এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে ঢাকার দুই মেয়রের শোক
প্রকাশ : ০৬ জুলাই ২০২০, ২১:২৯
এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে ঢাকার দুই মেয়রের শোক
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

‘প্লেব্যাক সম্রাট’ খ্যাত সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।


সোমবার (৬ জুলাই) এক শোকবার্তায় আতিকুল ইসলাম বলেন, এন্ড্রু কিশোর এদেশের চলচ্চিত্রের গানের একজন প্লেব্যাক সম্রাট, ১৯৭৭ সালে আলম খানের সুরে ‘মেইল ট্রেন’ চলচ্চিত্রে ‘অচিনপুরের রাজকুমারী নেই যে তার কেউ’ গানের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক যাত্রা শুরু করেন। চলচ্চিত্রের গানের এই বরপূত্র তার সংগীত জীবনে ৮ বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরুস্কার অর্জন করেন। কিংবদন্তি এই সংগীতশিল্পী বাংলা গানকে যেভাবে দেশ-বিদেশে পরিচিতি এনে দিয়েছেন তা সংগীত প্রেমীরা সারাজীবন মনে রাখবে।বাংলা গানের এই নিবেদিত, মেধাবী ও চির সবুজ শিল্পীকে হারিয়ে আমরা গভীর শোকাহত।


মেয়র আতিকুল ইসলাম মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।


এদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এক শোকবার্তায় বলেন, এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যু শুধু সঙ্গীতাঙ্গনের জন্যই নয়, দেশের সাংস্কৃতিক আন্দোলনেরও এক অপূরনীয় ক্ষতি। তিনি কালজয়ী সংগীতের মাধ্যমে বেঁচে থাকবেন প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে।


শোকবার্তায় শেখ ফজলে নূর তাপস মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।


এর আগে সোমবার (৬ জুলাই) সন্ধ্যায় রাজশাহী মহানগরীর মহিষবাথান এলাকায় বোন ডা. শিখা বিশ্বাসের বাসাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এন্ড্রু কিশোর।


দীর্ঘদিন ধরে ব্লাড ক্যান্সারে ভুগছিলেন আটবারের চলচ্চিত্র পুরষ্কারপ্রাপ্ত এই শিল্পী। ব্লাড ক্যান্সার নিয়ে গত বছরের অক্টোবর থেকে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন এন্ড্রু কিশোর। হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পাওয়ার পর ১১ জুন রাতে বিশেষ ফ্লাইটে ঢাকায় আসেন তিনি। এরপর ঢাকা থেকে রাজশাহী চলে যান।সেখানে তার শারিরিক অবস্থার আরো অবনতি হয়। এরপর সোমবার (৬ জুলাই) সন্ধ্যায় না ফেরার দেশে চলে যান বরেন্য এ শিল্পী।


১৯৭৭ সালে এন্ড্রু কিশোর আলম খানের সুরে ‘মেইল ট্রেন’ চলচ্চিত্রে ‘অচিনপুরের রাজকুমারী নেই যে তার কেউ’ গানের মধ্য দিয়ে চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক যাত্রা শুরু করেন। এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।


তার জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে- ‘জীবনের গল্প আছে বাকি অল্প’, ‘হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস’, ‘ডাক দিয়াছেন দয়াল আমারে’, ‘আমার সারা দেহ খেয়ো গো মাটি’, ‘আমার বুকের মধ্যেখানে’, ‘আমার বাবার মুখে প্রথম যেদিন শুনেছিলাম গান’, ‘ভেঙেছে পিঞ্জর মেলেছে ডানা’, ‘সবাই তো ভালোবাসা চায়’, ‘পড়ে না চোখের পলক’, ‘পদ্মপাতার পানি’, ‘ওগো বিদেশিনী’, ‘তুমি মোর জীবনের ভাবনা’, ‘আমি চিরকাল প্রেমের কাঙ্গাল’ প্রভৃতি।


বিবার্তা/আবদাল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com