চিনি বাদ দিবেন, না সামলে খাবেন?
প্রকাশ : ১৪ আগস্ট ২০২২, ০৮:৫৮
চিনি বাদ দিবেন, না সামলে খাবেন?
লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

যারা মিষ্টি খেতে ভালোবাসেন, চিনি তাঁদের প্রিয় উপকরণ। তবে অতিরিক্ত চিনি শরীরের জন্যও ক্ষতিকর। খাবারে চিনির ব্যবহার যত কম হবে, ততই ভালো। প্রথমেইচিনির বিভিন্ন উপকারিতা জেনে নেই,


★ দ্রুত শক্তি দেয়: যখন শরীরে চিনির ঘাটতি হয়, তখন শক্তি কমে যায়। আর চিনি খেলে শরীর তাৎক্ষণিক শক্তি পায়।


★ ত্বকের টোন ঠিক রাখে: এর মধ্যে রয়েছে গ্লাইকোলিক এসিড, যা ত্বকের টোনকে ঠিক রাখে। ত্বকের তৈলাক্ততার ভারসাম্য রক্ষা করে, দাগ দূর করতে সাহায্য করে।


★ নিম্ন রক্তচাপ: চিনি নিম্ন রক্তচাপকে স্বাভাবিক হতে সাহায্য করে। নিম্ন রক্তচাপ হলে চিনির শরবত বা চিনি খাওয়া যেতে পারে।


★ কাটাছেঁড়া: চিনির দানা যেকোনো কাটাছেঁড়া ক্ষেত্রে প্রলেপ হিসেবে লাগালে অ্যান্টিবায়োটিকের মতো কাজ করে।


চিনির যেমন উপকারিতা রয়েছে, তেমনি অপকারিতাও রয়েছে। অতিরিক্ত চিনি আমাদের স্বাস্থ্যকে বিরূপভাবে প্রভাবিত করতে পারে। তবে চিনির অপকারী দিকই বেশি।


★ লিভারের ক্ষতি: অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার কারণে লিভারের চারপাশে অতিরিক্ত চর্বির একটি স্তর তৈরী হয়। এর ফলে লিভারের আকৃতির পরিবর্তনসহ লিভারের কার্যক্ষমতা নষ্ট হয়ে যেতে পারে।


★ উচ্চ রক্তচাপ ও হৃদরোগের ঝুঁকি বৃদ্ধি: গবেষণায় দেখা গেছে, চিনির সঙ্গে উচ্চ কোলেস্টেরল এবং হৃদরোগজনিত মৃত্যুর সংযোগ আছে। উচ্চমাত্রায় চিনি গ্রহণের সঙ্গে লো-ডেনসিটি লিপোপ্রোটিন (ভিএলডিএল) নামক একপ্রকার রক্তের লিপিড বৃদ্ধির সংযোগ পাওয়া গেছে, যা কার্ডিওভাস্কুলার রোগের ঝুঁকির সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। চিনি এইচডিএল নামক উপকারী কোলেস্টরল হ্রাস করতে পারে- এইচডিএল কোলেস্টেরল হৃদপিণ্ডের সমস্যা থেকে রক্ষা করে। এছাড়া চিনি হাইপারটেনশন বা উচ্চ রক্তচাপের কারণ হতে পারে।


★ ডায়াবেটিস: গবেষণায় দেখা গিয়েছে একজন মানুষ যদি দৈনিক চিনি থেকে ১৫০ ক্যালোরি গ্রহণ করে, তাহলে তার ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বেড়ে যায় প্রায় ১.১ শতাংশ।


★ রক্তচলাচলে বাঁধা: অতিরিক্ত চিনি আপনার রক্তচলাচলে বাধা তৈরি করতে পারে। এটি ধমনির দেয়ালের পুরুত্ব বাড়িয়ে দেবার ফলে রক্তচাপ বেড়ে যায় ও এর ফলে দেহে নানা ধরনের সমস্যা হতে পারে। অতিরিক্ত চিনি গ্রহণের ফলে আপনার মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা কমে যায়, কমে যেতে পারে স্মরণশক্তি ৷ হতে পারে অ্যালজেইমারের মতন রোগও।


