পতিতাবৃত্তি বিলুপ্তির অঙ্গীকার স্পেনের প্রধানমন্ত্রীর
প্রকাশ : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৩
পতিতাবৃত্তি বিলুপ্তির অঙ্গীকার স্পেনের প্রধানমন্ত্রীর
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেড্রো সানচেজ দেশ থেকে পতিতাবৃত্তি বিলুপ্তির অঙ্গীকার করেছেন। তার ভাষায়, এই ধরণের কর্মকাণ্ড নারীদেরকে ‘দাসে পরিণত’ করে।


রবিবার (১৭ অক্টোবর) দেশটির ভ্যালেন্সিয়াতে নিজের বামপন্থি দলের তিনদিনব্যাপী কংগ্রেসে ভাষণ দেয়ার সময় তিনি এ কথা বলেন। বিবিসি।


১৯৯৫ সালে পতিতাবৃত্তিকে স্পেনে আইনি বৈধতা দেয়া হয়। এরপর ২০১৬ সালে জাতিসংঘের এক হিসাবে বলা হয়, দেশটির সেক্স ইন্ডাস্ট্রি বা পতিতাবৃত্তি পেশার আকার ছিলো মোটামুটি ৪২০ কোটি মার্কিন ডলারের।


এছাড়া ২০০৯ সালে এক জরিপে দেখা যায়, প্রতি তিন স্প্যানিশ পুরুষের একজন দৈহিক মিলনের জন্য টাকা পরিশোধ করেছেন। তবে ২০০৯ সালে প্রকাশিত অন্য একটি রিপোর্টে বলা হয়, দৈহিক মিলনের জন্য কোনো নারীকে টাকা পরিশোধ করা পুরুষের সংখ্যা ৩৯ শতাংশ।


অন্যদিকে, ২০১১ সালে জাতিসংঘের একটি গবেষণায় জানানো হয়, পতিতাবৃত্তির দিক থেকে স্পেন বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম। ইউরোপের এই দেশটির সামনে কেবল থাইল্যান্ড ও পুয়ের্তো রিকো রয়েছে।


স্পেনে পতিতাবৃত্তি এখন আর সরকারিভাবে নজরদারি করা হয় না। তবে টাকা পরিশোধের মাধ্যমে এবং স্বেচ্ছায় যারা এ ধরণের কর্মকাণ্ডে জড়িত হয়, তাদের জন্য কোনো সাজাও নেই।


তবে প্রকাশ্যে বা পাবলিক প্লেসে এ ধরণের ঘটনায় লিপ্ত হলে শাস্তির ব্যবস্থা রয়েছে। অবশ্য কোনো যৌনকর্মী এবং সম্ভাব্য কোনো ক্লায়েন্টের মধ্যে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করা দেশটিতে অবৈধ।


পতিতাবৃত্তিকে আইনি বৈধতা দেয়ার পর থেকে স্পেনে এই শিল্প ও পেশা ফুলেফেঁপে ওঠে। ধারণা করা হয়, স্পেনে প্রায় ৩ লাখ নারী বর্তমানে যৌনকর্মী হিসেবে কাজ করছেন।


উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে নির্বাচনী ইশতেহারে পতিতাবৃত্তি বিলুপ্তির অঙ্গীকার করেছিলেন পেড্রো সানচেজ। আরো বেশি সংখ্যক নারী ভোটারকে আকৃষ্ট করতেই তিনি এই অঙ্গীকার করেছিলেন বলে মনে করা হয়।


বিবার্তা/জেএইচ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com