চাকরিজীবী নারীদের ঘরে থাকার নির্দেশ দিলো তালেবান
প্রকাশ : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০৬
চাকরিজীবী নারীদের ঘরে থাকার নির্দেশ দিলো তালেবান
সংগৃহীত ছবি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ঝঞ্জাবিক্ষুব্ধ আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে নগর প্রশাসনের নারী কর্মীদের বাড়িতে থাকার আদেশ দিয়েছেন শহরটির মেয়র হামদুল্লাহ নোমান। সম্প্রতি তিনি নতুন অন্তর্বর্তী তালেবান মেয়র মনোনিত হন। নারীদের পদগুলোতে পুরুষ কর্মী না পাওয়া পর্যন্ত তাদেরকে বাড়িতে থাকার আদেশ দেয়া হয়। তিনি বলেন, নারীদের কাজ কিছু সময়ের জন্য বন্ধ রাখা প্রয়োজন মনে করছে তালেবান। খবর বিবিসির।


নারীদের ওপর আফগানিস্তানের নতুন কট্টরপন্থি তালেবান সরকারের বিধিনিষেধ জারির ধারাবাহিকতায় রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) এ ঘোষণা এলো।
কাবুলের মেয়র নোমান জানান, রাজধানীর নগর প্রশাসনের সব বিভাগ মিলে প্রায় তিন হাজার কর্মী আছে, যার এক-তৃতীয়াংশই নারী। এদের মধ্যে কিছু নারী কাজ করতে পারবেন।


উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, নারীদের পাবলিক টয়লেটগুলো রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নারীরাই পালন করতে পারে। পুরুষরা সেখানে যেতে পারে না।
'কিন্তু আরো পদ আছে যা অন্যরা (পুরুষ) পূরণ করতে পারে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আমরা তাদের (নারী) ঘরে থাকতে বলেছি। তাদেরকে বেতন দেয়া হবে।


আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের অল্প সময়ের মধ্যেই্ তালেবান জানিয়েছিলো, ‘ইসলামি আইন-কাঠামোর মধ্যেই’ নারীদের অধিকারের প্রতি সম্মান দেখানো হবে।


কিন্তু বৈধ ইসলামিক ব্যবস্থার কঠোর রূপ শরিয়া আইনই বাস্তবায়ন করছে বলে প্রতীয়মান হচ্ছে তাদের কাজেকর্মে। ১৯৯০ এর দশকের তালেবান আমলে নারীদের শিক্ষা এবং কাজে যাওয়া দুই-ই নিষিদ্ধ ছিলো।


এবার তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর থেকেই বলে আসছে নিরাপত্তা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত নারীদের ঘরে থাকতে হবে। নবগঠিত পুরুষ সর্বস্ব অন্তর্বর্তী তালেবান সরকারের বিরুদ্ধে নারী বিক্ষোভও তালেবান যোদ্ধারা কঠোর হাতে দমন করেছে।


তাছাড়া, আফগানিস্তানের নারী বিষয়ক মন্ত্রণালয় বন্ধ করে দিয়ে সে জায়গায় তালেবান এমন একটি মন্ত্রণালয় চালুর পদক্ষেপ নিয়েছে, যা একসময় কঠোর ধর্মীয় নিয়মকানুন মানতে বাধ্য করত। ওদিকে, শিক্ষাক্ষেত্রে তালেবান শুধু ছাত্রদের জন্য মাধ্যমিক স্কুল খোলার ঘোষণা দিলেও মেয়েদের স্কুল খোলার বিষয়ে কিছু বলেনি।


রবিবার বন্ধ হয়ে যাওয়া নারী মন্ত্রণালয়ের বাইরে কয়েকজন নারী বিক্ষোভ করেছেন। জনজীবনে নারীদের অংশগ্রহণ করতে দেয়ার দাবি জানান তারা। আরো কিছু নারী তাদের অধিকারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। বিক্ষোভে অংশ নেয়া এক নারী বলেন, আমরা নারী মন্ত্রণালয় বন্ধ হতে দিতে চাই না। বিক্ষোভকারীদের হাতের একটি ব্যানারে লেখা ছিলো, ‘যে সমাজে নারীরা সক্রিয় নয়, সেটি মৃত সমাজ।


বিবার্তা/জুয়েল/বিদ্যুৎ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com