সুগন্ধায় বালু উত্তোলনে হুমকিতে তীরবর্তী গ্রাম
প্রকাশ : ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:১৫
সুগন্ধায় বালু উত্তোলনে হুমকিতে তীরবর্তী গ্রাম
ঝালকাঠি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে বালু উত্তোলনের মহোৎসব চলছে। অব্যাহত বালু উত্তোলনের কারণে ভাঙনের মুখে পড়েছে নদীর তীরবর্তী গ্রামগুলো। বালু খেকো একটি সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন থেকে সুগন্ধা নদীর দিয়াকুল পয়েন্ট এবং ঝালকাঠি লঞ্চঘাট থেকে সুগন্ধা-বিষখালী নদীর মোহনাসহ একাধিক স্থান থেকে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে। এতে করে একদিকে সরকার রাজস্ব হারাচ্ছে, তেমনি অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে নদীর দুই পাড়ে ভাঙন দেখা দিয়েছে।


গত এপ্রিল মাসে ঝালকাঠির সুগন্ধা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে সাতটি ড্রেজারের সাত শ্রমিককে সাড়ে তিন লাখ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। জেলা প্রশাসনের নির্দেশে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. বশির গাজী নদীতে অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করেছিলেন। কিন্তু তারপরও থেমে নেই বালু উত্তোলন। প্রায় সারা বছর ধরে বালু উত্তোলনের ফলে সুগন্ধার তীরবর্তী ঝালকাঠি-নলছিটি এলাকার কয়েকটি গ্রামে ভাঙন ক্রমশই বাড়ছে।


ভুক্তভোগীরা জানান, অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলনের ফলে ঝালকাঠি শহর রক্ষা বাঁধ, নলছিটির বাড়ৈবাড়ি ইট ভাটাসহ কয়েকটি গ্রাম, ঝালকাঠির তেল ডিপো এলাকা, পুরাতন কলেজ এলাকা, ভবানীপুর, কিস্তাকাঠি, তোঁতা ফকিরের মাজার এলাকা, নাপ্তের হাট, দিয়াকুল গ্রাম ভয়াবহ নদী ভাঙনে হুমকির মুখে পড়েছে। ইতোমধ্যে এসব এলাকার কয়েকশ’ একর আবাদি জমি ও বসতি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।


নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন বালু কর্মচারী জানান, সুগন্ধা নদী থেকে দিনরাত ৪-৫টি ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের কাজ চলে। বিভিন্ন মহলকে ম্যানেজ করেই তারা বালু উত্তোলন করছে। বালু উত্তোলনকারীরা চারটি সেক্টরে নিয়মিত মাসোহারা প্রদান করে যাচ্ছে।


এ বিষয় জানতে চাইলে ঝালকাঠি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতাহার মিয়া বলেন, বিষয়টি আমরা জানি। প্রতি সপ্তাহেই আমরা অভিযান চালাচ্ছি। কিন্তু অভিযান চালিয়ে চলে আসার পরই তারা আবার রাতের আঁধারে বালু উত্তোলনের কাজ শুরু করে। এটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করার জন্য জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে শিগগিরই একটি মিটিং হবে। সে মিটিংয়ে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। পাশাপাশি ঝালকাঠিতে কোনো অনুমোদিত বালুমহল না থাকায় বিকল্প কি ব্যবস্থা নেয়া যায় সে ব্যাপারেও সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।


বিবার্তা/আমিনুল/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com