গুরুদাসপুরে স্বামীর পরকীয়ায় প্রাণ গেল গৃহবধূর
প্রকাশ : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭, ২২:৪৫
গুরুদাসপুরে স্বামীর পরকীয়ায় প্রাণ গেল গৃহবধূর
গুরুদাসপুর (নাটোর) সংবাদদাতা
প্রিন্ট অ-অ+

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের শাহিদা (৩০) নামের এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ ওঠেছে স্বামী নুর ইসলামের বিরুদ্ধে।


বুধবার বিকেল চারটার দিকে ওই ঘটনাটি ঘটে। রাত আটটার দিকে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রাতেই লাশটি ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত নুর ইসলাম।


নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, ১৭ বছর আগে বড়াইগ্রাম উপজেলার তিরাইল গ্রামের দিন মুজুর সমজান আলীর মেয়ের সাথে নুর ইসলামের বিয়ে হয়। সেসময় যৌতুক হিসাবে সোনার গহনা ও নগদ ৩০ হাজার টাকা দেয়া হয়েছিল। বিয়ের পর থেকেই শাহিদাকে বিভিন্ন সময় নির্যাতন করতেন নুর ইসলাম। এনিয়ে কয়েক দফা সালিস দরবারও হয়েছে। তাদের সংসারে নদী (১০) নামের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।


নিহত গৃহবধূ শাহিদার মা শরফুল জান অভিযোগ করেন, ১৫ বছর আগে শশুর বাড়ির টাকায় বিদেশ যান নুর ইসলাম। সেখানে গিয়ে পরিবারের কোন খোঁজ রাখেনি সে। উপরন্ত নাটোর সদরের বাসিন্দা খালাতো বোনের সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে নুর ইসলামের। বিষয়টি মেনে নিতে পাড়েনি তার মেয়ে শাহিদা। এ কারণে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা চলছিল। সর্বশেষ মাস খানেক আগে বিদেশ থেকে ফিরে ওই খালাতো বোনের সাথে যোগাযোগ শুরু করে নুর ইসলাম। এ বিষয়ে প্রতিবাদ করায় বুধবার সন্ধ্যায় শাহিদাকে হত্যা করা হয়।


স্থানীয় বাশিন্দা নাছির উদ্দিন ও আতিকুর রহমান জানান, গৃহবধূ শহিদা শান্ত প্রকৃতির মেয়ে। কারো সাথে বিবাদে জড়াতেন না। কিন্তু তার স্বামী নুর ইসলাম বিয়ের পর থেকেই শাহিদাকে মেনে নিতে পারেনি। মাঝে মাঝেই খালাতো বোনের সাথে যোগাযোগ করার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এ বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে টানাপড়েন চলছিল।


নিহত শাহিদার শাশুড়ির দাবি, বুধবার বিকালে তার ছেলের সাথে শাহিদার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে শাহিদা ঘরের দড়জা বন্ধ করে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তাকে খুন করা হয়নি।


নাজিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত রানা লাবু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মাসখানেক আগে বিদেশ থেকে ফিরেছে নুর ইসলাম। খালাতো বোনের সাথে পরকীয়ার কারণে তাদের পরিবারে টানাপড়েন চলছিল।


গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দিলীপ কুমার দাস বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। রির্পোট পাওয়ার পরে হত্যার রহস্য বোঝা যাবে। তাছাড়া নিহতের স্বামী নুর ইসলাম ঘটনার পর থেকে পর থেকে পলাতক রয়েছেন।


বিবার্তা/দিলু/সোহাগ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com