এবার মিন্নির বাবা-মাকে গ্রেফতার দাবি রিফাতের বাবার
প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৯, ১৮:০৩
এবার মিন্নির বাবা-মাকে গ্রেফতার দাবি রিফাতের বাবার
বরগুনা প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বরগুনার আলোচিত রিফাত হত্যা মামলার প্রধান স্বাক্ষী তার স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে গ্রেফতারের দাবিতে কয়েকদিন আগে সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন রিফাতের বাবা আবদুল হালিম শরীফ। পরে সে মামলায় গ্রেফতার হয়ে বর্তমানে কারাগারে মিন্নি।


এবার মিন্নির বাবা-মাকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করলেন রিফাতের বাবা হালিম শরীফ। এ ছাড়া মামালার পলাতক আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবিও জানান তিনি।


রবিবার (২১) দুপুরে বরগুনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানিয়েছেন হালিম শরীফ। এ সময় রিফাতের মা, বোন, চাচা-চাচি ও স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।


সংবাদ সম্মেলনে নিহত রিফাতের বাবা বলেন, বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে দিনে-দুপুরে আমার ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা করে ‘০০৭’ গ্রুপের সদস্যরা। এ ঘটনায় আমি একটি হত্যা মামলা করি। প্রাথমিকভাবে যে ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে, সেখানে মিন্নির ভূমিকায় সবাই প্রশংসা করে। তাই আমি প্রাথমিকভাবে মিন্নিকে মামলার ১ নম্বর সাক্ষী করি। পরে এ ঘটনার আরও ভিডিও ফুটেজ প্রকাশিত হওয়ায় মিন্নির ভূমিকা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়।


তিনি বলেন, এ ছাড়া নয়ন বন্ডের মায়ের কথায় আরো প্রকাশ্যে আসে মিন্নির আসল চেহারা। এরপর আমি বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নিয়ে এ হত্যাকাণ্ডে মিন্নির সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পাই। পুলিশও তাদের তদন্তে মিন্নির সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পেয়েছে। এরপরই তাকে গ্রেফতার করা হয় এবং সে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। এতেই প্রতিয়মান হয়, মিন্নিই এ খুনের প্রধান পরিকল্পনাকারী।


রিফাতের বাবা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, কিছু কিছু গণমাধ্যম আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমি ছেলে হারিয়েছি, আমার পাশে না দাঁড়িয়ে তারা খুনিদের বাঁচাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। মিন্নির মা-বাবা আমার কাছে তাদের মেয়ের বিয়ের বিষয়টি গোপন করে রিফাতের সঙ্গে বিয়ে দিয়েছে। এ বিয়েই আমার ছেলের জীবনের কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমি মিন্নির মা-বাবাকে আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবি জানাচ্ছি।


এর আগে গত ১৩ জুলাই রাত ৮টার দিকে মিন্নিকে গ্রেফতারের দাবিতে বরগুনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন রিফাতের বাবা আবদুল হালিম শরীফ। পরে ১৬ জুলাই রাতে তাকে গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।


২৬ জুন প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার সময় স্বামীকে বাঁচাতে মিন্নির চেষ্টার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।


ঘটনাটি আলোড়ন সৃষ্টি করে। পরদিন শাহনেওয়াজ রিফাত শরীফের বাবা দুলাল শরীফ ১২ জনকে আসামি করে মামলা করেন। তাতে মিন্নিকেই প্রধান সাক্ষী করা হয়।



বিবার্তা/রবি

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com