★ ফ্যাট: অতিরিক্ত চিনি খেলে দ্রুত আপনার তলপেট, চিবুক ও অন্যান্য জায়গায় ফ্যাট জমতে সাহায্য করে। দৈনিক বেশি বেশি চিনির কারণে খুব দ্রুতই আপনি মোটা হয়ে যেতে পারেন।


★ ত্বকে সমস্যা: অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার কারণে আপনার ত্বকে খুব দ্রুত বলিরেখা পড়তে শুরু করে। আর তাই বয়েস বেশি হবার আগেই বুড়িয়ে যেতে না চাইলে অবশ্য চিনি খাওয়া কমাতেই হবে। চিকিৎসকরা বলেন দিনে সর্বোচ্চ ৫ চামচ চিনি খাওয়া নিরাপদ। পারলে না খাওয়ায় ভালো।


★ দাঁতের ক্ষয় করে: মুখের ব্যাকটেরিয়া চিনি ভালোবাসে, যেমনটা ভালোবাসি আমরা এবং তারা যখন এসব ভোজন করে বাইপ্রোডাক্ট হিসেবে এসিড নিঃসরণ হয়। এই এসিড দাঁতের এনামেলকে আক্রমণ করে ও ডেন্টিন নামক দাঁতের গভীর স্তরে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশের সুযোগ সৃষ্টি করে। আপনি যত বেশি চিনি খাবেন, আপনার মুখ তত বেশি অ্যাসিডিক হবে এবং দ্রুত দাঁতে ক্যাভিটি বা ক্ষয় হবে। এছাড়া চিনি খেয়ে ইস্টও বিকশিত হয়, যা মুখের কর্নার বা জিহ্বা লাল করতে পারে।


★ ডিপ্রেশনের ঝুঁকি বৃদ্ধি: গবেষণা অনুসারে, যেসব খাবার ডিপ্রেশন বা বিষণ্নতাকে আরো খারাপ পর্যায়ে নিয়ে যায়, সেসবের মধ্যে চিনি অন্যতম। সাধারণ কার্বোহাইড্রেট রূপে অধিক মাত্রায় চিনি গ্রহণ গ্লুকোজের মাত্রা বৃদ্ধি করে ও সংঘর্ষ সৃষ্টি করে, যার ফলে মেজাজ খারাপ হতে পারে এবং বিরক্তি-অস্থিরতা-অনিয়মিত ঘুম-প্রদাহ বৃদ্ধি পেতে পারে। এর পরিবর্তে, চর্বিহীন প্রোটিন, জটিল কার্বোহাইড্রেট এবং ওমেগা৩-ফোলেট-ভিটামিন বি সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করুন।



তাহলে চিনি খাওয়া কীভাবে বাদ দিবেন?



একজন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ দিনে চিনি বা মিষ্টিজাতীয় খাবার খেতে পারবেন ৯ চা-চামচ। মেয়েদের ক্ষেত্রে সেটি ৬ চা-চামচ। চিনির প্রতি তীব্র মোহ কমাতে চিনির বিকল্প বেছে নিতে হবে। সাদা চিনি খাওয়া একেবারেই বাদ দিন। লাল চিনি সাদা চিনির থেকে কম ক্ষতিকর। এ ছাড়া মিষ্টি ফল, ফলের সালাদ বা কাস্টার্ড ভালো সমাধান। খেজুর, মধু, গুড়, কিশমিশ খেয়েও কিন্তু মিষ্টির মোহ কমাতে পারেন, যা ততটা ক্ষতিকরও নয়।


তবে কৃত্রিম চিনি কোনোভাবেই খাওয়া যাবে না। সে ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক চিনি, যেমন স্টিভা নামের একধরনের পাতা খেতে পারেন, যা চিনির স্বাদ দেবে কিন্তু চিনির মতো ক্ষতিকর নয়।


বিবার্তা/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com