সিলেটে সুখেই আছে ছিনতাইকারীরা
প্রকাশ : ১৮ অক্টোবর ২০১৬, ১৭:১৪
সিলেটে সুখেই আছে ছিনতাইকারীরা
সিলেট মহানগরী
খলিলুর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

আধ্যাত্মিক নগরী সিলেটে ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে ভালোই আছে, সুখেই আছে ছিনতাইকারী দুর্বৃত্তরা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখকে ফাঁকি দিয়ে, নিত্যনতুন ঘৃণ্য কৌশল উদ্ভাবন করে মহানন্দে অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে তারা। এমনকি এই অপকর্মে একশ্রেণীর নারীকেও লাগাচ্ছে তারা।


বিবার্তা২৪ডটনেটের অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে এমন তথ্য।


অনুসন্ধানে জানা গেছে, সিলেট নগরীর ঘাসিটুলার বাসিন্দা শাহেদ ওরফে সোর্স শাহেদ ও সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার ইসকাপুর গ্রামের আব্দুর নূরের ছেলে মোহাম্মাদ আলী সিলেটে ছিনতাইচক্রের হোতা। তাদের নেতৃত্বে সিলেট মহানগরীতে নারী-পুরুষ মিলে বেশ কিছু সংখ্যক ছিনতাইকারী রয়েছে।


শাহেদ ও আলীর নেতৃত্বাধীন পুরুষ ছিনতাইকারী চক্রের যাদের নাম জানা গেছে, তারা হচ্ছে- হালিম ওরফে মেম্বার হালিম, কবির, হেলিম, আব্দুল্লাহ, রুকু, নূর, উজ্জল, দুলাল, মাহবুব, সোহেল, সাইফুল প্রমুখ।


নারী ছিনতাইকারীদের মধ্যে যাদের নাম জানা গেছে, তারা হচ্ছে- কমলা, সুমি, পপি, অঞ্জনা, শ্যামলী, সেলিনা, মমতা, মাফিনি, শাহীনা, শানু, আয়েশা। এদের কয়েকজন গত রমজানে ছিনতাইকালে হাতেনাতে ধরাও পড়েছিল। তবে তাদের বিরুদ্ধে কোনো সাক্ষী না থাকায় আদালত থেকে সহজেই তারা জামিন পেয়ে বেরিয়ে আসে।


সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানায়, শাহেদ ও আলী তিনটি অটোরিকশায় বসে ছিনতাই করে থাকে। ওই তিন অটোরিকশার প্লেট নাম্বার হচ্ছে: সিলেট থ-১২-৬৭৬৭, সিলেট- থ-১২-২১০৯ ও সিলেট থ- ১১-২৫৯৪। ওই তিন অটোরিকশায় চালক সেজে ছিনতাইকারীরা বাস টার্মিনাল, রেল স্টেশন, ব্যাংক বা বড় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে থেকে যাত্রী নেয়। পরে টার্গেটকৃত যাত্রীকে নিরিবিলি জায়গায় নিয়ে সর্বস্ব ছিনিয়ে নেয় ছিনতাইকারীরা।


এছাড়া কখনো ছিনতাইকারীরা আলগোছে যাত্রীর পকেট বা ব্যাগ কেটে ছিনিয়ে নেয় টাকাপয়সা, মোবাইলসহ মূল্যবান জিনিস। তবে ছিনতাইকারীদের টার্গেটকৃত ওই ব্যক্তি যদি টের পেয়ে যায়, তখন ছিনতাইকারীরা তাকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে গন্তব্যে না পৌঁছিয়েই সব ছিনিয়ে রাস্তায় নামিয়ে দেয়।


সূত্র আরো জানায়, এই কৌশল প্রয়োগ করে গত ঈদ- উল-আজহার সময় সিলেট নগরীর টিলাগড়ে এক ব্যক্তির কাছ থেকে ৬ লাখ টাকা এবং দক্ষিণ সুরমার হুমায়ুন রশিদ চত্বর থেকে আরেক ব্যক্তির কাছ থেকে ৪ লাখ ১০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে শাহেদ ও আলী চক্রের দুর্বৃত্তরা।


এদিকে, গত ১৯ সেপ্টেম্বর পৃথক অভিযানে নগরীর টিলাগড় ও ঘাসিটুলা থেকে শাহেদ (৩৫) ও মোহাম্মদ আলীকে (২৫) আটক করে কারাগারে পাঠানো হয়। তবে যথারীতি তাদের বিপক্ষেও আদালতে সাক্ষী না থাকায় গত বৃহস্পতিবার জামিনে মুক্তি পেয়ে ফের অপকর্মে মেতেছে তারা।


ওই চক্রের সদস্যরা সম্প্রতি সিলেট নগরীর মীরের ময়দানে ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে খালেদ আহমদ চৌধুরী নামের এক ব্যাংক কর্মকর্তার নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। এ সময় খালেদকে ছুরিকাঘাত করে তার ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যায় ছিনতাইকারীরা। ব্যাগের ভেতর নগদ ২ হাজার টাকা ও প্রয়োজনীয় কাজগপত্র ছিলো বলে জানান তিনি।


এ সম্পর্কে জানতে চাইলে সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার রহমত উল্লাহ জানান, ছিনতাইকারীর তালিকা আমাদের হাতে রয়েছে। তাদের ধরতে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


বিবার্তা/খলিল/মৌসুমী/হুমায়ুন

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com