‘মানুষের অধিকার নিয়ে কথা বলে গণমাধ্যম, আমাদের নিয়ে বলার কেউ নেই’
প্রকাশ : ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:১৮
‘মানুষের অধিকার নিয়ে কথা বলে গণমাধ্যম, আমাদের নিয়ে বলার কেউ নেই’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

নিউজ টোয়েন্টিফোর টিভির যুগ্ম বার্তা সম্পাদক আঙ্গুর নাহার মন্টি বলেছেন, বর্তমানে সাংবাদিকরা চাকরি করছেন মাত্র। কিন্তু সাংবাদিক হিসেবে আমাদের নীতি-নৈতিকতা কী হবে সেটা ঠিক করার দায়িত্ব যেমন সাংবাদিকদের আছে, তেমনি প্রতিষ্ঠানেরও আছে।


তিনি বলেন, এখনো আমাদের প্রতিষ্ঠানগুলোতে কোনো ধরনের নীতিমালার বালাই নেই। যা আছে সব কাগজে কলমে। টিভিগুলোর অবস্থা তো আরো হযবরল। এগুলো নিয়ে কথা বলার কেউ নেই। আমরা মানুষের অধিকার নিয়ে কথা বলি। কিন্তু আমাদের নিয়ে কথা বলার কেউ নেই।


বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে “পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে গণমাধ্যম: ভূমিকা ও সংকট” শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় আলোচকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গোলটেবিল আলোচনার আয়োজন করে বিবার্তা২৪ডটনেট ও জাগরণ (আইপি) টিভি।


আশাবাদ ব্যক্ত করে আঙ্গুর নাহার মন্টি বলেন, চাকরির অনিশ্চয়তা যেমন আমাদের আছে, তেমনি আছে সম্ভাবনা। আগে সাংবাদিকতা করতে একটি প্রতিষ্ঠানের দরকার ছিল। এখন একজন ব্যক্তিই একটি প্রতিষ্ঠান। আমরা যদি অনলাইন প্লাটফর্ম ব্যবহার করেই দক্ষ ও নিষ্ঠা অটুট রেখে সাংবাদিকতা করি, তাহলে একটি অমিত সম্ভাবনার দ্বার খুলে যাবে বলে আমার বিশ্বাস। তখন প্রতিষ্ঠানগুলোতে আর আমাদের ধারণা দিতে হবে না। সিভি নিয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হবে না। বরং তারাই আমাদের খুঁজে নেবে। পরিবর্তনটা আমাদের থেকেই শুরু করতে হবে।


সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, মূলধারার সাংবাদিকতার প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠছে সোশ্যাল মিডিয়া। আমাদের বড় একটি ডিজিটাল প্লাটফর্ম আছে যার উপর সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। দেশের বাইরে বসে কারা এসব প্লাটফর্ম ব্যবহার করে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে সেদিকে এখনই নজর দিতে হবে। সরকারি বেসরকারি বিজ্ঞাপন কম-বেশি সকল প্রতিষ্ঠানই পাচ্ছে। তবুও শুনতে হয় ব্যবসা নেই। যার ফলে সংবাদকর্মীদের বেতনও বৃদ্ধি পাচ্ছে না। আমি কিন্তু এই যুক্তি মানতে রাজি না।


বাংলাদেশের গণমাধ্যমের ব্যবস্থার সামগ্রিক চিত্র তুলে ধরে ডব্লিউজেএনবির সমন্বয়ক বলেন, আমাদের গণমাধ্যমের আসলে কন্টেন্ট নেই অথবা আমাদের কন্টেন্টগুলো সাধারণ মানুষকে স্পর্শ করতে পারছে না। সরকার এবং নীতি-নির্ধারণী পর্যায় থেকে ডেইলি স্টার, প্রথম আলো সম্পর্কে নানা ধরনের কথা বলা হয়। কিন্তু আমার প্রশ্ন হচ্ছে ডেইলি স্টার প্রথম আলো তাদের কর্মীদের যে বেতন-ভাতা, সুযোগ-সুবিধা দিয়ে রাখছেন, সরকার থেকে কি কখনো উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এই ধরনের কোনো প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার? প্রতি মাসে দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞদের দিয়ে যে পরিমাণ প্রশিক্ষণ উনারা দেন, কয়টা পত্রিকা সেটা করেন আমার জানা নাই। দেশে বলার মতো এই ২ পত্রিকা ছাড়া আর কোনো পত্রিকা নেই।


জাগরণ আইপি টিভি’র প্রধান সম্পাদক এফএম শাহীনের সঞ্চালনা ও বিবার্তা২৪ডটনেট সম্পাদক বাণী ইয়াসমিন হাসি’র সভাপতিত্বে গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি। অনুষ্ঠানে কী-নোট উপস্থাপন করেন জিটিভির প্রধান সম্পাদক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা।


এছাড়া আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আজকের পত্রিকার সম্পাদক গোলাম রহমান, ঢাকা পোস্টের সম্পাদক মহিউদ্দিন সরকার, ডিবিসি নিউজ সম্পাদক প্রণব সাহা প্রমুখ।


বিবার্তা/সোহেল/রাসেল/আদনান/বিপ্লব/গমেজ/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com