শেষ হলো শেরপুরের তিন দিনের ইজতেমা
প্রকাশ : ১২ নভেম্বর ২০১৬, ১৫:৪৬
শেষ হলো শেরপুরের তিন দিনের ইজতেমা
শেরপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেরপুরে শেষ হয়েছে তিন দিনব্যাপী ইজতেমা। শনিবার বেলা ১২টায় শেরপুর শহরের উপকণ্ঠে মৃগী নদীর তীরে ইজতেমা ময়দানে এ আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।


মোনাজাত পরিচালনা করেন রাজধানীর কাকরাইল মসজিদ থেকে আসা তাবলিগ জামাতের সুরা সদস্য মাওলানা উমর ফারুক। মোনাজাতে বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ-সমৃদ্ধি, শান্তি ও কল্যাণ কামনা করা হয়।


এর আগে কোরআন ও হাদিসের আলোকে ইমান, আমল ও হেদায়েতের ওপর বিশেষ বয়ান করেন কাকরাইল মার্কাজের তাবলিগ মুরুব্বি মাওলানা মাহমুদুল হাসান ও মো. আব্দুল্লাহ। এ সময় বয়ান মঞ্চে একটি যৌতুকবিহীন বিয়েও পড়ানো হয়।


আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে শনিবার ভোর থেকেই ইজতেমা ময়দানে মুসল্লিদের ঢল নামে। মোনাজাতে অংশ নিতে আসা মানুষ ময়দানে জায়গা না পেয়ে আশপাশের বাটারাঘাটা, অষ্টমী তলা সড়ক, পৌর কবরস্থান এবং আশপাশের মাঠে-ক্ষেতে যে যেখানে জায়গা পেয়েছেন, সেখানে বসেই মোনাজাতে শরিক হন।


ইজতেমা ময়দানের প্রায় এক বর্গকিলোমটিার এলাকা লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়। আশপাশের বাসাবাড়িতে অবস্থান নিয়ে বিপুলসংখ্যক মহিলাও মোনাজাতে অংশ নেন। বেলা ১১টা ৪৫ মিনিটে আখেরি মোনাজাত শুরু হয় এবং ১২টা ১৪ মিনিটে শেষ হয়।


শেরপুর তাবলিগের আহলে শুরার সাথী নূর মোহাম্মদ জানান, ইজতেমা থেকে ৬৭টি চিল্লার জামাত (৪০ দিনের জামাত) আল্লার রাস্তায় বের হচ্ছে। শেরপুরের এ ইজতেমায় ইন্দোনেশিয়া, ভারত, মালয়েশিয়ার তিনটি বিদেশি জামাতসহ ২৭৩টি দাওয়াতি জামাত অংশগ্রহণ করে।


তিনি আরো জানান, তাবলিগের কাকরাইল মসজিদের মুরুব্বিদের সিদ্ধান্ত অনুসারে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় স্থান সংকুলান না হওয়ায় শেরপুরসহ দেশের ৩২টি জেলায় পর্যায়ক্রমে এভাবে জেলা ইজতেমা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে ৩২ জেলা করে একেকবার এ জেলা ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে।


উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার বাদ জোহর আমবয়ানের মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছিল এই ইজতেমা।


বিবার্তা/সানী/নাজিম

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com