ঢাবি শিক্ষক একজন লাশ, আরেকজন কারাগারে!
প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:৫৪
ঢাবি শিক্ষক একজন লাশ, আরেকজন কারাগারে!
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সাইদা খালেককে অপহরণের পর হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের আবাসন প্রকল্প এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।


এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক ড. তাজমেরী এস ইসলামকে নাশকতার একটি মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পরে তাকে আদালত থেকে কারাগারে পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের ১১ নম্বর রোডের একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।


জানা যায়, অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সাইদা খালেক গাজীপুরে বসবাস করতেন। টাকা লুটে নিতে তারই বাড়ির নির্মাণশ্রমিকেরা তাকে হত্যা করে। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করেছে। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) হত্যাকাণ্ডের অভিযোগে আনোয়ার হোসেন নামে একজন নির্মাণশ্রমিককে আটক করে পুলিশ। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে লাশ উদ্ধার করা হয়।


কাশিমপুর থানার ওসি ​মাহবুব-এ খোদা বলেন, আনোয়ার হোসেন তার সঙ্গীদের নিয়ে ১১ জানুয়ারি নিহত অধ্যাপকের বাসায় লুটপাট করে তাকে গলাটিপে হত্যা করে। পরে মির্জাবাড়ি থেকে কিছুটা দূর একটি জঙ্গলের ভেতরে লাশ ফেলে দেয়।


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. নিজামুল হক ভূইয়া বলেন, গাজীপুরে তিনি একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। সেখানে নতুন বাড়ি নির্মাণের কাজ চলছিল। শ্রমিকরা বাড়ি নির্মাণের জন্য কিছু দাবি করছিল তার কাছে। তাদের সঙ্গে হয়তো সাইদা খালেকের মনোমানিল্য হয়েছিল। তিনদিন আগে তিনি নিখোঁজ হন। আজ সকালে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। সন্দেহজনক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হলে তিনি হত্যার দায় স্বীকার করেন।


এদিকে ২০১৮ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর মারপিটসহ দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় উত্তরার পশ্চিম থানায় দায়ের করা মামলায় অধ্যাপক তাজমেরী এস এ ইসলামকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠান ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত। বর্তমানে তিনি গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে আছেন। অধ্যাপক ড. তাজমেরী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের প্রধান, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন, হলের প্রভোস্টসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন দায়িত্বে ছিলেন। বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দলের আহ্বায়কও ছিলেন তিনি। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ড. তাজমেরী।


তার গ্রেফতারে তীব্র নিন্দা ও উদ্বেগ জানিয়ে গত রাতে প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে জাতীয়বাদী ছাত্রদল। এরপর শুক্রবার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সংগঠন ইউনিভার্সিটি টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইউট্যাব) এক বিবৃতিতে ঘটনার নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে অধ্যাপক ড. তাজমেরীর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছে।


বিবৃতিতে ইউট্যাবের সভাপতি অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম ও মহাসচিব অধ্যাপক ড. মো. মোর্শেদ হাসান খান বলেন, একটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলায় অধ্যাপক তাজমেরী এস এ ইসলামকে বাসা থেকে গ্রেফতারের পর কারাগারে পাঠানোর ঘটনা অত্যন্ত লজ্জাজনক এবং উদ্বেজনক। আমরা শিক্ষক সমাজ এমন কর্মকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।


একই ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপি-জামায়াত সমর্থক শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান এক বিবৃতিতে এ নিন্দা জানান।


বিবৃতিতে অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত কৃতি শিক্ষক এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক ড. তাজমেরী এস এ ইসলামকে গ্রেফতার ও কারাগারে প্রেরণের ঘটনায় আমরা গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি। আমরা এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।


বিবার্তা/রাসেল/আবদাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com