বিএনপি বহিষ্কার করলেও এমপিদের পদ যাবে না: আইনমন্ত্রী
প্রকাশ : ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৫:৪৮
বিএনপি বহিষ্কার করলেও এমপিদের পদ যাবে না: আইনমন্ত্রী
ফাইল ছবি
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, বিএনপির নির্বাচিত প্রতিনিধিদের মধ্যে যারা সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেবেন দল থেকে বহিষ্কার করলেও তাদের এমপি পদ যাবে না। তবে কেউ যদি দলের বিপক্ষে জাতীয় সংসদে ভোট দেন বা দল থেকে যদি তারা পদত্যাগ করেন, তা হলে তাদের সংসদ সদস্যপদ বাতিল হবে।


শুক্রবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া কসবার চারগাছ এনআই ভূঁইয়া ডিগ্রি কলেজে একাডেমিক ভবন উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।


৩০ ডিসেম্বর একাদশ সংসদ নির্বাচনে ব্যাপক ভরাডুবির মধ্যেও বিএনপির ছয়জন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে বলে বিএনপির পক্ষ থেকে বারবার দাবি করা হয়। এজন্য বিএনপির যে ছয়জন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তারা শপথ নেবেন না বলে দলটির পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়।


দলটির এমন সিদ্ধান্তের মধ্যেই (২৫ এপ্রিল) বৃহস্পতিবার সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেন ঠাকুরগাঁও-৩ আসন (পীরগঞ্জ-রানীশংকৈল) থেকে ধানের শীষের প্রতীকে নির্বাচিত হওয়া জাহিদুর রহমান। এছাড়া দলটির আরো চারজন সংসদ সদস্যর শপথ নিতে চান বলে গুঞ্জন উঠেছে।


দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে কেউ শপথ নিলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।


বিএনপি থেকে যারা শপথ নেবেন দল তাদের বহিষ্কার করলে এমপি পদের কি হবে আইনমন্ত্রীর কাছে জানতে চান সাংবাদিকরা। জবাবে আনিসুল হক বলেন, বিএনপি থেকে যারা সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিচ্ছেন তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হলেও কোনো প্রভাব পড়বে না। তাদের এমপি পদ টিকে যাবে।


সংবিধানের ব্যাখ্যা দিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, সংবিধানে বলা আছে- কেউ যদি দলের বিপক্ষে জাতীয় সংসদে ভোট দেন বা দল থেকে যদি তারা পদত্যাগ করেন, তা হলে তাদের সংসদ সদস্যপদ বাতিল হবে। দল বহিষ্কার করলে তাদের সদস্যপদ বাতিল হবে না।


সরকারের এজেন্সির চাপে বিএনপির নির্বাচিত সংসদ সদস্য জাহিদুর রহমান শপথ নিয়েছেন বলে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মন্তব্যের জবাবে আনিসুল হক বলেন, বিএনপির মহাসচিব জনগণকে এমনকি তার দলের লোকজনকেও সম্মান করতে জানেন না। জনগণের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে দলটির একজন নির্বাচিত সংসদ সদস্য শপথ নিয়েছেন। এতে সরকারের ছায়া খুঁজছে বিএনপি। তারা সবকিছুতেই সরকারের ছায়া খোঁজে।


মন্ত্রী বলেন, মাদক ও জঙ্গিবাদ থাকলে আমাদের সমাজ নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারবে না। আজকে সারা বিশ্বে জঙ্গিবাদের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কায় গুলি-বোমা বিস্ফোরণের মতো জঙ্গিবাদ আমরা বন্ধ করতে চাই। আমাদের দেশে এমনটি যেন না হয় সেটা আমরা চাই।


এসময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন কসবা উপজেলা চেয়ারম্যান রাশেদুল কাওসার ভূঁইয়া জীবন, কসবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসিনা আক্তার, কসবার পৌর মেয়র এমরান উদ্দিন জুয়েল, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এমজি হাক্কানী প্রমুখ।


বিবার্তা/মহিন/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com