কুয়াকাটার সৈকতে পর্যটকদের ঢল
প্রকাশ : ২৭ জুন ২০১৭, ১৯:২৪
কুয়াকাটার সৈকতে পর্যটকদের ঢল
উত্তম কুমার হাওলাদার, কলাপাড়া (পটুয়াখালী)
প্রিন্ট অ-অ+

ঈদের ছুটিতে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার সৈকতে পর্যটকদের ঢল নেমেছে। কোথাও তিল ধারনের ঠাঁই নাই। দূরদূরান্ত থেকে ছুটে আসা ভ্রমন পিপাসু পর্যটকদের কোলাহলেপুরো সৈকতে আনন্দময় পরিবেশ বিরাজ করছে।


নানা বয়সের পর্যটকদের আগমনে রাখাইন মার্কেট, ঝিনুকের দোকান, খাবারঘর, চটপটির দোকানসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে কেনাকাটার ধুম পরেছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে হোটেল মোটেল গুলোতে পর্যটকরা উঠতে শুরু করেছেন।


কুয়াকাটার সড়ক যোগাযোগ ভালো থাকায় পর্যটকরা মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ছোট খাটো পরিবহন নিয়ে জড়ো হয়েছেন বলে সেখানকার ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।


স্থানীয়রা জানান, সৈকত লাগোয়া নারিকেল বাগান, ইকোপার্ক, ইলিশপার্ক, জাতীয় উদ্যান, শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধ বিহার, সীমা বৌদ্ধ বিহার, সুন্দরবনের পূর্বাঞ্চল খ্যাত ফাতরার বনাঞ্চল, ফকির হাট, গঙ্গামতি, কাউয়ার চর, লেম্বুর চর, শুঁটকি পল্লী ও কুয়াকাটা জিরো পয়েন্টে শিশু কিশোর তরুণ-তরুণীসহ নানা বয়সের পর্যটকদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে।


এদিকে পর্যটক ও দর্শনার্থীদের নিরাপত্তায় বিভিন্ন পয়েন্টে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যাপক টহল রয়েছে।



ঈদের ছুটিতে ঢাকা থেকে ভ্রমণে আসা শিক্ষার্থী বাহউদ্দিন বলেন, ঈদ মানেই আনন্দ। ঈদ মানেই খুশি। তাই এ আনন্দকে ভাগাভাগি করতে বন্ধুদের নিয়ে এখানে এসেছি। কুয়াকাটার সৈকতের অপরূপ দৃশ্য দেখে অসাধারণ লেগেছে।


অপর এক শিক্ষার্থী জান্নাতুর আয়েশা বলেন, লোখাপাড়ার চাপে এখন কোথাও বেড়াতে যাওয়াটা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তাই এ বছর ঈদের ছুটিতে আব্বু আম্মুর সাথে এখানে এসেছি।


গ্রিন ট্যুরিজমের পরিচালক আবুল হোসেন রাজু জানান, প্রচুর সংখ্যক পর্যটকের চাপ রয়েছে। ইতোমধ্যে পর্যটকরা তাদের পছন্দের হোটেলগুলোতে উঠতে শুরু করেছেন। এ অবস্থা আরো সপ্তাহখানে থাকতে পারে বলে তিনি জানিয়েছেন।


কুয়াকাটার বিলাসবহুল হোটেল সিকদার রিসোর্ট অ্যান্ড ভিলার জেনারেল ম্যনেজার জয়নাল আবেদীন চোকদার বলেন, ঈদ উপলক্ষে আমাদের হোটেলের রুমের মূল্যছাড় রয়েছে। হোটেলের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার থেকে লাইফ বারবিকিউ ও ডিনার পার্টি ছাড়াও সুইমিং পুলের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে পর্যটকরা ফোন কল ও আনলাইনের মাধ্যমে বুকিং দিচ্ছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।


কুয়াকাটা হোটেল মোটেল ওনার্স অ্যাসোশিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. মোতালেব শরিফ জানান, রমজান মাসে কুয়াকাটা প্রায় পর্যটকশূন্য ছিল। ঈদের ছুটিতে পর্যটকের ঢল নেমেছে। আমাদের হোটেল আগাম বুকিং রয়েছে। এখনও পর্যটকরা রুমের জন্য বিভিন্ন হোটেল মোটেল কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করছে।



কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট পুলিশ জোনের এএসপি আব্দুল করিম জানান, ঈদ উপলক্ষে পর্যটকদের ব্যাপক চাপ রায়েছে। নিরাপত্তা দিতে আমাদের পুলিশ বিভিন্ন দর্শনীয় স্পটে টহলে রয়েছে। এছাড়া সাগরে জোয়ারের পর্যটকদের যাতে কোনো অসুবিধা না হয় সে জন্য মাইকে সতর্ক করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।


বিবার্তা/উত্তম/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com