উপকূলজুড়ে ইলিশ শিকারের আগাম প্রস্তুতি
প্রকাশ : ২৮ জুন ২০১৮, ১৯:২৪
উপকূলজুড়ে ইলিশ শিকারের আগাম প্রস্তুতি
উত্তম কুমার হাওলাদার, কলাপাড়া
প্রিন্ট অ-অ+

উপকূলজুড়ে ইলিশ শিকারের আগাম প্রস্তুতি চলছে। কেউ নতুন ট্রলার তৈরি করছে। কেউ কেউ পুরনো ট্রলার মেরামত করছে। আবার কেউবা জাল সেলাই কিংবা নতুন জাল ক্রয় করছে।


ইলিশের মৌসুম ঘিরে জেলেরা এখন সাগরযাত্রার আয়োজনে ব্যস্ত। গতবছর সাগরবক্ষে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ায় এ বছরও আগাম প্রস্তুতি নিচ্ছে উপকূলের কয়েক হাজার জেলে।


বৃহৎ ইলিশের মোকাম মৎস্যবন্দর মহিপুর-আলীপুরের আশপাশে জেলেদের এখন গভীর সাগরে যাওয়ার পূর্ব প্রস্ততি চলছে। বসে নেই মহাজনসহ ট্রলার মালিকরাও। পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার সবক’টি জেলে পল্লীতে এমন প্রস্তুতি লক্ষ্য করা গেছে।


এদিকে ছিটেফোটা ইলিশ এখনই জেলেদের জালে ধরা পড়ছে। তবে আর কিছুদিন গেলেই শুরু হবে ইলিশ শিকারের ভরা মৌসুম এমনটাই জেলেরা জানিয়েছেন।


সংশ্লিষ্ট জেলে ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মৎস্য বন্দর আলীপুর, মহিপুর, খালগোড়া, খাজুরা, গঙ্গামতি, ঢোস, বুরোজালিয়া, মুন্সিপাড়া, চারিপাড়া, পশরবুনিয়া, নিশানবাড়িয়া, দেবপুর ও পাটুয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় জেলেরা অন্তত শতাধিক নতুন ট্রলার তৈরি করছে। এরা সবাই গভীর সাগরে এ বছর ইলিশ শিকারের যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে।


জেলে ফারুক শিকদার জানান, অন্যের সঙ্গে জীবনভর কাজ করেছেন। এবছর নিজেই সাগরে বোট নামানোর প্রস্তুতি নিয়েছেন। বোট তৈরির কাজ শেষের দিকে। জালসহ বিভিন্ন সামগ্রী সংগ্রহ করা হয়েছে।


আপর জেলে হালিম হাওলাদ জানান, আট লাখ টাকা ব্যয়ে তিনি একটি নতুন ট্রলার তৈরি করেছেন। সাগরে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।


জেলে মুনছুর হালাদার বলেন, বাপ-দাদার পেশা এখনো ধরে রেখেছি। পেটের তাগিদে সাগরে নামতেই হবে।


মৎস্য বন্দর আলীপুর আড়ৎদার সমিতির সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মো. আনসার উদ্দিন মোল্লা জানান, সাগরে মাছ পড়া শুরু করেছে। কিন্তু বৈরি আবহাওয়ার কারণে জেলেরা সাগরে যেতে পারছে না। তবে আর কিছুদিন গেলেই জেলেদের জালে পর্যাপ্ত ইলিশ ধরা পড়বে বলে তিনি জানিয়েছেন।



বাংলাদেশ ক্ষুদ্র মসৎজীবী জেলে সমিতির উপজেলা শাখার সভাপতি আবদুস সালাম বিশ্বাস জানান, জেলেরা সাগরে যাওয়ার প্রস্ততি নিয়েছে। কয়েক বছর আগে জেলেরা এক পর্যায়ে মাছ না পাওয়ায় নিঃস হয়ে যায়। ইলিশ রক্ষায় বর্তমান সরকারের গত দুই-তিন বছর ধরে মা ইলিশ ও জাটকা অভিযানের ফলে সাগর ও নদীতে ইলিশের বংশবৃদ্ধি হয়েছে। এর ফলে জেলেদের জালে ব্যাপক ইলিশ ধরা পড়ছে।


সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম জানান, আগস্ট, সেপ্টম্বর ও অক্টোবর এই তিন মাস ইলিশের ভরা মৌসুম। জুলাই মাসের মাঝামাঝি থেকেই সাগরে জেলেদের জালে ইলিশ ধরা পড়বে এমনটাই আশা করেছেন তিনি।


বিবার্তা/উত্তম/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com