দিনাজপুরে আগাম শীতকালীন সবজি
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর ২০২০, ২২:২৮
দিনাজপুরে আগাম শীতকালীন সবজি
দিনাজপুর প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

ধানের জেলা দিনাজপুরে শীতকালীন আগাম সবজি চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। অনেক স্থানে গড়ে উঠেছে সবজি পল্লী। অনুকুল আবহাওয়া ও অধুনিক পদ্ধতিতে চাষাবাদ করায় এবার এ শীতকালীন আগাম সবজি ভালো ফলন পাচ্ছে কৃষক। এ সবজি চাষ করে ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটেছে অসংখ্য কৃষকের।


দিনাজপুরের বিস্তৃর্ণ এলাকা জুড়ে এখন সবুজ সবজির সমারোহ। শীতকালীন আগাম সবজির পরিচর্যায় নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষক। বীরগঞ্জ উপজেলার মরিচাগ্রামের কৃষক জয়নাল আবেদিন জানান, তিনি এবার আড়াই বিঘা জমিতে আগাম জাতের ফুলকপি আবাদ করেছেন। ইতোমধ্যে ৭০ হাজার টাকার ফুলকপি বিক্রি করেছেন তিনি।


একই কথা জানান, বোচাগঞ্জ উপজেলার ঈশানিয়া এলাকার কৃষক রবিউল ইসলাম। তিনি জানান, তিনি বাঁধাকপি, মুলা ও লাল শাক আবাদ করেছেন। ক্ষেত থেকে পাইকার এতে তার এসব সবজি কিনে নিয়ে যাচ্ছেন।


সরজমিনে জেলার বেশকিছু এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বিস্তৃর্ণ এলাকা জুড়ে পালন শাক, মুলা, বেগুন, লাল শাক, ফুলকপি, বাঁধা কপি, কলমি শাক, ঢেড়ষ, পুইশাক, বরবটি, করলা, শশা, লাউ, চিচিংগা, আবাদ করছে কৃষক। সল্প ও মধ্য মেয়াদী এসব শাক সবজি বাজারে চাহিদা পুরনের পাশাপাশি বাজার দর ভালো পাওয়ায় আর্থিক লাভবান হচ্ছেন তারা। সবজি চাষ করে তারা প্রতি বিঘা জমি থেকে লাভ করছেন ৭০ হাজার থেকে থেকে এক লাখ টাকা।


দিনাজপুর জেলার ১৩টি উপজেলায় এবার ২২ হাজার ১৫২ হেক্টর জমিতে সবজি চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও চাষ হয়েছে আরো বেশি জমিতে। এর মধ্যে শীতকালীন আগাম সবজি চাষ হয়েছে ১১ হাজার হেক্টর জমিতে।


তবে, বিরামপুর, ঘোড়াঘাট, হাকিমপুর, বীরগঞ্জ, বিরল, সদর ও বোচাগঞ্জ উপজেলায় এবার শীতকালীন আগাম সবজির বাম্পার ফলন হয়েছে। দাম ভালো পাওয়ায় কৃষক ক্ষেতেই বিক্রি করছেন সবজি। বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকারেরা এসে কিন নিয়ে যাচ্ছেন এসব সবজি। জমিতে এ ধরণের সল্প মেয়াদী শাক সবজি আবাদ কৃষকদের আর্থিক ভাবে সাবলম্বী করবে বলে জানান কৃষি কর্মকর্তারা।


দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. তৌহিদুল ইকবাল জানান, লাভজনক ফসল হওয়ায় শীতকালীন আগাম এ সবজি চাষে কৃষকদের সহযোগিতা ও পরামর্শ দিচ্ছে কৃষি বিভাগ।


সবজি চাষের এলাকাগুলো ঘুরে দেখা গেছে, শীতকালীন আগাম সবজি চাষ করে ব্যাপক লাভবান হচ্ছেন কৃষক। এ সবজি চাষ করে ঘুরছে অনেক কৃষকের ভাগ্যের চাকা। সংশ্লিষ্ট বিভাগের সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে এবং এ শীলকালীন সবজির ন্যায্যমূল্য পেলে এ অঞ্চলে শীতকালীন সবজি চাষাবাদ আরো বেড়ে যাবে এমনটাই মন্তব্য করছেন কৃষিবিদরা।


বিবার্তা/শাহী/জাই


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: [email protected], [email protected]

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com