রাজশাহীতে জাল ১১ লাখ রুপিসহ গ্রেফতার ১
প্রকাশ : ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:২৪
রাজশাহীতে জাল ১১ লাখ রুপিসহ গ্রেফতার ১
রাজশাহী ব্যুরো
প্রিন্ট অ-অ+

রাজশাহীতে ১১ লাখ ভারতীয় জাল রুপিসহ একজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। তার কাছ থেকে জাল রুপি তৈরির মেশিনসহ নানা সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে।


শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে তাকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ঢাকা থেকে আগত র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল নগরীর বেলদার পাড়া থেকে তাকে সরঞ্জামাদিসহ গ্রেফতার করে। পরে র‌্যাবের পক্ষ থেকে একটি মামলা দিয়ে বোয়ালিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়।


গ্রেফতারকৃত ওই ব্যক্তির নাম- দরদুজ্জামান বিশ্বাস ওরফে জামান (৫৭)। গ্রামের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার শেখ তোলায়। বাবার নাম রহিদুল ইসলাম। বেলদার পাড়ায় নিজ বাড়িতেই তিনি জাল রুপি তৈরির কারখানা স্থাপন করেছিলেন। এর আগে তার নামে তিনটি মামলা ছিল।


র‌্যাব ও পুলিশ জানায়, দরদুজ্জামান দেশে ভারতীয় জাল রুপি তৈরির মূল হোতা। এর আগেও একাধিকবার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরা পড়েছিল। সর্বশেষ গত জানুয়ারিতে রাজশাহী থেকেই তাকে গ্রেফতার করেছিল ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। তার কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ জাল রুপি ছাড়াও ল্যাপটপ, প্রিন্টার মেশিন, লেমিনেটিং মেশিন, হ্যালোজেন লাইট, স্ক্যানিং করার প্রিন্টার ফ্রেম, কাগজ, বিভিন্ন ধরনের কার্টিজ জব্দ করা হয়েছিল। এরপর বেশ কিছুদিন কারাগারে ছিলেন দরদুজ্জামান। মাসখানেক আগে জামিন পান। ঢাকায় তার চক্রের সদস্যরা ধরা পড়ায় দরুদজ্জামান জাল রুপি তৈরির কার্যক্রম বেলদারপাড়ায় তার বাড়িতেই শুরু করেছিলেন।


র‌্যাব জানায়, বার বার গ্রেফতার হলেও জাল রুপি তৈরি করে তা বাজারে ছড়িয়ে দিয়ে প্রতারণা করেন দরদুজ্জামান। তিনি বাংলাদেশে ভারতীয় জাল রুপি তৈরির ‘গুরু’ হিসেবেও পরিচিত। তিনি ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে এক লাখ ভারতীয় জাল রুপির বান্ডিল বিক্রি করতেন। এভাবে তিনি বিপুল সম্পদের মালিক হয়েছেন।


সূত্রমতে, দরদুজ্জামান ১৯৮৮ সাল থেকে বাংলাদেশি জাল টাকা এবং ভারতীয় জাল রুপি তৈরি করে আসছেন। তার চক্রটি ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকায় জাল রুপি সরবরাহ করে। আর দরদুজ্জামান বরাবরই থাকেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ‘মোস্ট ওয়ানটেড’ তালিকায়। তার নামে তিনটি মামলা আগে থেকেই ছিল। সর্বশেষ র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হওয়ার ঘটনায় আরও একটি মামলা হয়েছে।


নগরের বোয়ালিয়া থানার ওসি আমান উল্লাহ জানান, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে র‌্যাব দরদুজ্জামানকে জাল রুপি ও রুপি তৈরির নানা সরঞ্জামসহ থানায় হস্তান্তর করে। এ সময় প্রচলিত ধারায় তার বিরুদ্ধে র‌্যাবের পক্ষ থেকে একটি মামলাও করা হয়।


বিবার্তা/তারেক/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com