সালথায় মাহবুবউল আলম হানিফ
‘রাষ্ট্রের শক্তির বিরুদ্ধে কোনো অপশক্তিই টিকতে পারে না’
প্রকাশ : ০৮ এপ্রিল ২০২১, ১৭:১৫
‘রাষ্ট্রের শক্তির বিরুদ্ধে কোনো অপশক্তিই টিকতে পারে না’
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, যারা রাষ্ট্রের সম্পত্তি নষ্ট করেছে, জ্বালাও পোড়াও করেছে, প্রত্যেককে খুঁজে খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে। একজনও রেহাই পাবেন না, যারা এই ঘটনায় জড়িত এবং যারা এই ঘটনায় পেছনে বসে কলকাঠি নেড়েছে, সে যে দলের নেতা হোক, ধর্মীয় নেতা হোক, কেউ রেহাই পাবেন না। যারা এই ঘটনার সাথে জড়িত তারা সন্ত্রাসী। তাদের প্রত্যেককে আইনের আওতায় এনে বুঝিয়ে দেয়া হবে রাষ্ট্রের শক্তির বিরুদ্ধেকোনো অপশক্তিইটিকতে পারে না।


বৃহস্পতিবার ফরিদপুরের সালথায় গুজব ছড়িয়ে তাণ্ডব চালানোর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তিনি এ কথা বলেন।


আওয়ামী লীগের পরিদর্শন দলে ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. আব্দুর রহমান, লে. কর্নেল (অব.) ফারুক খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুউল আলম হানিফ, আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল ও মির্জা আজম।


হানিফ বলেন, গত ৫ এপ্রিল লকডাউনকে কেন্দ্র করে যে তাণ্ডব চালানো হয়েছে সেগুলো দেখার জন্য আমরা এসেছি। আমরা খুব অবাক হয়ে গেলাম, করোনা বৃদ্ধি পাওয়ার কারনে দোকান ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিদিষ্ট সময়ে বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়েছে। এটা আপনার আমার সকলের জীবন বাঁচানোর জন্য। করোনা ধনী, গরীব, রাজনীতিবিদ কাউকে চেনে না, এখানে সবাই আক্রান্ত হচ্ছে। তাই এর হাত থেকে বাঁচার জন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এটাকে কেন্দ্র করে যে তাণ্ডব চালানো হয়েছে, এটা কোনো সামাজিক দায়িত্ববোধের জায়গা থেকে হয়নি।


তিনি বলেন, এই কাণ্ডগুলো ঘটানো হয়েছে যারা এদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি কখনো মেনে নিতে পারেনি, ৭১ এর স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি, যুদ্ধাপরাধী দল জামাত, তাদের দোসর বিএনপি আর নব্য রাজাকারের দল হেফাজত। এরা মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী, স্বাধীনতার চিন্তা বিরোধী। এরা দেশের সংবিধান মানতে চায় না, জাতীয় সংগীত গাইতে চায় না, এরা জাতীয় পতাকাকে সম্মান করতে চায় না। এরা বাংলাদেশকে তালেবানী রাষ্ট্র বানাতে চায়। যার কারণে কোনো ঘটনা ছাড়াই এই ধরণের ঘটনা ঘটানো হয়েছে। রাষ্ট্রের সম্পত্তি নষ্ট করা হয়েছে।


হানিফ বলেন, যারা রাষ্ট্রের সম্পত্তি নষ্ট করেছে, জ্বালাও পোড়াও করেছে, প্রত্যেককে খুঁজে খুঁজে বের করে এদের আইনের আওতায় আনা হবে। একজনও রেহাই পাবেন না, যারা এই ঘটনায় জড়িত এবং যারা এই ঘটনায় পেছনে বসে কলকাঠি নেড়েছে, সে যে দলের নেতা হোক, ধর্মীয় নেতা হোক, কেউ রেহাই পাবেন না। যারা এই ঘটনার সাথে জড়িত তারা সন্ত্রাসী। তাদের প্রত্যেককে আইনের আওতায় এনে বুঝিয়ে দেয়া হবে রাষ্ট্রের শক্তির বিরুদ্ধেকোনো অপশক্তিইটিকতে পারে না।


আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ২০১৩ সালে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু হওয়ার পরে কুখ্যাত রাজাকারদের বাঁচানোর জন্য বিএনপি ও জামাত মিলে সারা দেশে নাশকতা চালিয়েছিলো। ভেবেছিলো সন্ত্রাস নাশকতা চালিয়ে বিচার বন্ধ করতে পারবে। তারা বিচার বন্ধ করতে পারেনি। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে বড় হচ্ছে দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি। এই উন্নয়ন ও অগ্রগতির সামনে যারা বাঁধা হয়ে দাঁড়াবে তাদের কোনো ছাড় নেই। এবং সেটা নেত্রী করে দেখিয়েছেন। কোনো বাধা বিচার বন্ধ করতে পারেনি।


আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, যারা আজকে নব্য হেফাজতের দোহাই দিয়ে, ধর্মের দোহাই দিয়ে নাশকতা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে ভাবছেন, মাদরাসায় বসে জঙ্গিবাদ করে এই বাংলাদেশে আপনারা পার পেয়ে যাবেন, তার কোনো সুযোগ নেই। তাদেরকে কঠোরভাবে দমন করে এই বাংলাদেশে উন্নয়ন ও অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখা হবে।


হানিফ বলেন, স্বাধীনতার মূল লক্ষ্য হলো দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি করে মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করা এবং সোনার বাংলা গড়া। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা অনেক দূর এগেছি। এই উন্নয়ন ও অগ্রগতির পথে যারাই বাঁধা হয়ে দাঁড়াবে, সন্ত্রাসী মূলক কর্মকান্ড করবে তাদেরকে প্রশাসনের পাশাপাশি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের কঠোর ভাবে দমন করার আহ্বান জানান তিনি।


উল্লেখ্য, গত সোমবার (৫ এপ্রিল) সালথা উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের ফুকরা বাজারে লকডাউনের কার্যকারিতা পরিদর্শনে যান উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মারুফা সুলতানা খান হিরামণি। এ সময় সহকারী কমিশনারের উপস্থিতিতে মানুষ ছোটাছুটি শুরু করে।


পরে হেফাজতের জনৈক এক আলেমকে গ্রেফতার করা হয়েছে, এমন গুজব ছড়িয়ে সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত কয়েক হাজার মানুষ উপজেলা চত্বরে দেশীয় অস্ত্র ঢাল-কাতরা ও লাঠিসোটা নিয়ে প্রবেশ করে বিভিন্ন সরকারি দফতর ও থানায় হামলা ও ভাঙচুর চালায়।


বিবার্তা/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com