পর্যটনের অপার সম্ভাবনা নিয়ে জুনেই চালু পদ্মা সেতু
প্রকাশ : ২২ মে ২০২২, ১৩:৪৩
পর্যটনের অপার সম্ভাবনা নিয়ে জুনেই চালু পদ্মা সেতু
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশের পদ্মা নদীর উপর নির্মাণাধীন একটি বহুমুখী সড়ক ও রেল সেতু পদ্মা সেতু। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশের সাথে উত্তর-পূর্ব অংশের সংযোগ ঘটবে এই সেতুর কল্যাণে। উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে পদ্মা সেতু বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড়ো চ্যালেঞ্জিং প্রকল্প। দুই স্তর বিশিষ্ট স্টিল ও কংক্রিট নির্মিত ট্রাস ব্রিজটির ওপরের স্তরে থাকবে চার লেনের সড়ক পথ এবং নিচের স্তরটিতে থাকবে একটি একক রেলপথ।পদ্মা-ব্রহ্মপুত্র-মেঘনা নদীর অববাহিকায় ৬.১৫০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য এবং ১৮.১০ মিটার প্রস্থ পরিকল্পনায় নির্মিত হচ্ছে এই সেতু। পদ্মা সেতু যান চলাচলের উপযোগী হতে ২০২২ সালের অর্থাৎ এই বছরের জুন মাস পর্যন্ত লেগে যাবে।


পদ্মা সেতু ঘিরে তৈরি হয়েছে পর্যটনের অপার সম্ভাবনা। স্বপ্নের এই সেতু চালুর আগেই দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিদিনই আসছে অসংখ্য মানুষ। ভ্রমণপিপাসু এসব মানুষের চাহিদা মেটাতে পদ্মার দুই পাড়ের মানুষের যেন আন্তরিকতার কমতি নেই। আতিথেয়তার সবটুকু দরদ দিয়েই পর্যটকদের সেবা দিচ্ছেন তারা। আদি পেশা বদল করে মাওয়া-জাজিরার অনেকেই এখন পর্যটনকেন্দ্রিক নতুন ব্যাবসা কিংবা অন্য পেশায় আত্মনিয়োগ করছেন। এ দিকে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ের পর্যটনের উদ্যোক্তারাও নতুন সেবা দেয়ার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। আশা করা যায়, সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী, বহু কাক্সিক্ষত পদ্মা সেতু চালু হলে শুধু যোগাযোগই নয়, পর্যটনের পাশাপাশি শিল্প-বাণিজ্যেও অনেক দূর এগিয়ে যাবে এই এলাকার মানুষ। দেশি-বিদেশি পর্যটকদের অন্যতম পছন্দের স্পটে পরিণত হবে পদ্মা সেতু।


গতকাল ২১ মে, মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, জুনের শেষ সপ্তাহের যেকোনো দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিনক্ষণ ঠিক করবেন। আর ১৫ বছরের মধ্যেই সেতুর নির্মাণ ব্যয় উঠে আসবে। একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ১৫ বছরের মধ্যেই পদ্মা সেতুর নির্মাণ ব্যয় উঠে আসবে। শনিবার দুপুরে শরীয়তপুর পুলিশ লাইন্সে উগ্রবাদ প্রতিরোধে মতবিনিমিয় সভায় মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, জুনের শেষ সপ্তাহের মধ্যে পদ্মা সেতু ব্যবহারের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত হবে। শেষ সপ্তাহের যেকোনো দিন প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধনের দিনক্ষণ ঠিক করবেন। পদ্মা সেতু চালু হলে প্রথম দিকে দেশের জিডিপি ১ দশমিক ৩ শতাংশ বৃদ্ধির কথা বলা হলেও প্রকৃতপক্ষে জিডিপি ২ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। তিনি বলেন, ২৫ বছর লাগবে না, ১৫ বছরের মধ্যেই পদ্মা সেতুর নির্মাণ ব্যয় উঠে আসবে।


পদ্মা সেতু ও দুই পাড়ের উন্নয়ন সম্পর্কে জানা যায়, পদ্মা সেতু ঘিরে দিনকে দিন বাড়ছে পর্যটনের অমিত সম্ভাবনা। বিশেষ করে গত মাসে দেশের সবচেয়ে বৃহৎ সেতুটি মাথা তুলে দাঁড়ানোর পর থেকেই প্রতিদিনই সেতুটি দেখতে ভিড় করছেন অসংখ্য মানুষ। সবার মধ্যেই একটি ইতিবাচক মনোভাবও তৈরি হয়েছে। তবে তাক লাগানো সেতুটির পর্যটন গুরুত্ব কাজে লাগাতে পরিকল্পিত উদ্যোগের পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তারই পরিপ্রেক্ষিতে পদ্মা সেতুকেন্দ্রিক পর্যটন শিল্প বিকাশের জন্য বেশ কিছু পরিকল্পনাও নিয়েছে সেতু বিভাগ।


পদ্মার পাড় ও সেতুর আশপাশে নৌ-যানে চড়ে মন ভরে অনেকেই দেখেন স্বপ্নের সেতু। পদ্মার পূর্ব পাড়ে মুন্সীঞ্জের লৌহজংয়ের অনেক স্থানেই গড়ে উঠেছে পর্যটনসংশ্লিষ্ট ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। স্থানীয় অনেক লোকজনই এখন নতুন নানা পেশার সাথে জড়িত হয়েছেন। ট্রলার ভাড়া দেয়ার ব্যবসা এখানে বেশ জমজমাট। দৈনিক আয়রোজগার বেশ। আবার অনেকে গড়েছেন রেস্টুরেন্ট। বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত পর্যটকদের খাবারের জোগান দিতে অনেকে আদি পেশা ছেড়ে হোটেল ও মাছের ব্যবসা ধরেছেন। শিমুলিয়া ঘাটের গোল চত্বর ঘিরে গড়ে উঠেছে অর্ধশতাধিক খাবার হোটেল ও কার পার্কিং।


পদ্মা সেতু বিস্ময়কর গঠনশৈলী ও স্থাপত্যের অনন্যতা নিয়ে দেশের পর্যটনকে শক্তিশালী অবস্থানে নিয়ে যাবে। এই সেতুকে ঘিরেই দেশবিদেশে সমাদৃত হবে বাংলাদেশের পর্যটন। সেই সম্ভাবনাই ভোরের আলোর মতো উঁকি দিচ্ছে।


বিবার্তা/এসবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com