিক চালান বা ক্রয়ে রসিদ দেখাতে হবে। সেটি যাচাই-বাছাই করা হবে। এরপর ক্রয় করা দামের চেয়ে ৫ টাকা বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করার জন্য আমরা নির্দেশ দেব।


বিবার্তা/শাহীন/জাই


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com