পরিত্যক্ত অবস্থায় ওয়াসার ট্যাংক, নেই সাবান-পানি
প্রকাশ : ২৭ জুলাই ২০২১, ১৭:১০
পরিত্যক্ত অবস্থায় ওয়াসার ট্যাংক, নেই সাবান-পানি
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

রাজধানীতে করোনাভাইরাসের সংক্রামণ রোধে পথচারীদের হাত ধোয়ার জন্য ওয়াসার পক্ষ থেকে বিভিন্ন স্থানে হাত ধোয়ার পানির ট্যাংক বসানো হয়েছিল। কিন্তু এই পানির ট্যাংকরগুলোতে নেই পানি। ট্যাংকগুলোতে লাগানো বেসিনগুলো নষ্ট হয়ে গেছে। কোথায়ও কোথায়ও বেসিনগুলোর মধ্যে জমে আছে ময়লা-আবর্জনা। শুধু তাই নয়, কোথাও কোথাও পানির ট্যাংকগুলোও উধাও হয়ে গেছে। সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ও সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।


জানা গেছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত বছরের মার্চ মাস থেকে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে সরকারি ও বেসরকারিভাবে সচেতনতামূলক প্রচারণা শুরু হয়। এরপর থেকেই মানুষের মধ্যে ঘনঘন হাত ধোয়া, বাইরে থেকে বাসায় ফিরে গোসল করা, পরিধেয় কাপড় ধোয়া, শাকসবজি ধোয়ার অভ্যাস গড়ে উঠেছে। বাসাবাড়ি ও সড়কে নিয়মিত পানি মিশ্রিত জীবাণুনাশক ছিটানোর দৃশ্য দেখা যায়।



এছাড়া বিভিন্ন বাজার, টার্মিনাল ও বাড়ির সামনে মানুষের জন্য হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা করা হয়। এ সব কর্মসূচির অংশ হিসেবে ওয়াসার পক্ষ থেকে রাজধানীর বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে পানির ট্যাংক বসানো হয়। শুধু তাই নয়, সুইডিস দূতাবাস ও ঢাকা ওয়াসার উদ্যোগে ‘হ্যান্ড ওয়াশিং অন হুইলস’ কর্মসূচি চালু করা হয়। কর্মসূচির আওতায় হাত ধোয়ার সুব্যবস্থাসহ ১০টি ভ্যান ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়াতো। আর হাত ধোয়ার ভ্যানগুলোয় বিনামূল্যে পানি সরবরাহ করতো ঢাকা ওয়াসা। কিন্তু বর্তমানে ওই কর্মসূচিও বন্ধ হয়ে গেছে।


সূত্রমতে, গত বছরের ২৬ মার্চ থেকে দেশে লকডাউন শুরু হওয়ার পর ২৪ ঘন্টা পানি সরবরাহ করে ঢাকা ওয়াসা। এছাড়া ২৮ মার্চ ওয়াসার পক্ষ থেকে ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু লকডাউন শেষ হওয়ার সাথে সাথে ওই কার্যক্রমও শেষ হয়ে যায়। পরে অযত্নে ও অবহেলায় নষ্ট হয়ে যায় পানির ট্যাংকগুলোও।



সম্প্রতি রাজধানীর বাংলামটর এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, বাংলামটর পুলিশ বক্সের পাশে ওয়াসার একটি পানির ট্যাংক পড়ে আছে। ওই ট্যাংকে কোনো পানি নেই। নেই কোনো সাবানও। শুধু তাই নয়, পানির ট্যাংকের বেসিনও ভেঙে গেছে। এক কথায় পরিত্যক্ত অবস্থায় পানির ট্যাংকটি পড়ে থাকতে দেখা গেছে।


স্থানীয় এক বাসিন্দা বিবার্তাকে বলেন, দীর্ঘ দিন থেকে ট্যাংকটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় পড়েই আছে। এটা দেখার কেউ নেই।


শুধু বাংলামটর এলাকায় নয়, গত বছর ওয়াসার পক্ষ থেকে রাজধানীর কারওয়ান বাজার মোড়, ওয়াসা ভবনের সামনেসহ বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে হাত ধোয়ার জন্য পানির ট্যাংক বসানো হয়েছিল। কিন্তু ওই ট্যাংকগুলো এখন আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।


কারওয়ান বাজার মোড়ে গিয়ে দেখা গেছে, সেখানে কোনো পানির ট্যাংক নেই। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রাজধানীর কারওয়ান বাজারে অবস্থিত ওয়াসা ভবনের সামনের দুই পাশে একটি করে পানির ট্যাংকি এবং একটি করে বেসিন বসানো হয়েছিল গত বছর। তাতে পানি ও সাবানের ব্যবস্থা করা হয়। রাস্তার পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় হাত অপরিষ্কার মনে করলে মানুষজন সেখানে সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করে নিতেন।



এছাড়াও কারওয়ান বাজার মোড়ে পুলিশ বক্সের সামনে একটি পানির ট্যাংক বসানো হয়। কিন্তু কিছুদিন পর সেই পানির ট্যাংকগুলো নষ্ট হয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা সেখান থেকে পানির ট্যাংকটি সরিয়ে ফেলে। একই অবস্থায় ওয়াসা ভবনের সামনের ট্যাংকটিরও। সেই ট্যাংকটি ভেঙে যাওয়ার পর ভবনের নিচে দীর্ঘ দিন পড়ে ছিলো বলে বিবার্তাকে জানিয়েছেন স্থানীয় দোকানিরা। তারা জানান, দীর্ঘদিন পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকার পর সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নকর্মীরা সেই ট্যাংকটি নিয়ে যায়।


এ ব্যাপারে জানতে ওয়াসার মডস জোন-৬ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহবুবুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিবার্তাকে বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই।



পরে ঢাকা ওয়াসার স্যানিটেশন ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্টের পরিচালক মো. রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিবার্তাকে বলেন, বিভিন্ন এনজিও এর মাধ্যমে এ কার্যক্রম শুরু হয়েছিল। কিন্তু এখনো চালু আছে কি না তা আমার জানা নেই।


এছাড়াও বিষয়টি জানতে ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী তাকসিম এ খানের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তার বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।


বিবার্তা/খলিল/গমেজ/জাই


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com