নওগাঁয় আশ্রয়ন প্রকল্পের শিশুদের জন্য দৃষ্টিনন্দন পার্ক
প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৩০
নওগাঁয় আশ্রয়ন প্রকল্পের শিশুদের জন্য দৃষ্টিনন্দন পার্ক
শামীনূর রহমান
প্রিন্ট অ-অ+

নওগাঁর আত্রাইয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পের ভুমিহীন ও গৃহহীনদের প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার সরুপ নীড়ের পাশাপাশি বসবাসরত শিশুদের স্বাস্থ্য নিশ্চিত ও তাদের বিনোদনের জন্য দৃষ্টিনন্দন পর্ক নির্মাণ করা হয়েছে। সেইসাথে নির্মল বাতাস আহরণের জন্য আশ্রয়ন কেন্দ্রের চারিধারে ফলজ ও বনজ বক্ষ রোপন করে সবুজ বেষ্টনি তৈরী করা হয়ছে।


এদিকে আশ্রয়ন প্রকল্পের ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার বসবাসের সু-শৃঙ্খল পরিবেশের পাশাপাশি তাদের শিশুদের বিনোদনের জন্য দৃষ্টিনন্দন পার্ক নির্মাণ করায় খুশি স্থানীয় জনসাধারণ ও শিশু কিশোররা। এছাড়া আশ্রয়ণ কেন্দ্রে বসবাসরত সকলকে সরকারি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার আওতায় আনা হয়েছে বলে জানা গেছে।


জানা যায়, মুজিববর্ষে কেউ গৃহহীন থাকবেনা প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণার প্রেক্ষিতে আত্রাই উপজেলায় দুই ধাপে পাঁচ স্থানে ১৮৫ টি বাড়ী নির্মাণ করা হয়েছে। নির্মিত বাড়িগুলো প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর সুফলভাগীদের মাঝে বুঝিয়ে দেয়া হয়। বাড়ী পেয়ে সেখানে মনের আনন্দে বসবাস করছেন উপজেলার ভূমি ও গৃহহীন পরিবার গুলা। বর্তমান বছরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইকতেখারুল ইসলামের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়ন রসুলপুর আশ্রয়ন কেন্দ্রে শিশুদের স্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে পার্ক নির্মাণ করেন।


একইসাথে রাস্তার দুইধারে ও আশ্রয়ন কেন্দ্রের চারিধারে পাঁচ’শ ফলজ ও বনজ বৃক্ষরোপণ করেন। অপরদিক মধুগুড়নই আশ্রয়ন কেন্দ্রে নদীরধার গাইড ওয়াল তৈরী করে তাতে মাটি ভরাট দিয়ে সেখানেও শিশুদের বিনোদন দিতে দোলনা এবং নদীর নির্মল বাতাস আহরণর জন্য স্থায়ী বসবার জায়গা নির্মাণ করেন। এই কেন্দ্রের চারিধারে পাঁচ’শ ফলজ ও বনজ বক্ষ লাগিয়ে সেখানে সবুজ বেষ্টনি তৈরী করা হয়েছে।



সরেজমিনে জানা যায়, আত্রাই-নওগাঁ আঞ্চলিক সড়কর রসুলপুর নামক স্থানে ১ নং খতিয়ানভুক্ত দুই দশমিক নব্বই একর উঁচু জমিতে দুই ধাপের আশ্রয়ন প্রকল্পর ৭৩ টি বাড়ী নির্মাণ করা রয়েছে। তাতে আনুমানিক তিন’শ মানুষ মনের আনন্দে স্বাছন্দে বসবাস করছেন। কেন্দ্রের পাশে মাদ্রাসা, মসজিদ, কমিউনিটি ক্লিনিক, খোলা মাঠ রয়েছে। আশ্রয়ন কেন্দ্রের রাস্তায় ও চারিধারে পাঁচশত ফলজ ও বনজ বৃক্ষরোপণ করা রয়েছে। সেখানে শিশুপার্ক শিশুদের বসবার জায়গা, দোল খাবার দোলনা, গোল চত্তর এবং ফুলের বাগান রয়েছে। এছাড়া কেন্দ্রের প্রবেশদ্বার প্রকল্প সম্পর্কিত বিলবোর্ড দেয়া আছে।


অপরদিকে আত্রাই নদীর বুকচিরে গড়ে ওঠা মধুগুড়নই গ্রাম সংলগ্ন ১ নং খতিয়ানভুক্ত তিন দশমিক বিশ একর উঁচু জমিতে আশ্রয়ন প্রকল্পর ৮৪ টি বাড়ী নির্মাণ করা হয়েছে। তাতে আনুমানিক সাড়ে তিন’শ মানুষ মনের আনন্দে বসবাস করছেন। কেন্দ্রের পাশের মসজিদ,নদীর খোলা নির্মল হাওয়া গায়ে লাগানোর ব্যবস্থা আছে। আশ্রয়ন কেন্দ্রের রাস্তায় ও চারিধারে পাঁচশত ফলজ ও বনজ বক্ষ রোপন করা রয়েছে। সেখানের শিশুদের দোল খাবার দোলনা, নদীর নির্মল বাতাস আহরনর জন্য স্থায়ী বসবার জায়গা রয়েছে। এছাড়া কেন্দ্রের প্রবেশদ্বার প্রকল্পের তথ্য সম্বলিত বিলবোর্ড দেয়া আছে।


ইউএনও ইকতেখারুল ইসলাম বলেন, মুজিববর্ষে কেউ গৃহহীন থাকবেনা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী উপজেলার পাঁচ স্থান ১৮৫টি বাড়ী নির্মাণ করে সুফলভাগী মানুষের নিকট বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। শিশুদের স্বাস্থ্য নিশ্চিত ও নির্মল বাতাস আহরনের জন্য রসুলপুর ও মধুগুরনই আশ্রয়ন কেন্দ্রে শিশুপার্ক, এক হাজার ফলজ এবং বনজ বৃক্ষরোপণ করে প্রকল্প সম্পর্কিত বিলবার্ড স্থাপন করা হয়েছে। আশ্রয়ন কেন্দ্রের সকল মানুষকে সরকারের দেয়া বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার আওতায় আনা হয়েছে। এছাড়া পর্যায়ক্রমে গৃহ ও ভূমিহীন সকল মানুষকে এই সুবিধার আওতায় আনতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।


বিবার্তা/বিদ্যুৎ

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

পদ্মা লাইফ টাওয়ার (লেভেল -১১)

১১৫, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,

বাংলামোটর, ঢাকা- ১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2021 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com