‘এমবাপেকে আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো’
প্রকাশ : ০৪ জুলাই ২০১৮, ১৭:৩৫
‘এমবাপেকে আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো’
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

বিশ্বকাপের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে শুক্রবার ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে উরুগুয়ে। এই ম্যাচকে সামনে রেখে ফ্রান্সের তরুন সেনসেশন কাইলিয়ান এমবাপেকে রুখে দেবার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী মনোভাব দেখিয়েছেন উরুগুয়ের তারকা লুইস সুয়ারেজ।


নিজনি নোভগ্রাদে দক্ষিণ আমেরিকান দলটির অনুশীলন ক্যাম্পে গণমাধ্যমের সামনে সুযারেজ বলেছেন ফ্রান্সকে আটকানোর জন্য দলের রক্ষনভাগের ওপর তার আস্থা আছে। এ পর্যন্ত টুর্নামেন্টে মাত্র একটি গোল হজম করেছে উরুগুয়ে।
বার্সেলোনার এই স্ট্রাইকার বলেন, ‘সবাই জানে এমবাপে একজন ভাল খেলোয়াড়। কিন্তু আমি মনে করি তাকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য আমাদের দুর্দান্ত একটি রক্ষণভাগ আছে।’


আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ফ্রান্সের শেষ ১৬’র উত্তেজনাকর লড়াইয়ে ১৯ বছর বয়সী এমবাপে ছিলেন জয়ের নায়ক। এই ম্যাচে দুই গোল করেন প্যারিস সেইন্ট-জার্মেইর এই তরুণ তুর্কি। তার গতি ও দক্ষতার কারণে আদায় করা পেনাল্টি থেকে ফ্রান্স ম্যাচে প্রথমে এগিয়ে গিয়েছিল।


যদিও সুয়ারেজ বলেছেন শুধুমাত্র এমবাপে না ফ্রান্সের পক্ষ থেকে তাদের জন্য আরো হুমকি অপেক্ষা করছে। বিশেষ করে এন্টোনিও গ্রিজম্যানের বিষয়ে সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।


উরুগুয়ের অভিজ্ঞ কোচ ওস্কার তাবারেজও এই দুই খেলোয়াড়ের ব্যপারে পুরো দলকে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন। যদিও উরুগুয়ের বিপক্ষে ফ্রান্স একইভাবে আক্রমণের সুযোগ পাবে না বলেও তাবারেজ জানিয়ে দিয়েছেন।


সম্প্রতি গ্রিজম্যান দাবী করেছেন ফ্রান্সের জাতীয় দলের জার্সি গায়ে খেললেও তিনি মনে প্রাণে অর্ধেক উরুগুইয়ান। এর পিছনে তিনি এ্যাথলেটিকো মাদ্রিদে দীর্ঘদিন দিয়েগো গোডিন, হোসে গিমেনেজের সাথে খেলার অভিজ্ঞতাকে সামনে এনেছেন।


যদিও সুয়ারেজ বলেছেন, ‘এন্টোনিও যতই এই কথা বলুক না কেন উরুগুয়ে প্লেয়ারদের অনুভূতি সম্পর্কে তার কোন ধারণা নেই। ফুটবলে সাফল্য পাবার জন্য যে ধরনের চেষ্টা ও প্রতিশ্রুতি উরুগুয়ের খেলোয়াড়দের মধ্যে আছে তা তার পক্ষে অনুভব করা সম্ভব নয়।’


বিবার্তা/শারমিন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com