‘জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধিতে অর্থনীতির ওপর ভয়াবহ প্রভাব পড়বে’
প্রকাশ : ০৬ আগস্ট ২০২২, ১৬:১২
‘জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধিতে অর্থনীতির ওপর ভয়াবহ প্রভাব পড়বে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি দেশের অর্থনীতির ওপরে ভয়াবহ প্রভাব পড়বে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।


শনিবার (৬ আগস্ট) রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ছাত্রদলের উদ্যোগে এক সমাবেশে এ মন্তব্য করেন তিনি।


'ভোলা জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলম হত্যার প্রতিবাদে' এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।


তিনি বলেন, সরকার ভয়াবহ দুর্নীতির মধ্যে দিয়ে দেশের অর্থনীতি ধ্বংস করে দিচ্ছে। এর আরেকটি প্রমাণ হচ্ছে, হঠাৎ করে মধ্য রাতে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি।


জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কথা উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমান সরকার শুধু বিএনপির ওপরে আক্রমণ করছে না। এই সরকার বেআইনিভাবে ক্ষমতায টিকে থাকতে যে দুর্নীতি শুরু করেছে, সেই দুর্নীতির মধ্যে দিয়ে দেশের অর্থনীতি তারা ধ্বংস করে দিচ্ছে। এর আরেকটি প্রমাণ হচ্ছে, শুক্রবার মধ্যরাতে হঠাৎ করে জ্বালানি তেলের দাম ৫০ ভাগেরও বেশি বাড়িয়ে দিয়েছে।


জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে রাস্তায় যানবাহন কমে গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যে ডিজেলের দাম ছিল ৮০ টাকা, তার দাম ১১৪ টাকা করেছে। আর অকটেনের দাম ছিল ৮৮ টাকা, তার দাম ১৩৫ করেছে! যার ফলে আজ রাস্তায় যানবাহন কমে গেছে। এর ভয়ঙ্কর প্রভাব পড়বে সারাদেশের অর্থনীতির ওপরে এবং দেশের সব মানুষকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।


জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির ফলে পরিবহন ভাড়া, চাল, ডাল ও তেলের দাম আবার দ্বিগুণ থেকে তিনগুণ হয়ে যাবে মন্তব্য করে ফখরুল বলেন, মাঝখান থেকে আমাদের সাধারণ মানুষ, যারা দিন আনে দিন খান, তারা ক্ষতিগ্রস্ত হবে।


সরকার এতদিন মিথ্যাচার করেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, রিজার্ভ কমে যাওয়ার কারণে সরকার আইএমএফ, ওয়ার্ল্ড ব্যাংক ও এডিবির কাছ থেকে ডলার ঋণ নিচ্ছে। আইএমএফের ঋণের শর্ত খুব শক্ত। তারা বলেছে, যেসব পণ্যে ভর্তুকি দিচ্ছ, সেসব বন্ধ করো। সেজন্য জ্বালানির দাম বাড়ানো হয়েছে।


কাঁচা মরিচের দাম প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজ সকালে দেখলাম কাঁচা মরিচের দাম তিনশ টাকা। মানুষ এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে। তাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে।


ভয়ভীতি, হত্যা ও নির্যাতনের মধ্যে দিয়ে এই সরকার টিকে আছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, আজকে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় টিকে আছে শুধুমাত্র হত্যা, খুন, গুম এবং মিথ্যা মামলা দিয়ে। সরকান গত ১৫ বছরে আমাদের ছয় শতাধিক নেতাকর্মীকে গুম করেছে। আর সহস্রাধিক নেতাকর্মীকে হত্যা করেছে এবং ৩৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। কিন্তু আজকে আবদুর রহিম ও নূরে আলমের রক্তদান আমাদের গণতান্ত্রিক লড়াইকে আরও শক্তিশালী করবে।


ছাত্রদল সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েলের পরিচালনায় সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমান, দক্ষিণের আবদুস সালাম, বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী, ড. আসাদুজ্জামান রিপন, শামসুজ্জামান দুদু, ফজলুল হক মিলন, খায়রুল কবির খোকন, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


বিবার্তা/কিরণ/এমবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com