মহাকালের বিহ্বল আর্তি
প্রকাশ : ০৮ মে ২০২১, ১১:৩৩
মহাকালের বিহ্বল আর্তি
চামেলী খাতুন
প্রিন্ট অ-অ+

মহামারীর এসব দিনগুলো
একদিন ভুলে যাবে সবাই
পড়ে রবে হয়তো সেদিন
সবকিছুই বিস্মৃতির অন্তরালে!
অন্য কোনো ব্যগ্রতায় লীন হতে হতে
পেরিয়ে যাবে সবাই
অনন্ত ক্ষিপ্রতায় বয়ে যাওয়া বীণার
কর্কশ ধ্বনির বেগে।
যুগে যুগে এভাবেই
ভাসিয়ে নিয়ে যায়
সভ্যতার আটকে যাওয়া বিহ্বল আর্তিগুলো।


মর্মস্পর্শী এতসব ভগ্ন হৃদয়ের
বেচেঁ থাকার সমস্ত আয়োজন পেছনে ফেলে
মিশে যাবে সব;
নির্মমতার ধোঁয়াশা জাগানো
পৈশাচিক মরুর খরতাপে।
জলের কিনারে বসে ভেবেই চলেছি তাই...
অবিমিশ্র বালু কণা দেখে-দেখে।


অথচ,
অনন্ত আকাশনীলে
মুক্ত বিহঙ্গ হয়ে ছুটে চলা হয়ে ওঠেনি কোনোদিন;
তবুও, মনের অজান্তে
কত কত যুগ দিয়েছি যে পাড়ি,
খেয়ালের বশে;
প্রজাপতি ডানা মেলে।
চেতনালোকে ফিরে এসে দেখি
অসম্ভবের বেড়াজালে
আটকে আছে বে-খেয়ালি মন।


হিংসাত্মক মনোবাঞ্ছা পূরণের আকাঙ্ক্ষা নিয়ে
অবিরত যে খেলায় মেতেছে প্রহরী,
একদিন এ বিরানভূমির মালিকানা
কেউ চাইবে না;
নিষ্কর্মা পড়ে রবে সব
ধূ ধূ বালির বাঁধ হয়ে।


ভোরের সূর্য যেদিন
করে দেবে পর,
অনন্ত ঘুমে তলিয়ে যাবে সেদিন
জেগে ওঠার তাড়া রইবে না আর।
মনুষ্যজন্মে হবে নিকৃষ্টতম,
অধঃপাতিত জীবদের সাক্ষী হয়ে;
বিষম কাল চুলার আগুনে
ভস্মীকৃত অঙ্গ নিয়ে
জেগে থাকবে অনন্তকাল।
কত ঘৃণা বুকে উঠবে জেগে চারিপাশে
নিরবধি তাই দেখে যাবে মহাকাল।


বিবার্তা/এনকে

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com