কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালত বর্জন করেছে আইনজীবী সমিতি
প্রকাশ : ২৬ নভেম্বর ২০২২, ২১:৩৫
কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালত বর্জন করেছে আইনজীবী সমিতি
কক্সবাজার প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

প্রকাশ্য আদালতে আইনজীবীদের সঙ্গে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের দুর্ব্যবহার, সাক্ষীদের সাক্ষ্য দেওয়ার সময় প্রভাব বিস্তার, কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য, অশোভন আচরণ, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ তুলে আদালত বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন আইনজীবীরা।


শনিবার (২৬ নভেম্বর) বিকেলে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে সমিতির সাধারণ সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে কক্সবাজার জেলা ও জেলা জজকে কক্সবাজার আদালত থেকে প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে থাকবে বলে জানান আইনজীবী নেতারা।


সমিতির সভাপতি অ্যাড.ইকবালুর রশিদ আমিন সোহেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভা পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মোহাম্মদ তাওহীদুল আনোয়ার।


জরুরি সাধারণ সভায় জেলা বারের সাবেক সভাপতি অ্যাড. সিরাজুল মোস্তফা, অ্যাড. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, অ্যাড. মমতাজ আহমেদ, অ্যাড. আবুল কালাম সিদ্দিকী, অ্যাড. শাহজালাল চৌধুরী, অ্যাড. নুরুল আলম, অ্যাড. আবুল আলা, অ্যাড. সৈয়দ আলম, অ্যাড. মো. নুরুল ইসলাম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আয়াছুর রহমান, অ্যাড. আব্বাস উদ্দিন, অ্যাড. সুলতানুল আলম, অ্যাড. সিরাজুল ইসলাম, অ্যাড. আব্দুর রউফ, অ্যাড. আবদুল কাশেম, অ্যাড. মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, অ্যাড. মোহাম্মদ তারেক, অ্যাড. আহমদ কবির, অ্যাড. জিয়াউদ্দিন আহমেদসহ বক্তব্য রাখেন।


তাছাড়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বর্তমান পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাড. ফরিদুল আলম, সাবেক পিপি নুরুল মোস্তফা মানিকসহ জেলা বারের কার্যকরী কমিটির নেতৃবৃন্দ ও সকল আইনজীবী স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করেন।


ইকবালুর রশিদ আমিন সোহেল বলেন, একজন বিজ্ঞ বিচারক হিসেবে জেলা ও দায়রা জজ বিচারকার্য চলাকালীন সময় আইনজীবীদের নিয়ে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। তা মোটেও কাম্য নয়। বিষয়টি নিয়ে আইনজীবী সমিতির নেতারা জেলা জজের সাথে কথা বলেন। কিন্তু তিনি একই আচরণ অব্যাহত রাখেন। গত ১৩ অক্টোবর জেলা বারের জরুরি সাধারণ সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে বেঞ্চের নানা অনিয়ম, দুর্নীতি তুলে ধরে তা সমাধানের পদক্ষেপ নিতে বিচারক মোহাম্মদ ইসমাইলকে অনুরোধ জানানো হয়। তিনি পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দিলেও কার্যকর করেননি। উল্টো আইনজীবী সমিতির নেতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেন। এ অবস্থায় সমিতির বিশেষ সাধারণ সভা ডেকে সর্বসম্মতিক্রমে জেলা ও দায়রা জজ আদালত বর্জনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।


সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ তাওহীদুল আনোয়ার বলেন, উচ্চ আদালতের আদেশ তোয়াক্কা না করে ইচ্ছেমতো বিচারকার্য পরিচালনা করেন জেলা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল। মিস মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ উন্মুক্ত আদালতে না দেওয়ার সুযোগে স্টাফরা দুর্নীতির আশ্রয় নেন।


বিবার্তা/তাফহীমুল/এসএফ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com