সরকার হটাতে একদফা আন্দোলনে যাচ্ছে বিএনপি
প্রকাশ : ১৪ মে ২০২২, ১৭:৪০
সরকার হটাতে একদফা আন্দোলনে যাচ্ছে বিএনপি
কিরণ শেখ
প্রিন্ট অ-অ+

সরকার হটাতে একদফার আন্দোলনের চিন্তা করছে বিএনপির হাইকমান্ড। আন্দোলনটি ধাপে ধাপে করবে দলটি। মূলত নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে রাজপথে আন্দোলনে নামবে তারা। এজন্য দল, দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনগুলো পুনর্গঠনে মনযোগ দিয়েছে বিএনপি। তবে রাজপথের আন্দোলনের জন্য সুনির্দিষ্ট করে দিন-তারিখ এখনো ঠিক করেনি দলটি।


তারা বলছে, বিএনপি আন্দোলনেই মধ্যে আছে। দলের নেতারা কোর্টে যায় এবং আলোচনা করে- এ সবই আন্দোলনের অংশ। এই আন্দোলনগুলোকে একসঙ্গে করে খুব শিগগির বড় আন্দোলনের দিকে যাবে বিএনপি।


সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছে। কিন্তু আন্দোলনে যাওয়ার আগে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার শর্তে বেশ কিছু দফা তুলে ধরা হবে। এ সংক্রান্ত রূপরেখার খসড়া তৈরি করছেন দলের নীতিনির্ধারকরা।


এবিষয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপির প্রত্যেকটি প্রোগ্রাম আন্দোলনের প্রোগ্রাম। এই যে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কর্মসূচি-এটাও আন্দোনের প্রোগ্রাম। শহিদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের যে শাহাদাত বার্ষিকী পালন করবো- এটাও আন্দোলনের প্রোগ্রাম। আর আপনারা যেটা দেখতে চান সেটা খুব শিগগিরই দেখতে পারবেন।


বিএনপির একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছ, দলটি বলছে- বর্তমান সরকার দেশের সমস্যার সমাধান করতে পারবে না। এজন্য বিএনপিকেই রাজপথে কঠোর আন্দোলন করতে হবে। আর বর্তমান ক্ষমতাসীনরা পদত্যাগ করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর না করা পর্যন্ত এ আন্দোলন চলবে।


আন্দোলেনের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বিবার্তাকে বলেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং এবং জনগণের অধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার আন্দোলনে আমরা এখনো আছি। আর এই আন্দোলন চলমান রয়েছে।


এবিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আমরা তো আন্দোলনে আছি। আন্দোলনের গতি হয়তো পরিবেশ পরিস্থিতি বিবেচনায় বাড়বে বা কমবে। এটাই আন্দোলনের কৌশল।


এদিকে একদফা দাবিতে রাজপথে আন্দোলনে নামার জন্য বৃহত্তর জোট করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। তাদের এই আন্দোলনের মূল দাবি হবে নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠিত করে সেই সরকারের অধিনেই ভোটের মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করা।


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বিবার্তাকে বলেন, জনগণের দাবি প্রতিষ্ঠিত করার জন্য বৃহত্তর জোট গঠনের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করছে বিএনপি। একদফা দাবিতে রাজপথে আন্দোলনে নামতেই এই সিদ্ধান্ত। এজন্য ইতোমধ্যে সরকার বিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতাদের সাথে একাধিকবার বৈঠকও করেছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দগণ। এই কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। আর যেকোন সময় বৃহত্তর ঐক্য ঘোষণা করা হবে।


এবিষয়ে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আমরা এখন ঐক্যের জন্য সংগ্রাম করছি। এরপরে একটি লক্ষ্য আদায়ের জন্য ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন হবে। জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠা আর বেশি দূরে নয়। যেকোনো সময় সেটা জাতির সামনে উপস্থাপন করা হবে।


জানতে চাইলে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বিবার্তাকে বলেন, বৃহত্তর ঐক্য নিয়ে কাজ চলছে। আর এ প্রক্রিয়া এগিয়ে চলছে। এটা নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে অনানুষ্ঠানিক কথাও হচ্ছে। তারাও যুগপৎ আন্দোলনের কথা বলছে।


বিবার্তা/কিরণ/রোমেল/এসএফ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com