শিক্ষকের নির্যাতনে কাতরাচ্ছে শিশু শাকিল
প্রকাশ : ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:৫৫
শিক্ষকের নির্যাতনে কাতরাচ্ছে শিশু শাকিল
ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে শিক্ষকের নির্যাতনের শিকার হয়ে হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছে পিতা-মাতাহারা কওমী মাদরাসার শিশু শিক্ষার্থী শাকিল (১১)। তার সারা শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎকরা।


স্বজনেরা জানান, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের দেবীপুর হাফিজিয়া মাদরাসায় শাকিল নির্যাতনের শিকার হয়। সে ওই এলাকার মহিবুলের ছেলে। শাকিলের মা সজিনা খাতুন মৃত্যুর পর তার বাবা অন্যত্র বিয়ে করে চলে যায়। তারপর থেকে শাকিল নানা সাব্দুল মিয়ার বাড়িতে থাকে।


নির্যাতনের শিকার শাকিল জানায়, দেবীপুর হাফিজিয়া মাদরাসার সহকারী শিক্ষক হাবিব উদ্দিনের ১৫০ টাকা হারিয়ে যায়। ওই টাকা খুঁজে না পেয়ে শাকিলকে সন্দেহ করে। শুক্রবার সন্ধায় শাকিলকে মাদরাসার ঘরে নিয়ে বাঁশের লাঠি দিয়ে পেটায়।


এ ঘটনা জানতে শাকিলকে উদ্ধার করে নানা সাব্দুল মিয়া শাকিলকে গ্রাম্য চিকিৎকের কাছে নেয়। কিন্তু শাকিলের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।


উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. সঞ্জয় কুমার বলেন, শাকিলের শরীরে একাধিক জখমের চিহ্ন পাওয়া গেছে। শরীরের অনেক জায়গা আঘাতের কারণে ছিলে গেছে। মাংশপেশী ফেটে গেছে।


এ বিষয়ে নির্যাতনকারী শিক্ষক হাবিব উদ্দিনের সাথে মুঠোফোনে বলেন, টাকা চুরি করার অপরাধে একটু শাসন করা হয়েছে।


তারপরই ফোন কেটে দেন হাবিব।


এ বিষয়ে দেবীপুর হাফিজিয়া মাদরাসার প্রধান শিক্ষক বায়োজিদ বোস্তামী বলেন, ঘটনার সময় তিনি উপস্থিত ছিলেন না, ঘটনাটি দুঃখজনক।


শিবনগর ইউপি চেয়ারম্যান মামুনুর রহমান চৌধুরী বিপ্লব বলেন, এটা অন্যায় করা হয়েছে। এ বিষয়ে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।


ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুস সালাম চৌধুরী।


শনিবার পর্যন্ত নির্যাতনকারী শিক্ষককে আটক করতে পারেনি পুলিশ। এ বিষয়ে ফুলবাড়ী থানার অফির্সস ইনচার্জ (ওসি) শেখ নাসিম হাবিব বলেন, ঘটনার পর থেকে ওই শিক্ষক পলাতক রয়েছে। পুলিশ তাকে আটক করার চেষ্টা করছে।



শাকিলের নানা সাব্দুল মিয়া বলেন, শাকিলের মা সজিনা বেগম গত কয়েক বছর পুর্বে মারা গিয়েছে, শাকিলের মায়ের মৃত্যুর পর শাকিলের বাবা মহিবুল ইসলাম অন্যত্র বিয়ে করে সেখানে ঘর সংসার করছে। আর শাকিলকে তিনি নিজে মানুষ করছেন। তাকে আরবি শিক্ষা দেয়ার জন্য গ্রামের (দেবীপুর) হাফিজিয়া মাদরাসায় দিয়েছেন।


বিবার্তা/মেহেদী/কামরুল

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com