‘মেডিটেশন সুশৃঙ্খল জীবন প্রতিষ্ঠায় সহায়ক ভূমিকা পালন করে’
প্রকাশ : ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৬:৪০
‘মেডিটেশন সুশৃঙ্খল জীবন প্রতিষ্ঠায় সহায়ক ভূমিকা পালন করে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

মেডিটেশন সুশৃঙ্খল জীবন প্রতিষ্ঠায় সহায়ক ভূমিকা পালন করে বলে মনে করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান।


তিনি আরো বলেন, ‘অনিয়ম, দুর্নীতি ও দূষণ থেকে সমাজকে রক্ষা করতে হলে শুদ্ধাচার চর্চা করতে হবে। মনকে পরিশীলিত করে জীবনের নতুন লক্ষ্য ঠিক করে সততায়, মানবিকতায় তরুণ প্রজন্মকে তৈরি করতে হবে। তাহলেই সমতাভিত্তিক সুন্দর বাংলাদেশ তৈরি করতে পারবো আমরা।’


সোমবার (৩ অক্টোবর) রাজধানীতে আইডিইবি ভবনে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পোস্ট-কোভিড টোটাল ফিটনেস প্রোগ্রাম চালুকরণ’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন উপাচার্য।


সমাজকে বদলে দিতে নৈতিক ও মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন মানস গঠন অপরিহার্য উল্লেখ করে দেশের প্রথিতযশা সমাজবিজ্ঞানী ড. মশিউর রহমান বলেন, ‘আমাদের এই সমাজকে খুবলে খাচ্ছে লুটেরা শ্রেণি। সেই লুটেরাদের বাজার সম্প্রসারণ হয়েছে, যে বাজার সমাজে অস্থিরতা তৈরি করছে। যে মানুষটি চেয়ারে বসে দুর্নীতি করে, অন্যায় হস্তক্ষেপ করে-তার মধ্য দিয়ে যে সামাজিক অস্থিরতা তৈরি হয়- সেটিই আমাদের তিক্ত অভিজ্ঞতায় ফেলে। আমরা যারা বসে পরিবেশকে নষ্ট করছি, বর্জ্য ফেলে বুড়িগঙ্গাকে দুষিত করছি, সেই সংখ্যাটি সীমিত নয়। তারা অর্থ, বাণিজ্য, বাজার দখল করে আমাদের আশঙ্কাজনক সমাজ উপহার দেয়। যে সমাজে দাঁড়িয়ে আমাদের নানা মানসিক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হচ্ছে।’


উপাচার্য ড. মশিউর রহমান বলেন, ‘অথচ গার্মেন্টেসের যেই মা-বোন ঘণ্টার পর ঘণ্টা সেলাইয়ের কাজ করে। একের পর এক বীজ বুনে যে কৃষক ফসল ফলায়। তাদের মেডিটেশন হয়তো ফরমাল নয়। কিন্তু আমার মনে হয় তাদের কাছ থেকেও মেডিটেশন শেখার আছে। সেটি যদি সত্য হয়, বাস্তবতা হয়- তাহলে আমরা সবাই মেডিটেশনের পার্ট। পৃথিবীর সমাজটাকে যারা অন্যায়, বিপথে, দূষণের পথে নিয়ে গেছে তারা অধিকাংশের ওপরে যে চাপ প্রয়োগ করছে সেটিই অস্থিরতার কারণ। সেই জায়গাগুলোকে চিহ্নিত করে প্রকৃত অর্থে যারা অস্থিরতা ছড়ায় তাদের আরও বেশি মেডিটেশন দরকার।’


জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদাহরণ টেনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বলেন, ‘দেশের মহানায়ক মৃত্যুর মুখে দাঁড়িয়ে বলেছিলেন তোমরা যদি আমাকে হত্যাও করো আমার লাশ বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিও। এখানেই মেডিটেশনের গভীর অনুপ্রেরণা, আর সেই অনুপ্রেরণা আমাদের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।’


মেডিটেশনের সর্বব্যাপী সাফল্য কামনা করে ড. মশিউর রহমান বলেন, ‘যারা আমাদেরকে বিপথগ্রস্ত অবস্থার মধ্যে ফেলেছে, সেই বাজার ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন হউক। সমতার সমাজ প্রতিষ্ঠিত হলেই মেডিটেশনে বড় সফলতা আসবে।’


অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি, বিশেষ অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।


অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রথিতযশা মনোচিকিৎসক ও কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক ড. আনোয়ারা সৈয়দ হক। এছাড়া অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক ওমর ফারুক, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান মো. ফরহাদুল হক, ড. মাসুদুল হক সিদ্দিকী, সালেহ আহমেদসহ প্রমুখ।


বিবার্তা/রাসেল/এসএফ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com