ধর্মের আড়ালে বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর ব্যবস্থা : হানিফ
প্রকাশ : ০৪ মে ২০২১, ১৭:৫৮
ধর্মের আড়ালে বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর ব্যবস্থা : হানিফ
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত এখন আরেকটা টিম নামিয়েছে। হেফাজত নামধারী এরা ধর্মের দোহাই দিয়ে বাংলাদেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করে দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। এরা রাষ্ট্রের শত্রু, জনগণের শত্রু। ধর্মের আড়ালে এরা বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। অনৈতিক কাজ করে কেউ পার পাবে না।


মঙ্গলবার (৪ মে) বিকালে রাজধানীর বংশাল থানার বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ে দুস্থদের মাঝে খাদ্য বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের বংশাল থানা এ খাদ্য বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।


মামুনুল হককে নিয়ে তিনি বলেন, মামুনুল হক মুখে এক, কর্মে আরেক। ধর্মের দোহাই দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করেছেন। মামুনুল যে জঘন্য কাজ করেছেন শরীয়ত অনুযায়ী তাকে পাথর নিক্ষেপ করে মেরে ফেলা যেত। কিন্তু আমরা আইনে বিশ্বাসী। আইন অনুযায়ী তার উপযুক্ত বিচার হবে।


বিএনপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বিএনপির কাজই হচ্ছে সরকারের সমালোচনা করা। করোনার শুরুর দিকে মির্জা ফখরুল ইসলাম সরকারের সমালোচনা করলেন। অথচ তিনি নিজে প্রেসক্লাবে দিনের পর দিন সরকার বিরোধী সমাবেশ করেছেন। করোনাকালে এ গণজমায়েত কতটা অযৌক্তিক ছিল সেটা কি ভেবে দেখেছেন? বিএনপি নেতারা বড় বড় কথা বলেন। অথচ এ মহামারীতে জনগণের পাশে নেই।


তিনি আরো বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম, শ্রেষ্ঠ ধর্ম। কিন্তু এ ধর্মকে অপব্যবহার করে যারা দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায়, সেসব হেফাজত নেতাদের মুক্তির জন্য বিএনপি দাবি জানায়। তার মানে হেফাজতের সাথে তাদের তলে তলে আঁতাত।


খালেদা জিয়াকে নিয়ে তিনি বলেন, খালেদা জিয়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল উনার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ার কথা জানতে পারলাম।


আমরা আওয়ামী লীগ উনাকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা সহায়তা দিয়ে আসছি এবং দিয়ে যাবো। উনার সুস্থতা কামনা করছি।আওয়ামী লীগের এ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, করোনা মহামারীতে সারাপৃথিবী বিপর্যস্ত। করোনা দুর্যোগে গত ১ বছরে পৃথিবীতে ৩০ কোটি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে, ৩০ লাখ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে।


মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো শক্তিশালী দেশও করোনার নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও দুই লাখ মানুষ মারা গেছে। এখনো সেখানে মৃত্যুর মিছিল চলছে। বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর প্রাজ্ঞতা, বিচক্ষণতায় চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে বিভিন্ন নির্দেশনা জারি করে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সক্ষম হয়েছেন। এখনো দেশে করোনার যে ঢেউ আছে স্বাস্থ্যবিধি মানলে সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে।


করোনাকালে আওয়ামী লীগের কার্যক্রম নিয়ে তিনি বলেন, আমরা ১ কোটি ৯০ লাখ পরিবারকে সহায়তা করেছি। ৫০ লাখ অসহায় মানুষকে আড়াই হাজার টাকা করে ডিজিটাল মাধ্যমে দেয়া হয়েছে। এখনো আবার ৫০ লাখ মানুষকে সহায়তা করা হচ্ছে। আমরা প্রমাণ করেছি, আওয়ামী লীগ জনগণের দল। করোনায় কাজ করে আমাদের ৬০০ এর বেশি নেতাকর্মী মারা গেছেন। জনগণের পাশে ছিলাম বলে আমরা আক্রান্ত হয়েছি।


আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের দল। কাজেই যার যা সামর্থ্য আছে, তা নিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়ান।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে জাতীয় সংসদের এ সদস্য বলেন, আজকে বিশ্বনেতারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বলছেন শেখ হাসিনা মানে উন্নয়ন, শেখ হাসিনা মানে অগ্রগতি। কাজেই একটা কথা বলে যেতে চাই, দেশকে যারা ভালোবাসেন তারা শেখ হাসিনাকে সহায়তা করুন।


বংশাল থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে এবং একই থানার সাধারণ সম্পাদক সিরাজউদ্দিন বাদলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ খাদ্য বিতরণী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি,ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবু আহমেদ মন্নাফী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. হুমায়ূন কবির ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য জিন্নাতুল বাকিয়া এমপি।


বিবার্তা/রাসেল/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com