কক্সবাজারে পর্যটন মেলা; ছাড় দেওয়া হচ্ছে না অভিযোগ
প্রকাশ : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:০৮
কক্সবাজারে পর্যটন মেলা; ছাড় দেওয়া হচ্ছে না অভিযোগ
পর্যটন ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে কক্সবাজারে সপ্তাহব্যাপী পর্যটন মেলার আয়োজন করেছে জেলা প্রশাসন ও বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটি। সাত দিনব্যাপী মেলা উপলক্ষে আবাসিক হোটেলগুলোতে ২৫-৭০ শতাংশ ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে হোটেল-রেস্তোরাঁ মালিক সমিতি ও জেলা প্রশাসন। তবে মেলা উপলক্ষে কক্সবাজারে আগত পর্যটকদের হোটেল-রেস্তোরাঁগুলোতে ছাড় না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।


কক্সবাজার আগত পর্যটকরা বলছেন, মেলা উপলক্ষে ৭০ শতাংশ ছাড় দেওয়ার কথা থাকলেও ১০ শতাংশও দিচ্ছে না হোটেল ও রেস্তোরাঁগুলো। এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছে।


বিশ্ব পর্যটন দিবস ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে পুরো এক সপ্তাহ কক্সবাজারের সব হোটেল-মোটেলে ৩০ থেকে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত ডিসকাউন্ট দেওয়ার কথা। এছাড়াও, দিবস ঘিরে সৈকতের লাবণী পয়েন্টে বসছে পর্যটন মেলা। উৎসব চলাকালীন সব রেস্তোরাঁয় ৫০ শতাংশ, ওয়াটার বাইক ও বীচ বাইকে ২০, প্যারাসেলিংয়ে ৩০, গাড়ি পার্কিংয়ে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হবে। এছাড়া ফটোগ্রাফারের মাধ্যমে ছবি তোলায় প্রতি কপিতে দুই টাকা করে ডিসকাউন্ট দেওয়া হবে।


পর্যটন উৎসবের সদস্যসচিব ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু সুফিয়ান বলেন, আমরা কক্সবাজারকে ব্র্যান্ডিং করতে চাই। আমরা চাই কক্সবাজারের প্রকৃতিকে অক্ষুণ্ণ রেখে দেশ-বিদেশের ভ্রমণপিপাসু পর্যটকরা এখানকার প্রাকৃতিক দৃশ্য এবং পরিবেশ স্বাচ্ছন্দ্যে উপভোগ করুক।


অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আরও জানান, অনুষ্ঠানে থাকছে মেলা, সেমিনার, কনসার্টসহ আরও নানা আয়োজন। মেলায় বিভিন্ন বিষয়ে ২০০টি স্টল থাকবে।


এদিকে, কক্সবাজার নাগরিক আন্দোলন ফোরামের সদস্য সচিব এইচ এম নজরুল ইসলাম তার ফেসবুকে লিখেছেন , কক্সবাজারের পর্যটনশিল্পের ১২টা বাজাচ্ছে মূলত রেস্তোরাঁগুলো। এদের কারণে পুরো পর্যটনশিল্পের দুর্নাম। তাদের গলাকাটা বাণিজ্যের কারণে প্রভাব পড়েছে পর্যটন মৌসুমেও। পর্যটন দিবস কী জানে না কাচ্চি ডাইন। খাবার হোটেলে ১৫-২০ শতাংশ ডিসকাউন্ট দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছিল জেলা প্রশাসন। কিন্তু কাচ্চি ডাইনে ১ শতাংশও ডিসকাউন্ট নেই পর্যটন দিবসে। তাহলে কোন কোন হোটেলে ডিসকাউন্ট দেবে এটি বলে দেওয়া উচিত ছিল।, প্রতারিত হচ্ছেন পর্যটকরা। এরা শুধু ব্যবসায়িক মনোভাব নিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছে। প্রশাসন এদের বিরুদ্ধে কঠোর নয় কেন?


কক্সবাজারে যাওয়া পর্যটকরা জানান, ভোরে কক্সবাজার পৌঁছে হোটেল খুঁজি। পর্যটক মেলা উপলক্ষে যে ডিসকাউন্ট (ছাড়) দেওয়ার কথা ছিল বাস্তবে তা নেই। অনলাইনে আগে তাদের যে রেট ছিল বর্তমানেও একই অবস্থা। এগুলো এক প্রকার পর্যটকদের সঙ্গে প্রতরণা ছাড়া আর কিছুই নয়।


অভিযোগ উঠেছে, কলাতলী রেস্তোরাঁ নামক একটি হোটেলে সকালে নাস্তা করি। আমাদের দুইজনের বিল আসে ৬০০ টাকা। একজন রেস্তোরাঁর কর্মচারী এসে একটা বিল হাতে ধরিয়ে দেয়। সেখানে ডিসকাউন্টের (ছাড়) কোনো কথা উল্লেখ ছিল না। রেস্তোরাঁর কর্মচারীকে ডেকে মেলা উপলক্ষে ছাড়ের কথা বললে উল্টো কিসের মেলা বলে হেসে ওঠেন ওই রেস্তোরাঁর কর্মচারী। এই থেকে বুঝা যায় পর্যটক দিবস উপলক্ষে ছাড়ের নামে পর্যটকদের সঙ্গে প্রতারণা করছে।


তবে বিশেষ ছাড় নিয়ে কক্সবাজার রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সভাপতি নঈমুল হক টুটুল বলেন, ৫০ শতাংশ পর্যন্ত যে ছাড়ের কথা প্রশাসন বলছে, তা নিয়ে মালিকদের সঙ্গে কোনো আলাপ হয়নি।


কক্সবাজারের আবাসিক হোটেল মোটেল মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম সিকদার বলেন, আমরা উৎসবের জন্য আর্থিক সহযোগিতা করেছি। এছাড়া আমাদের সমিতির মালিকানাধীন ননএসি রুমগুলো মেলা চলাকালে ৮০০ টাকা ভাড়া দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে এখনো পর্যটকের তেমন সাড়া পাইনি।


এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন সেল) মাসুম বিল্লাহ বলেন, যে হোটেল ও রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির অন্তর্ভুক্ত তারা মূলত ডিসকাউন্ট (ছাড়) দেবে। তবে যে অভিযোগ এসেছে সেগুলো আমরা দেখছি।


বিবার্তা/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com