ঈদের ছুটিতে কক্সবাজার
পর্যটনে ৮০০ কোটি টাকার ব্যাবসা
প্রকাশ : ১০ মে ২০২২, ১০:২৬
পর্যটনে ৮০০ কোটি টাকার ব্যাবসা
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারির কারণে এক বছরের বেশি সময় ধরে বিধিনিষেধের বেড়াজালে আটকে ছিল দেশের পর্যটন কেন্দ্রগুলো। এইবার ঈদুল ফিতরে বাধভাঙ্গা আনন্দ উপচে পড়েছে যেন পর্যটন স্থলগুলোতে। ঈদের ছুটি শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত পর্যটনকেন্দ্রগুলো লোকের সমাগমে মুখর হয়ে ছিল। এক্ষেত্রে সবচেয়ে এগিয়ে আছে কক্সবাজার। এদিকে দীর্ঘদিন ধরে ব্যাবসা বন্ধ থাকার লোকসান কাটিয়ে উঠেছেন পর্যটনশিল্প সংশ্লিষ্টরা। ঈদের ছুটিতে শুধু কক্সবাজারের পর্যটন খাতেই প্রায় ৮০০ কোটি টাকার ব্যাবসা হয়েছে।


ঘূর্ণিঝড় অশনি আসার আগ পর্যন্ত কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের অবস্থা এমন ছিল যে যেদিকে চোখ যায় শুধু মানুষ আর মানুষ। এবার ঈদের ছুটিতে কক্সবাজারে রেকর্ডসংখ্যক পর্যটকের আগমন ঘটেছে। গত শুক্রবার সৈকতের প্রায় পাঁচ কিলোমিটার জুড়ে দুই লাখ পর্যটক উৎসব-উল্লাসে মেতে উঠেন। এছাড়া দরিয়ানগর, ইনানী, পাটোয়ারটেক, মহেশখালীর আদিনাথ মন্দির, চকরিয়ার ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কেও দর্শনার্থীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। সরেজমিন বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। পর্যটনসংশ্লিষ্টরা বলছেন, শুক্রবার অন্তত দুই লাখ পর্যটক কক্সবাজারে অবস্থান করেছেন। ঈদ পরবর্তী বুধ ও বৃহস্পতিবারও গড়ে প্রায় দুই লাখ করে পর্যটক কক্সবাজার ভ্রমণ করেছেন। সব মিলিয়ে ঈদের দিন মঙ্গলবার থেকে রবিবার পর্যন্ত ৭-৮ লাখের বেশি পর্যটক কক্সবাজারে এসেছেন। আর এতে ৬ দিনে কক্সবাজারে পর্যটন খাতে অন্তত ৮০০ কোটি টাকার ব্যাবসা হয়েছে।


গত এক সপ্তাহ জুড়েই কক্সবাজারে ছিল পাঁচ শতাধিক হোটেল-মোটেলের অগ্রিম বুকিং। এ সময়ের মধ্যে আরও অন্তত পাঁচ লাখ পর্যটক কক্সবাজারে এসেছেন। ঈদকে কেন্দ্র করে সব মিলিয়ে ১০ থেকে ১১ লাখ পর্যটক কক্সবাজারে ভ্রমণ করবেন। এতে গত এক সপ্তাহেই পর্যটন খাতে অন্তত ৮০০ কোটি টাকারব্যাবসা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী ও কক্সবাজার চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি। কক্সবাজার হোটেল-মোটেল গেস্ট হাউজ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক করিম উল্লাহ কলিম বলেন, 'করোনাভাইরাসের ভয়াবহ থাবা এবং রমজান পরবর্তী পর্যটনসংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের দীর্ঘশ্বাসের পর এবার ঈদের ছুটিতে কক্সবাজারে গড়ে প্রতিদিন দেড় লাখ করে পর্যটকের আগমন ঘটেছে। আরও কয়েকদিন পর্যটক আসবেন। তাই বলা যায়, এবার ঈদকে কেন্দ্র করে ১০ লাখ পর্যটক কক্সবাজার ভ্রমণ করবেন।' কক্সবাজার চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আবু মোর্শেদ চৌধুরী খোকা বলেন, ঈদের দিন থেকে শুক্রবার পর্যন্ত আনুমানিক ৬ লাখ পর্যটক কক্সবাজারে এসেছেন। এতে সংশ্লিষ্ট সব খাত যেমন একজন পর্যটক ঢাকা থেকে কক্সবাজার আসা-যাওয়া, হোটেলে একদিন থাকা-খাওয়াসহ সব মিলিয়ে জনপ্রতি গড়ে ১০ হাজার টাকা করে খরচ হয়। এ হিসাবে ৬০০ কোটি টাকার মতো পর্যটন খাতেব্যাবসা হয়েছে। ১০ লাখ পর্যটক কক্সবাজার ভ্রমণ করলে হাজার কোটি টাকারব্যাবসা হবে।


সংশ্লিষ্টদের তথ্যমতে, ১০ লাখ পর্যটকের কাছ থেকে আনুমানিক হোটেল খাতে ৪০০ কোটি টাকা, পরিবহণ খাতে ৩০০ কোটি টাকা, খাবার হোটেলে বাবদ ২০০ কোটি টাকা, শুঁটকি বাজারসহ অন্যান্য খাতে আরও ১০০ কোটিসহ মোট ১ হাজার কোটি টাকার ব্যাবসা হবে। ঘূর্ণিঝড় অশনি চলে আসায় খানিকটা ভাটা পড়েছে এই আয়োজনে। তাই আপাতত ৮০০ কোটি টাকার ব্যাবসাতেই থামল ঈদের ছুটিতে কক্সবাজারের পর্যটন খাত।


বিবার্তা/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com