শিক্ষকের গলায় জুতার মালা সামাজিক মূল্যবোধের অধ:পতনের ইঙ্গিত
প্রকাশ : ২৭ জুন ২০২২, ১৫:০৩
শিক্ষকের গলায় জুতার মালা সামাজিক মূল্যবোধের অধ:পতনের ইঙ্গিত
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

শিক্ষকের গলায় জুতার মালা পরিয়ে অপমান করা সামাজিক মূল্যবোধের অধ:পতনকেই ইঙ্গিত করছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি- বাংলাদেশ ন্যাপ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ব্যারিষ্টার মশিউর রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।


২৭ জুন, সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ মন্তব্য করেন তারা।


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের নড়াইল সদর উপজেলার মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে জুতার মালা পড়িয়ে লাঞ্ছিত করার ঘটনার তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়ে নেতৃদ্বয় বলেন, ন্যাক্কারজনক এই ঘটনার সাথে জড়িত দুর্নীতিবাজ ও সমাজবিরোধী প্রভাবশারী চক্রকে আইনের আওতায় এন দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি আর একজন শ্রদ্ধেয় শিক্ষকের গলায় জুতার মালা পরিয়ে অপমান করা আমাদের সামাজিক মূল্যবোধের অধ:পতনকেই ইঙ্গিত করছে।


তারা বলেন, পুলিশের উপস্থিতিতে কিভাবে একজন শিক্ষককে এভাবে অসম্মান করা হলো। তাহলে কি কেবলমাত্র ধর্মীয় সংখ্যালঘু হওয়ার কারণে ওই শিক্ষককে এভাবে অপমানিত হতে হয়েছে। ভুক্তভোগী শিক্ষকের কোনো ভূমিকাই নেই। উনাকে না বাঁচিয়ে পুলিশ তাকে বের করেছে। প্রশাসন যারা চালায় তারা কি চাইছে? কয়েকশ পুলিশের প্রহরায় এটা করা হলো। এটা বাংলাদেশের জন্য কিসের ইঙ্গিত বহন করছে?


নেতৃদ্বয় বলেন, ধর্ম অবমাননার ধোয়া তুলে প্রকৃত অপরাধিরা মুলত কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করছে কিনা তা খুজে বের করতে হবে। প্রকৃত অর্থেই দুর্নীতিবাজরা নিজেদের স্বার্থ রক্ষার জন্যই ধর্ম অববাননার বিষয়ে গুজব তুলেছে বলেই অভিজ্ঞ মহল মনে করছে। এই ঘটনায় মধ্য দিয়ে প্রমানিত হচ্ছে দেশে অবকাঠামোগত উন্নয়ন হলেও মানুষের মগজের উন্নয়ন হয় নাই। এখনও দুর্নীতিবাজ আর লুটেরারা নিজেরদের স্বার্থ রক্ষায় ধর্মকে ব্যবহার করছে। আর আম জনতা ব্যবহৃত হচ্ছে।


তারা বলেন, প্রকৃত অর্থে অধ্যক্ষকে সরিয়ে দিয়ে মোটা টাকার বিনিময়ে ৫ জন কর্মচারীকে নিয়োগ দিতে তৎপর একটি চক্র, তারাই রাহুলের বিরুদ্ধে সাধারণ ছাত্রদের ক্ষেপিয়ে তোলে এবং স্বপন কুমারের বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ আনে যাতে তাকে অধ্যক্ষের পদ তেকে সরিয়ে দেয়া যায়। সেই পুরোনো কৌশল অবলম্বন করে। আর এই অপকৌশলের শিকার হয় সাধারন শীক্ষার্থীরা। যা আজকের ও আগামী দিনে জন্য কোন শুভ ইঙ্গিত বহন করছে না।


বিবার্তা/কিরণ/এমবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com