মূর্তি নাকি কাঁদে, তাও চোখ থেকে ঝরে রক্ত!
প্রকাশ : ১৮ মে ২০২২, ০৮:২১
মূর্তি নাকি কাঁদে, তাও চোখ থেকে ঝরে রক্ত!
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

আর্জেন্টিনার উত্তর-পশ্চিমে মেটান শহরের ফ্রিয়াস পরিবারের বাড়িতে রয়েছে আশ্চর্য এক মূর্তি। সাধারণত মূর্তির চোখ থেকে কখনো চোখের পানি বের হয় না। অথচ ভার্জিন অব দ্য মিস্টিক রোজ নামে এক আশ্চর্য মূর্তির চোখ থেকে প্রায়ই ঝরতে দেখা যায় অশ্রুবিন্দু। তবে তা সাধারণ অশ্রুবিন্দু নয়, কান্নার সময় মূর্তির চোখ থেকে রীতিমতো বের হচ্ছে রক্তের স্রোতধারা। প্রতিদিন এই রহস্যময় মূর্তিটি দেখতে মানুষের ভিড় উপচে পড়ে ফ্রিয়াস পরিবারে।


সর্বপ্রথম ২০১৭ সালে এই বিশেষত্বের কারণে মূর্তিটি আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসে। খবরের শিরোনামও হয় অনেকবার। এই রহস্যময় মূর্তিটির মালিক ফ্রিয়াস পরিবারের প্রধান রোসানা মেন্ডোজা ফ্রিয়াস। তিনি যখন এই অদ্ভূত ঘটনাটি দেখেন তখন তিনি তা ভিডিও করতে শুরু করেন। নেটদুনিয়ায় শেয়ার করার পর খুব দ্রুতই ভিডিওটি দেশ-দেশান্তরে ভাইরাল হতে শুরু করে।


ফ্রিয়াস পরিবারের রহস্যময় মূর্তিকে ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে প্রথম রক্ত কান্না করতে দেখা যায়। এরপর থেকে প্রায়ই এই মূর্তিকে কাঁদতে দেখা গেছে। রোসানার দাবি, তার মায়ের শারীরিক সুস্থতা কামনা করে ওই মূর্তির কাছে প্রার্থনা করার পর মূর্তিকে কাঁদতে দেখা গিয়েছিল। রক্ত কান্নার কারণ স্পষ্ট না হওয়ায় অনেকেই মনে করেন মানুষকে চমক দিতে এই মূর্তিকে বিশেষভাবে বানানো হয়েছে।


দর্শনার্থীদের ভাষ্য, এই মূর্তির রয়েছে অলৌকিক ক্ষমতাও। একবার এই মূর্তি দেখতে আসেন এক নারী, যার শরীরে ছিল তিন ইঞ্চি সমান টিউমার। কিন্তু এই মূর্তি দর্শন করার সঙ্গে সঙ্গেই সেই নারীর দৃশ্যমান টিউমার অদৃশ্য হয়ে যায়। বিস্ম্যকর এই পুরো ঘটনা প্রত্যক্ষ করার পর দর্শনার্থীদের মাঝে এই মূর্তিটি নিয়ে আরও আগ্রহ বেড়ে যায়। তাই মূর্তির মালিক রোসানা মানুষের দর্শনের সুবিধার্থে সবসময়ই বাড়ির দরজা খোলা রাখেন।


সূত্র: ডেইলি মেইল, দ্য সান, মিরর


বিবার্তা/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com