ওয়াশিংটনে 'আকতারের বলী খেলা' অনুষ্ঠিত
প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৫৪
ওয়াশিংটনে 'আকতারের বলী খেলা' অনুষ্ঠিত
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ওয়াশিংটন প্রবাসী হাজারো বাংলাদেশীর স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হল ফ্রেন্ডস অ্যান্ড ফ্যামেমি (ডিএমভি) আয়োজিত বৈশাখী মেলা ১৪২৬। ৬ এপ্রিল শনিবার ভার্জিনিয়ার ম্যাশন ডিস্ট্রিক পার্কের খোলা আকাশের নিচে অনুষ্ঠিত হয় গ্রাম বাংলার চিরন্তন ঐতিহ্যবাহী খেলা লাটিম, মার্বেল, মোরগ লড়াই ও বলী খেলা।


মনির হোসেনের পরিচালনায় শুরু হয় খেলাধুলা। খেলায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন অনুষ্ঠানের উপদেষ্টা ও অতিথি রেদওয়ান চৌধুরী, কবির পাটোয়ারী ও কাবাব কিং রেস্টুরেন্টের স্বত্বাধীকারী মোহাম্মদ হোসেন।


প্রথমে লাটিম খেলা অনুষ্ঠিত হয়। লাটিম খেলায় প্রথম সালাউদ্দীন, দ্বিতীয় মামুন খান ও তৃতীয় হয় দেওয়ান আরশাদ আলী বিজয়। এরপর অনুষ্ঠিত হয় মহিলাদের মার্বেল প্রতিযোগিতা। এতে প্রথম হন রেহানা, দ্বিতীয় শিখা আহমেদ এবং তৃতীয় হন নীরা। এরপর শিশুদের নিয়ে শুরু মোরগ যুদ্ধ। মোরগ যুদ্ধে বিজয়ী হয় আইম ইয়াসির, তৌকির ও আরহাম।



এরপর শুরু হয় ‘আকতারের বলী খেলা’। বলী খেলায় অংশগ্রহণ করেন সালাউদ্দীন বলী, মামুন বলী, রাজু বলী ও বাবু বলী। চার রাউন্ডের খেলায় চার বলী মুখমুখী হয় একে অপরের। উত্তেজনাপূর্ণ লড়াইয়ে প্রবাসের মাটিতে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত ‘আকতারের বলী খেলা’য় বিজয়ী হন বাবু বলী ও দ্বিতীয় হন সালাউদ্দীন বলী। তাদের বিজয় বেল্ট পরিয়ে দেন অনুষ্ঠানের আয়োজক আকতার হোসেন। এ সময় খেলা বিচারক রেদওয়ান চৌধুরী, মোহাম্মদ হোসেন, ও কবির পাটোয়ারী, খেলার পরিচালক মনির হোসেনসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।


বাংলা ভাষা ও বাংলা সংস্কৃতি প্রবাসের মাটিতে বিশেষ করে নুতন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে ২০০৮ সালে ফ্রেন্ডস অ্যান্ড ফ্যামেমির জন্ম হয়েছিল বৃহত্তর ওয়াশিংটন।



আকতারের বলী খেলার পরপরই অনুষ্ঠানের মুল মঞ্চে শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পালা। শতরূপা বড়ুয়া ও শিব্বীর আহমেদের সঞ্চালনায় সাংস্কৃতিক পর্বের শুরুতেই অনুষ্ঠিত হয় বৈশাখের দলীয় সঙ্গীত। ওয়াশিংটন প্রবাসের অত্যন্ত জনপ্রিয় সঙ্গীত সাধক ও শিক্ষক নাছের চৌধুরীর পরিচালনায় ’এসো হে বৈশাখ, সোনাবন্ধে, ও তোরা সব জয়ধ্বণী কর’ পরপর তিনটি দলীয় সঙ্গীত পরিবেশন করে ওয়াশিংটনের স্থানীয় শিল্পীরা।


অনুষ্ঠানের মুলমঞ্চে শুরু হয় আমন্ত্রিত শিল্পীদের পর্ব। এই পর্বে একে একে অংশনেন নিউইয়র্কেও জনপ্রিয় শিল্পী কামারুজ্জামান বকুল, বাউল শিল্পী সায়েরা রেজা এবং জনপ্রিয় শিল্পী অভিনেতা তাহসান। দর্শকদের সাথে নেচে গেয়ে সেলফি তুলে আনন্দের মধ্য দিয়ে তাহসান রোদেলা দুপুর, ফিরে এসো, কাল্পনিক প্রেম, কে আঁকে অন্য ছবি, কেন হঠাৎ এলে, আছো হৃদয়ে, তুমি ছুঁয়ে দিলে মন, তুমি আছো তাই, কেউ না জানুক ইত্যাদি জনপ্রিয় গানগুলো গেয়ে শোনান।



তাহসানের গানের বিরতিতে অনুষ্ঠিত হয় র‌্যাফেল ড্র প্রতিযোগিতা। র‌্যাফেল ড্র এর মাধ্যমে দর্শকরা জিতে নেন টিভি, সোনার চেইন, ল্যাপটপ ও পদ্মার তাজা ইলিশ মাছ। একাত্তর ফাউন্ডেশনের সৌজন্যে টিভি, সোনিয়া জুয়েলার্সের সৌজন্যে সোনার চেইন, ইনসায়ের আইটি কোম্পানির সৌজন্যে ল্যাপটপ এবং এশিয়া হালার গ্রোসারির সৌজন্যে পাঁচটি ইলিশ মাছ র‌্যাফেল ড্র পুরস্কার হিসাবে প্রদান করা হয়।


সবশেষে অনুষ্ঠানের আয়োজক আকতার হোসেন ২০২০ সালের ১৮ জানুয়ারি পিঠা উৎসব এবং ৪ এপ্রিল আবারো বৈশাখী মেলা পালনের ঘোষণা দিয়ে অনুষ্ঠানের সফল সমাপ্তি ঘোষণা করেন।


বিবার্তা/শিব্বীর/জাকিয়া


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com