জিপি অ্যাকসেলেরেটরের চার স্টার্টআপ গ্র্যাজুয়েটেড
প্রকাশ : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৫১
জিপি অ্যাকসেলেরেটরের চার স্টার্টআপ গ্র্যাজুয়েটেড
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

গ্র্যাজুয়েট হলো জিপি অ্যাকসেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচের চার স্টার্টআপ। এগুলো হলো- সার্চ ইংলিশ, পার্কিং কই, সিওয়ার্ক ও অনুকিট।


স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীদের উপস্থিতিতে জিপি অ্যাকসেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচ সোমবার জিপি হাউজে নিজেদের ধারণার উপস্থাপন করেছে।


যাত্রার শুরুতে ২৬টি স্টার্টআপ নিয়ে এ কর্মসূচি যাত্রা শুরু করেছিলো, এর মধ্য থেকে ২০টি স্টার্টআপ সফলভাবে গ্রাজুয়েট হয়েছে। জিপি অ্যাকসেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচের জন্য এক হাজারের বেশি আবেদন জমা পড়ে। সেখান থেকে কঠোর নির্বাচন প্রক্রিয়ায় সেরা পাঁচটি স্টার্টআপ নির্বাচিত হয়।


এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। মন্ত্রী দেশের তরুণ সমাজের জন্য প্রযুক্তি ‌ব্যবহার করে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান তৈরি করতে এমন একটি প্ল্যাটফর্ম সৃষ্টি করার জন্য গ্রামীণফোনকে অভিনন্দন জানান।


মন্ত্রী বলেন, এই উদ্যোগ বাংলাদেশ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্পকে সমর্থন দেয় এবং আমি জিপি এক্সেলেরেটরে অংশগ্রহণকারীদের কাছ থেকে জানতে পেরেছি যে তারা চলতি পথে পার্কিংয়ের স্থান খুঁজে বের করার সমস্যা সমাধানে কাজ করছে, যা আমাকে আনন্দিত করেছে।


গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বলেন, এই প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশে একটি শক্তিশালী স্টার্টআপ ইকো সিস্টেম গড়ে তুলেছে এবং দ্রুত দেশের সবচেয়ে আকর্ষণীয় মেন্টরশিপ কর্মসূচিতে পরিণত হয়েছে। গত কয়েক বছরে তথ্যপ্রযুক্তিখাতে এবং স্টার্টআপের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অভুতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছে। আমাদের বেশ কয়েকটি স্টার্টআপ বৈশ্বিকভাবে নিজেদের বিস্তৃতি ঘটিয়েছে এবং এর মধ্যে কয়েকটি স্টার্টআপ উল্লেখযোগ্য পরিমাণ বিদেশি বিনিয়োগ নিয়ে এসেছে। যেসব স্টার্টআপ বাংলাদেশকে উদ্ভাবনের সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে এসেছে তাদের অনেকগুলোই জিপি অ্যাকসেলেরেটর কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী।


চার মাসের এ কর্মসূচিতে দলগুলো দেশ ও দেশের বাইরের প্রশিক্ষক ও শিল্পখাত বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে টার্ম শিট, ভ্যালুয়েশন, ফাইন্যান্সিয়াল মডেলিং ও ব্র্যান্ডিংয়ের মতো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় প্রশিক্ষণের সুযোগ লাভ করে। এর বাইরেও, প্ল্যাটফর্মটি স্টার্টআপগুলোকে ব্যবসার অগ্রগতিতে সম্ভাব্য ব্যবসায়ীদের সাথে যোগাযোগে সহায়তা প্রদান করে।


চার মাসের মেন্টরশিপ কর্মসূচি ও কেপিআই সেশনের পর চারটি স্টার্টআপ সফলভাবে পঞ্চম ব্যাচের কর্মসূচিতে গ্র্যাজুয়েট হয়। এ স্টার্টআপগুলো দেশের সমস্যা নিয়ে কাজ করছে। এসব স্টার্টআপের মধ্যে কয়েকটির সম্ভাবনা রয়েছে বিশ্বব্যাপী সম্প্রসারণের।


আলাদা ও বৈচিত্র্যময় ডোমেইন ও শিল্পখাতে নিজেদের প্রবৃদ্ধি এবং সাধারণ মানুষ তাদের প্রাত্যহিক জীবনে যেসব সমস্যার মুখোমুখি হয় তার সমাধানে এ চারটি স্টার্টআপ কার্যকরীভাবে এগিয়েছে। সংক্ষেপে স্টার্টআপগুলো-


সার্চ ইংলিশ


ভয় ও লজ্জা কাটিয়ে উঠে সাধারণ মানুষ যেনো তাদের ইংরেজি দক্ষতা বাড়াতে পারে এরই প্ল্যাটফর্ম হচ্ছে ‘সার্চ ইংলিশ’। ‘জীবন পরিবর্তনে ইংরেজি শিক্ষা’ প্রতিপাদ্য নিয়ে এ প্ল্যাটফর্ম ১৫ লাখের বেশি মানুষকে অনলাইনে ইংরেজি শেখার উন্নয়নে সহায়তা করছে। এক বছরের সময়ের মধ্যে ‘সার্চ ইংলিশ’'র এক হাজারের বেশি সফলগাঁথা রয়েছে।


পার্কিং কই


পার্কিং কই এর ‘পার্কিং কই’ অ্যাপের মাধ্যমে চালকদের সহায়তা করছে কাছাকাছি পার্কিংয়ের জায়গা খুঁজে পাওয়ার ব্যাপারে। একইসাথে, এটা মালিকদের জন্য যাদের পার্কিংয়ের জায়গা এখনও খালি পড়ে আছে তাদের কাছে বিকল্প আয়ের উৎস তৈরি করবে।


সিওয়ার্ক


‘সিওয়ার্ক’ মাইক্রো জব প্ল্যাটফর্ম যেখানে নিয়োগদাতারা সহজেই যেকোনো বড় কাজের সমাধান করিয়ে নিতে পারেন। ‘সিওয়ার্ক’ কাজগুলোকে ছোট ছোট ভাগে বিভক্ত করে নির্বাচিত ডিস্ট্রিবিউটর পুলের মধ্যে দিয়ে দেয়। এখানের সহস্রাধিক ভেরিফায়েড কট্রিবিউটর তাদের কাজ শেষ করে অনলাইনেই কাজটি সাবমিট করে। ‘সিওয়ার্ক’ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) ব্যবহার করে কাজের মান যাচাই করে এবং নিয়োগদাতাদের কাছে সম্পন্ন কাজটি জমা দিয়ে দেয়।


অনুকিট


জিপি অ্যাকসেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচের অন্যতম অভিনব স্টার্টআপ হচ্ছে ‘অনুকিট’। অনুকিট অ্যাপ এসএমইগুলোকে তাদের দৈনন্দিন যোগাযোগকে কার্যকরী উপায়ে করার ব্যাপারে সহায়তা করবে। শুধুমাত্র অনুকিট অ্যাপ ব্যবহার করার মাধ্যমে ব্যবসার মালিকরা তাদের ব্যবসার পারফরমেন্সের হিসেব রাখতে পারবে।


বিবার্তা/উজ্জ্বল/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com