স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সবুজের সন্ধান পেতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা
প্রকাশ : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:৪৬
স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সবুজের সন্ধান পেতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

কুষ্টিয়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজের সন্ধান দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছে তার পরিবার।


বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে পরিবারের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।


সংবাদ সম্মেলনে নিখোঁজ শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস জিনিয়া বলেন, আমার স্বামী শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজ কুষ্টিয়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া চেম্বার অব কমার্সের সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন। ২০১৫ সালের ২১ আগস্ট থেকে শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজ নিখোঁজ। গত ২০ আগস্ট ২০১৫ সর্বশেষ আমার স্বামী শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজের সাথে কথা হয়। গাজীপুর জেলার মাওনা এলাকার ড্রিম স্কয়ার রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ আমাকে ফোনে জানায়, শুক্রবার ভোরে র‌্যাব সদস্যরা ওই রিসোর্টের প্রধান ফটকের গ্রিল কেটে রিসোর্টের নৈশ প্রহরীদের বেধে রেখে রিসোর্টের মালিক মনিরুজ্জামানকে গ্রেফতার করে।


পরে ওই রিসোর্ট থেকে কুষ্টিয়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আখতারুজ্জামান লাবু ও আমার স্বামী শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। আমার স্বামী এবং তার বন্ধু লাবুকে আইনের হাতে সোপর্দ করার দাবি জানিয়ে আমরা ওই দিনই কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছিলাম। পরিবারের পক্ষ থেকে তাদের সন্ধান লাভের জন্য ঢাকায় গিয়ে র‌্যাবের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেছি। কিন্তু সেখানেও আমি আমার স্বামী সবুজের সন্ধান লাভে ব্যর্থ হয়েছি। পরবর্তীতে আমি জানতে পারি যে, লাবুকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলে জানায়, লাবু স্বপরিবারে ভারতে গেছে।


লাবু দুই মাস পরে কুষ্টিয়াতে আসে এবং আমাদের বাড়িতে এসে দেখা করে জানায় আমাকে তোমরা কিছু জিজ্ঞাসা করো না, আমি কিছু বলতে পারবো না।


তিনি বলেন, দীর্ঘ ৩ বছর ৪ মাস পার হলেও আমি আমার স্বামীর সন্ধান পাচ্ছি না। উপরন্তু একেক সময় একেক রকম বিভ্রান্তিকর তথ্য আমাদের কাছে আসছে। কোনো সময় তথ্য আসছে সিরাজগঞ্জ র‌্যাবের কাছে আছে, কুষ্টিয়া র‌্যাব-ডিবি পুলিশের কাছে দেয়া হয়েছে। আমরা সব জায়গায় খোঁজ নিয়েছি। কিন্তু কেউই আমার স্বামীর সন্ধান দিতে পারছে না।


সংবাদ সম্মেলনে জিনিয়া বলেন, আমার স্বামীই আমাদের পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। আমাদের দুটি নাবালক সন্তান রয়েছে। সন্তানদের নিয়ে আজ আমি অকুল পাথারে পড়েছি। আমার স্বামীর সন্ধান লাভের জন্য আমি জাতীয় মানবাধিকার কমিশন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সকলের দরজায় ধর্না দিলেও কোনো লাভ হয়নি। আমি জানতে চাই আমার স্বামী জীবিত না মৃত, কী অবস্থায়, কোথায় আছে, কিভাবে আছে। আমার স্বামী শেখ সাজ্জাদ হোসেন সবুজকে জীবিত, সুস্থ্য অবস্থায় ফেরত দেয়ার জন্য আমি আপনাদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।


এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নিখোঁজ সবুজের বৃদ্ধ মাতা সাহিদা বেগম, ছেলে সাহেদ হোসেন প্রেম (১৯), মেয়ে সুমাইয়া (৭) প্রমুখ।


বিবার্তা/রোকন/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com