'রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের একাত্বতা বিরল'
প্রকাশ : ০১ জুলাই ২০১৯, ১৩:৩০
'রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের একাত্বতা বিরল'
যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

যুক্তরাষ্ট্রের মুলধারার প্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বলেছেন, আজ আপনারা রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধানে যে একাত্বতা দেখালেন তা সত্যিই বিরল।


রবিবার ফিলাডেলফিয়ায় বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশী নাগরিকের অংশগ্রহণে বিশ্ব শরণার্থী দিবসসহ বিশ্বের দীর্ঘস্থায়ী শরণার্থীদের সমসাময়িক হুমকিসমূহ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনারে একথা বলেন তিনি। সেমিনারে গেস্ট অব অনার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাসুদ বিন মোমেন।


সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের মন্ত্রী নিলা টেইলর, জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনের সিনিয়র পাবলিক ইনফরমেশন অফিসার মিজ ডানা সিলেইম্যান, বিশিষ্ট মনোবিজ্ঞানী ড. ওচিমা পিটম্যানা, মানবাধিকার প্রবক্তা জোসেফ হ্যারিস, ফিলাডেলফিয়ার ৬০নং ওয়ার্ডের কমিটিম্যান গ্রেক থম্পসন, ফ্যাশান ডিজাইনার ও আর্টস অর্গানাইজার ভ্যানি তাওসাইন্যান্ট, সঙ্গীত শিল্পী, মিজ্ টিন ইন্টারন্যাশনাল বিউটি ও মিজ্ ভারত নিউইয়র্ক সুজান কচ, আন্তর্জাতিক অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী ফটোগ্রাফার ও ডকুমেন্টারি ফিল্ম মেকার উলিসি টাওসাইনটিস, অভিনেত্রী, মডেল ও মানবাধিকার কর্মী ইভি ডমিনিকুই, শিশুতোষ বইয়ের লেখক ও সঙ্গীত প্রযোজক আলবার্ট রিড, সাউথ সুদানের সাবেক শরণার্থী বর্তমান মানবাধিকার কর্মী নায়ামাল টুডিয়াল ও বাংলাদেশের আরটিভির সিইও আশিক রহমান।


তিনি বলেন, আজ আপনারা রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধানে যে একাত্বতা দেখালেন তা সত্যিই বিরল। যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনকে আরো মানবিক ও রাজনৈতিক সহায়তা, দায়বদ্ধতা নিরূপণে চাপ প্রয়োগ, নিষেধাজ্ঞা আরোপ ও মিয়ানমারে সংঘটিত গণহত্যাকে ‘জেনোসাইড’ হিসেবে আখ্যাদান ইত্যাদি বিষয়ে আরো ভূমিকা রাখার ক্ষেত্রে স্থানীয় কংগ্রেসম্যানগণ যাতে পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধ জানান মাসুদ।


সেমিনারে বক্তব্য প্রদানকালে রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের মূল চ্যালেঞ্জসমূহ বিশেষ করে সঙ্কট সমাধানের মিয়ানমারের অসহযোগিতা ও আন্তর্জাতিক আইন ও নীতির প্রতি অবজ্ঞা প্রদর্শন এবং কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়িত না হওয়ার বিষয়গুলো তুলে ধরেন।


তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের মানবিক আশ্রয় প্রদানের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদারতা প্রদর্শন করেছেন এখন বিশ্ব সম্প্রদায়ের উদার ও কার্যকরভাবে এই সমস্যার স্থায়ীভাবে সমাধান করা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে তিনি মিয়ানমার কর্তৃপক্ষকে এর দায়বদ্ধতার মুখোমুখি করা, মূল কারণ খুঁজে বের করে এর সমাধান করা, রাখাইন প্রদেশে প্রত্যাবাসনের উপযোগী পরিবেশ ও মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সেফ জোন গড়ে তোলা ইত্যাদি ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান তিনি।


রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ইতিবাচক পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসা করেন রাষ্ট্রদূত মাসুদ। এতে জাতিসংঘে ভূমিকা রাখা, রোহিঙ্গাদের জন্য একক বৃহত্তম মানবিক সহায়তা প্রদান, মিয়ানমারের উচ্চপদস্থ পাঁচজন মিলিটারি কর্মকর্তাকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা, সহিংসতাকে জাতিগত নির্মূল হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান ও হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভ-এ রেজুলেশন গ্রহণসহ নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন তিনি।


রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানে বাংলাদেশ ও জাতিসংঘের পদক্ষেপের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশী কমিউনিটি যেভাবে যুক্তরাষ্ট্রের মূলধারাকে সাথে নিয়ে এগিয়ে আসছেন তা অবশ্যই ইতিবাচক ফলাফল বয়ে আনবে বলে মন্তব্য করেন এই রাষ্ট্রদূত।


জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনের (ইউএনএইটসিআর) সিনিয়র পাবলিক ইনফরমেশন অফিসার মিজ ডানা সিলেইম্যান বিশ্বের শরণার্থী সমস্যার বর্তমান পরিস্থিতি ও সমসাময়িক চ্যালেঞ্জসমূহ তুলে ধরেন।


শরণার্থী যে কোনো দেশের জন্যই একটি সমস্যা বিশেষ করে উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশে শরণার্থী সঙ্কট মারাত্মক সমস্যা সৃষ্টি করে বলে মন্তব্য করেন সিলেইম্যান। রোহিঙ্গাসহ বিশ্বের শরণার্থীদের সমস্যা সমাধানের মূল কারণ অনুসন্ধানের উপর সর্বোচ্চ জোর দেন ইউএনএইচসিআরের এই প্রতিনিধি।


সঙ্গীত শিল্পী, মডেল, মিজ্ টিন ইন্টারন্যাশনাল বিউটি ও মিজ্ ভারত নিউইয়র্ক সুজান কচ রোহিঙ্গা সঙ্কটের আদ্যপান্ত তুলে ধরেন এই সেমিনারে।


আরটিভির সিইও আশিক রহমান রোহিঙ্গা সঙ্কটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাষ্ট্রনায়োকোচিত ভূমিকা তুলে ধরার পাশাপাশি আরটিভির প্রযোজনায় রোহিঙ্গাদের উপর নির্মিত ‘জন্মভূমি’ সিনেমার বিষয়ে বক্তব্য উপস্থাপন করেন। ব্রিটস্ গ্লোবাল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান হিমু রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশের উদারতার নানা উদাহরণ তুলে ধরেন।


সেমিনারটির মডারেটর ছিলেন ফিলাডেলফিয়ার বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ও উপস্থাপক স্টিভেন বি প্যাক। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ফিলাডেলফিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের মিয়াসহ বিভিন্ন স্তরের লোকজন।


স্থায়ী প্রতিনিধির সহধর্মীনি ফাহমিদা জাবিন, জাতিসংঘ বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের মিনিস্টার ড. মনোয়ার হোসেন ও কাউন্সিলর তৌফিকুর রহমান এ সভায় অংশগ্রহণ করেন। ফিলাডেলফিয়ারা প্রবাসী তরুণ ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ ও মানবাধিকার কর্মী লুৎফর রহমান হিমুর প্রতিষ্ঠান ব্রিটস্ গ্লোবাল ফাউন্ডেশন এই সেমিনারের আয়োজন করে।


বিবার্তা/শিব্বির/তাওহীদ/আকবর

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com