উপকূল থেকে হারিয়ে যাচ্ছে মৌমাছি
প্রকাশ : ২০ নভেম্বর ২০১৬, ১৯:০১
উপকূল থেকে হারিয়ে যাচ্ছে মৌমাছি
কলাপাড়া প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

সমুদ্র উপকূলীয় পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকার গাছপালা ও ঝোপঝাড়ে এখন আর চোখে পরে না মৌচাক। এ অঞ্চল থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে মৌমাছি আর মৌচাক। বনে-জঙ্গলে এখন মৌমাছির ভোঁ-ভোঁ শব্দও শোনা যাচ্চে না আগের মতো।


আনাড়ি মধু সংগ্রহকারীরা আগুন জ্বালিয়ে মধু সংগ্রহের সাথে সাথে মৌমাছি পুড়িয়ে মেরে ফেলায়সহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও অবাধে গাছপালা কেটে ফেলায় মৌমাছিদের উপযুক্ত পরিবেশ ক্রমশই হারিয়ে যাচ্ছে। এর ফলে মৌমাছি ও মৌচাক এখন প্রায় বিলুপ্তি পথে।


একাধিক মধু সংগ্রহকারীদের সূত্রে জানা গেছে, দেশে সাধারণত তিন জাতের মৌমাছি দেখা যায়। এর মধ্যে পাহাড়িয়া, খুদে ও খুড়ুলে। পাহাড়ীয়া মৌমাছিরা সাধারণত বড় বড় গাছের মগডালে, উঁচু পানির ট্যাংকের ওপরে ও বড় বড় ঘরের ওপরে চাক বাঁধে। খুদে মৌমাছি ছোট ছোট ঝোপঝাড়ে সাধারনত চাক বেঁধে থাকে আর খুড়ুলে মৌমাছি বড় বড় গাছের খোড়লে চাক বাঁধতে পছন্দ করে।


মধু সংগ্রহকারীরা এখন গ্রামগঞ্জে ঘোরাফেরা করেও একটি মৌচাক খুঁজে পাচ্ছেন না। যদিও কোথাও পাওয়া যায় তা আকারে অনেক ছোট। তাতে মধুর পরিমাণও খুবই কম থাকছে বলে তাদের কাছ থেকে জানা গেছে।


অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক জন্মজয় রায় বলেন, মধু মানব জীবনে অনেক উপকারী বস্তু। কিন্তু বাজারে এখন আসল মধু পাওয়াটাই দুস্কর। কালক্রমে দেশ থেকে হারাতে বসেছে মৌমাছি আর মৌচাক।


সাংস্কৃতিক কর্মী মোস্তফা জামান সুজন বলেন, মৌমাছি পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করে। মৌমাছি ক্রমশই বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। এগুলো রক্ষা করা প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন।
বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ওয়ার্ল্ড কনসার্ন বাংলাদেশর কলাপাড়া উপজেলা সমন্বয়কারী জেমস্ রাজিব বিশ্বাস জানান, দফায় দাফায় প্রাকৃতিক দুর্যোগ, অধিক তাপমাত্রা, বসবাসের উপযোগী পরিবেশের অভাব ও ফসলে মাত্রাতিরিক্ত কীটনাশকের প্রয়োগ, আনাড়ি মধু সংগ্রহকারীদের মৌমাছি পুড়িয়ে হত্যা করাসহ নানাবিধ কারণে মৌমাছি বিলুপ্ত হয়ে যচ্ছে। ফলে আগের মত মৌচাক দেখা যাচ্ছে না।


বিবার্তা/উত্তম/পলাশ


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com