ব্রণ না দাগছোপ; বুঝে করুন সমাধান
প্রকাশ : ২৫ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৫২
ব্রণ না দাগছোপ; বুঝে করুন সমাধান
লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ব্রণ হল প্রদাহজনিত ত্বকের অবস্থা। ত্বকের সেবাসিয়াস গ্রন্থি আছে। সেখান থেকে সেবাম নামের এক ধরনের তেল বের হয়। এটাই স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। এই প্রক্রিয়ায় ব্যাঘাত ঘটলেই ব্রণ হয়। হরমোন, বিশেষ করে এন্ড্রোজেন হরমোন ত্বকের সেবাসিয়াস গ্রন্থির কার্যকলাপ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।


আঠালো সিবাম ত্বকের ছিদ্রের ভিতর মৃত চামড়া এবং ময়লা আটকে রাখে। এটি ব্রণ-সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া যেমন 'প্রোপিয়নিব্যাক্টেরিয়াম অ্যানেস' এর বৃদ্ধিকে বাড়িয়ে দেয়। ফল ব্রণর সঙ্গে ত্বকে জ্বালাভাব দেখা যায়। এর ফলে অনেক সময় সাদা পুঁজও বের হয়।


চর্মরোগ চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, আসলে অনেকেই বুঝতে পারেন না কোনটা ব্রণ-পরবর্তী দাগ আর কোনটা ব্রণর চিহ্ন। লাল বা বাদামি রঙের কোনও দাগ আসলে ব্রণ-পরবর্তী প্রদাহের ফল। ব্রণ কমে গেলেও অনেকের ত্বকে কালো দাগছোপে ভরে যায়। যেটি আসলে ‘হাইপারপিগমেন্টেশন’ নামে পরিচিত।


ব্রণের থেকেও এই দাগগুলি নিয়ে যেন বেশি চিন্তিত থাকেন অনেকে। একটা ভয় কাজ করে মনের মধ্যে— আদৌ ত্বকের লাবণ্য ফিরে আসবে তো? এই ধরনের দাগ দূর করতে বাজারে অনেক প্রসাধনী পাওয়া যায়। তবে সবগুলি যে ফলদায়ক হবে এমন নয়। কেনার আগে কয়েকটি জিনিস যাচাই করে নিতে হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল প্রসাধনীর উপকরণ। কোজ়িক অ্যাসিড, গ্লাইকোলিক অ্যাসিড, অ্যাজেলাইক অ্যাসিড, আরবুটিন, ভিটামিন সি, হাইড্রোকুইনাইনের মতো উপাদান দিয়ে তৈরি প্রসাধন সামগ্রী অনেক বেশি কার্যকর। এই উপাদান-সমৃদ্ধ প্রসাধনী ত্বকের দাগছোপ দূর করতে পারে।


ব্রণ কমে গিয়েছে মানেই, ত্বকের পরিচর্যায় ইতি টানলে চলবে না। ব্রণ কমে যাওয়ার পর ত্বকের যত্ন নিয়ে যেতে হবে নিয়ম করে। বিশেষ করে স্ক্রাবিং করা বন্ধ করলে চলবে না। স্ক্রাব করার ফলে ত্বকের মৃত কোষ দূর হয়। রোমকূপে জমে থাকা ময়লা বাইরে বেরিয়ে যায়। দাগছোপ তৈরি হওয়ারও অবকাশ কম থাকে এর ফলে।


ব্রণর ফলে তৈরি হওয়া দাগছোপ দূর করতে লেজার চিকিৎসাও করতে পারেন। তবে এ ক্ষেত্রে ৬-৯ মাস সময় লাগতে পারে। বিভিন্ন ধাপে এটি করতে হবে। অন্তত ৩-৪ টি ধাপে লেজার করা প্রয়োজন। প্রতিটি লেজারের মধ্যে অন্তত ৬ সপ্তাহের ব্যবধান থাকা প্রয়োজন। তবে লেজার করলেও যে একশো শতাংশ উপকার পাবেন, তা নয়। তাই বেশি প্রত্যাশা না করাই শ্রেয়। এই লেজার পদ্ধতিতে ত্বকের দাগছোপ দূর করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে অতি অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে নেবেন। এ বিষয়ে নিজের ভাবনা না প্রয়োগ করাই ভাল।


বিবার্তা/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com